শিরোনাম
প্রকাশ : ২২ জুন, ২০২১ ১৯:৪১
প্রিন্ট করুন printer

গাজীপুরে লকডাউনেও যানজট, মানছে না স্বাস্থ্যবিধি

আফজাল, টঙ্গী:

গাজীপুরে লকডাউনেও যানজট, মানছে না স্বাস্থ্যবিধি
Google News

করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে ঢাকাকে বিচ্ছিন্ন করার জন্য সকাল থেকে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। লকডাউনে সড়ক ও মহসড়কে গাড়ির কমতি না থাকায় বিভিন্নস্থানে দেখা দিয়েছে তীব্র যানজট। লকডাউন উপেক্ষা করে দূরপাল্লার বাস ছাড়া সব ধরনের যানবাহন সড়কে চলাচল করছে। জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রাইভেটকার, অটো, সিএনজি ও মাইক্রোবাসে টঙ্গী পর্যন্ত এসে ঢাকার প্রবেশমুখ আব্দুল্লাপুর পার হলেই মিলছে ঢাকার বাস। আবার ঢাকা থেকে বাসে এসে আব্দুল্লাপুর নেমে গাজীপুর হয়ে বিভিন্ন এলাকায় যাচ্ছে। 

টঙ্গী বাজার এলাকায় পুলিশের চেকপোষ্ট বসিয়ে বিভিন্ন গণপরিবহন আটকে ট্রাফিক আইনে অর্ধশতাধিক মামলাও দিয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি না মেনে সরকারি বিধিনিষেধ অমান্য করে ঢাকায় প্রবেশ করছে। 

সরেজমিন ঘুরে জানা যায়, সরকারি বিধিনিষেধ অমান্য করে বিভিন্ন পরিবহন ও বিভিন্নভাবে ঢাকায় ও গাজীপুরে প্রবেশ করছে মানুষ। কেউ প্রাইভেট কার, মাইক্রোবাস, সিএনজি, ট্রাকে আবার কেউ হেঁটে হেঁটে গন্তব্য স্থানে পৌঁছেছে। তবে দূর পাল্লার বাস চলাচল না করায় অন্য জেলার লোক তেমন একটা প্রবেশ করতে পারে পারে নাই। একান্তই প্রয়োজনে অনেকে প্রাইভেট কার ও মাইক্রোবাস কিংবা মোটরসাইকেলে গাজীপুর হয়ে ঢাকায় প্রবেশ করছে। সকালে পুলিশের কড়াকড়ি নজর থাকলেও বিকেলে ছিলো ঢিলেঢালা। যে কারণে টঙ্গী কালিগঞ্জ সড়ক, ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়কের আব্দুল্লাপুর, টঙ্গী বাজার,স্টেশনরোড, চেরাগআলী, গাজীপুরাসহ নগরীর বিভিন্ন এলাকায় যানজটের সৃষ্টি হয়। আর এ লকডাউন যাত্রীদের চলাচল করতে গিয়ে দ্বিগুন ভাড়া গুনতে হয়েছে। 

এবিষয়ে ঢাকার মহাখালি এলাকায় চাকরি করা এক ব্যক্তি মামুন বলেন, ভাড়া বেশি লাগুক আর গাড়ি না থাকুক কর্মস্থলে যেতেই হবে। কাজ না করলে চাকরি থাকবে না। সংসার চলবে কিভাবে, আমরা গরিব মানুষ কাজ করেই ভাত খেতে হবে। শতভাগ লকডাউন মানতে গেলে জীবন ডাউন হয়ে যাবে। 

এদিকে করোনা সংক্রমন এড়াতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কথা থাকলেও কেউ মানছেন না। নেই সামাজিক দূরত্ব,নেই মাস্ক। আবার অনেকের কাছে মাস্ক আছে কিন্তু ব্যবহার করছেন না। যার ফলে দিন দিন সংক্রমন বাড়ছে। এবিষযে টঙ্গী শহীদ আহসান উল্লাহ মাষ্টার জেনারেল হাসপাতালের পরিচালক ডা:মো জাহাঙ্গীর আলম বলেন হঠাৎ করে দেশব্যাপী করোনা সংক্রমন বেড়ে গেছে। তাই সবাইকে মাস্ক ব্যবহার ও সরকারি নিয়মনীতি মেনে চলতে হবে। মনগড়া চললে হবে না। 

সড়কে যানজটের বিষয়ে টঙ্গী পশ্চিম থানার এসআই শুভ মন্ডল বলেন, সড়কে অনেক গাড়ি, আমরা পাঁচ মিনিট গাড়ি আটকে রাখলে বিশাল জ্যাম পড়ে যায়। 

এ ব্যাপারে ট্রাফিক পুলিশের সহকারী পুলিশ কমিশনার শরিফুল হক বলেন, ঢাকায় প্রবেশ বন্ধে টঙ্গী বাজার  এলাকায় আমরা চেকপোষ্ট বসিয়েছি,সরকারি বিধি নিষেধ  অমাণ্য করায় বিভিন্ন পরিবহনকে আটকে মামলাও দিয়েছি। 

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার 

এই বিভাগের আরও খবর