শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ এপ্রিল, ২০২১ ২৩:২১

আইসিইউ সংকট

জরুরি সরবরাহ নিশ্চিত করুন

করোনাভাইরাস বা কভিড-১৯ আক্রান্তদের অন্যান্য উপসর্গের মধ্যে শ্বাসকষ্ট অন্যতম। যেসব আক্রান্তের শ্বাসকষ্ট সহনীয় মাত্রায় থাকে তাদের শ্বাস গ্রহণের জন্য অক্সিজেন নেওয়ার প্রয়োজন হয় না। কিন্তু যাদের শ্বাসকষ্টের মাত্রা অনেক বেড়ে যায় তাদের শ্বাসযন্ত্র সচল রাখতে বাইরে থেকে অক্সিজেন সরবরাহ করতে হয়। এটি কেবল করোনায় আক্রান্তই নন আরও অনেক গুরুতর রোগীর জন্য সরবরাহ জরুরি হয়ে পড়ে। বাংলাদেশে করোনায় আক্রান্ত ৩ হাজারের বেশি মানুষের আইসিইউ সহায়তা দরকার, কিন্তু শয্যা আছে মাত্র ৩৯৯টি। আছে অক্সিজেন সরঞ্জামেরও অভাব। দেশের ৩৬ জেলায় নেই আইসিইউর ব্যবস্থা। জীবন বাঁচাতে সংকটাপন্নদের ঢাকায় রেফার্ড করা হয় জেলা শহর থেকে। ঢাকায় সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী থাকায় এমনিতেই রোগীর চাপ বেশি, তার ওপর বিভিন্ন জেলা থেকে আসছে সংকটাপন্নরা। রাজধানীর হাসপাতালগুলোয় চলছে আইসিইউর জন্য হাহাকার। বেসরকারি হাসপাতালেও মিলছে না আইসিইউ। আইসিইউ না থাকায় হাই ফ্লো ন্যাজাল ক্যানোলা দিয়ে রাখা হচ্ছে রোগীদের। আইসিইউর ব্যবস্থা না হওয়ায় মারা যাচ্ছেন রোগী। আর করোনায় আক্রান্তদের কেউ সুস্থ হলে বা মারা গেলেই শুধু রাজধানীর হাসপাতালগুলোয় আইসিইউ শয্যা খালি হচ্ছে। আইসিইউ শয্যা ফাঁকা না থাকায় রোগী নিয়ে হাসপাতালের দুয়ারে দুয়ারে ঘুরতে হচ্ছে স্বজনদের। তবু মিলছে না আইসিইউ। রাজধানীর সরকারি হাসপাতালে সাধারণ শয্যার ওপরও চাপ বাড়ছে। সাধারণত তিন উপায়ে করোনা আক্রান্তদের জন্য অক্সিজেন দেওয়া হয় সিলিন্ডার, হাই ফ্লো ও রোগীর শ্বাসযন্ত্রে কৃত্রিম যন্ত্র দিয়ে। এটি চিকিৎসকের পরামর্শ ও তত্ত্বাবধান ছাড়া ব্যবহারের সুযোগ নেই। শরীরে অক্সিজেনের মাত্রার পরিমাণ নিরূপণ করেই সিদ্ধান্ত নিতে হয় কতটুকু অক্সিজেন দিতে হবে। এর ব্যত্যয় হলে বিপদ দেখা দিতে পারে।

আমরা এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষগুলোর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।