২৪ অক্টোবর, ২০২১ ১৫:৪৩

মোরেলগঞ্জে ইউপি নির্বাচন, বাড়ছে বহিরাগতদের তাণ্ডব

মোরেলগঞ্জ প্রতিনিধি

মোরেলগঞ্জে ইউপি নির্বাচন, বাড়ছে বহিরাগতদের তাণ্ডব

হামলায় আহতরা।

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার খাউলিয়া ইউনিয়নের নির্বাচন আগামী ২ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। আসন্ন এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রতিদিন প্রতিপক্ষের কর্মীদের মারধরের ঘটনা ঘটছে। রক্তাক্ত অবস্থায় হাসপাতালে অথবা বাড়ি ফিরছেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

খাউলিয়া ইউনিয়নের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী দু’জন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের দলীয় নৌকা পেয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক দপ্তর সম্পাদক মাস্টার সাইদুর রহমান। আর মনোনয়ন বঞ্চিত হয়ে চশমা প্রতীক নিয়ে লড়ছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি, সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ আব্দুল হাই খান। প্রার্থীর মৃত্যুর কারণে স্থগিত ছিল এই ইউনিয়নের নির্বাচন।

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ১৭ নভেম্বর থেকে শুরু হয়েছে প্রচার-প্রচারণা। আর মারধর শুরু হয়েছে প্রতীক ঘোষণার পর থেকেই। গত এক সপ্তাহে কমপক্ষে ২৫ জনকে মারধর করা হয়েছে। থানা পুলিশ ও প্রার্থীদের দেওয়া তথ্যমতে, সকল মারধরের নেতৃত্ব দিচ্ছে বহিরাগতরা।

এছাড়া প্রার্থীরা অভিযোগ করছেন পরস্পরের বিরুদ্ধে। আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী সাইদুর রহমান বলছেন, তার কর্মীদের মারধর করা হচ্ছে। ঘর থেকে বের হতে দিচ্ছেন না বিদ্রোহী প্রার্থীর লোকজন। অপরদিকে বিদ্রোহী প্রার্থী হাই খান বলছেন, এখন পর্যন্ত তার কমপক্ষে ২৫ জন নেতাকর্মীকে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে। ৩টি নির্বাচনী অফিস, প্রচার মাইক ভাঙচুর করা হয়েছে।

যেকোনো সময় এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রাণহানির ঘটনা ঘটতে পারে বলেও আশঙ্কা করছেন সাধারণ ভোটাররা। সর্বশেষ গত শনিবার বিকেলে সন্ন্যাসী বাজার এলাকায় হামলার ঘটনায় বিদ্রোহী প্রার্থীর কমপক্ষে আটজন কর্মী আহত হয়েছেন। এদিন মোবাইল কোর্টে এক যুবককে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ইতিমধ্যে ফাঁকা গুলির ঘটনাও ঘটেছে।

এ বিষয়ে থানার ওসি মো. ইকবাল বাহার চৌধুরী বলেন, খাউলিয়া ইউনিয়নের আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। মোরেলগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সোনিয়া পারভিন, থানার ওসি, উপজেলা সহকারী কমিশনার মো. আলী হাসান এলাকায় টহল দিচ্ছেন।

নির্বাচনী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা মো. আব্দুল কুদ্দুস বলেন, খাউলিয়া ইউনিয়নের শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য প্রতিটি ওয়ার্ডে পুলিশ নিয়োগ করা হয়েছে। এছাড়া আজও বিকেলে এ বিষয়ে প্রসাশনিক কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর