২১ অক্টোবর, ২০২২ ২০:১৪

পলিকে শ্বাসরোধের পর গলা কেটে হত্যা, প্রেমিকসহ গ্রেফতার ৩

নাজমুল হুদা, সাভার :

পলিকে শ্বাসরোধের পর গলা কেটে হত্যা, প্রেমিকসহ গ্রেফতার ৩

গ্রেফতারকৃত তিনজন

সাভারের আশুলিয়ায় নারী পোশাক শ্রমিক পলিকে বিয়ে করার কথা বলে কারখানার সামনে থেকে রিকশায় করে পার্শ্ববর্তী শ্রিখন্ডিয়া বড়বিচরা এলাকায় নিয়ে যায় রেজাউল, সামিউল ও সাইফুল। পরে সেখানের নির্জন জঙ্গলে নামিয়ে সাইফুলের গলায় থাকা গামছা পেঁচিয়ে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী পলিকে শ্বাসরোধে হত্যা করে প্রেমিক রেজাউল। এরপর তার মৃত্যু নিশ্চিত করার জন্য নিজের কাছে থাকা ছুরি দিয়ে গলা কাটে সাইফুল ও সামিউলের সহযোগীতায় জঙ্গলের ভিতরে থাকা গভীর কুয়ায় ফেলে দেয় প্রেমিক রেজাউল। 

শুক্রবার বিকালে সাভারের নবীনগর র‌্যাব ক্যাম্পে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে প্রেমিক রেজাউলসহ তিনজনকে গ্রেফতারের এসব তথ্য জানানো হয়। এর আগে, শুক্রবার সকালে আশুলিয়ার টঙ্গাবাড়ি হাকিমপট্টি এলাকায় অভিযান চালিয়ে হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত তিনজনকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের সহযোগীতায় গভীর কুয়া থেকে নিহত পলির গলিত মরদেহটি উদ্ধার করেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলো শেরপুর জেলার সদর থানাধীন কামারেরচর চরদিবাড়ী গ্রামের মৃত আব্দুল জলিলের ছেলে মো. রেজাউল ইসলাম (৪২), একই জেলার ঝিনাইগাতী থানার দড়িকালি গ্রামের মৃত সমির উদ্দিনের ছেলে মো. সামিউল (৩২) ও টাঙ্গাইল জেলার নাগরপুর থানাধীন শিক কাঠুড়া গ্রামের মো. জলিল মিয়ার ছেলে সাইফুল ইসলাম (৪৯)।
 
এদের মধ্যে রেজাউল দু’টি বিয়ে করেছেন। প্রথম ঘরে তার দু’টি কন্যা সন্তান এবং দ্বিতিয় ঘরে একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। প্রথমে সে গার্মেন্টসে কাজ করলেও বর্তমানে টঙ্গাবাড়ি হাকিমপট্টি এলাকায় চায়ের দোকান চালাতো। এছাড়া সামিউল একজন রিকশাচালক। তারও দুটি কন্যা সন্তান রয়েছে। গ্রেফতারকৃত সাইফুল ইসলাম একজন কাপড় ব্যবসায়ী। সেও বিবাহিত এবং তার দু’টি ছেলে সন্তান রয়েছে। তারা সবাই টঙ্গাবাড়ি হাকিমপট্টি এলাকায় বসবাস করেন। র‌্যাব জানায়, এ ঘটনায় নিহতের বোন বাদী হয়ে আশুলিয়ার মামলা দায়ের করেছেন। 

বিডি-প্রতিদিন/শফিক

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর