শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ নভেম্বর, ২০১৮ ২৩:০২

ঢাকা আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসব ২০১৮

শেকড় সন্ধানী গানে আজ মাতবে ঢাকা

পান্থ আফজাল

শেকড় সন্ধানী গানে আজ মাতবে ঢাকা

লোক গানের সুর ও কথায় বেঁচে আছি আমরা আর আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম। এদেশের তরুণ প্রজন্মকে বাংলার মাটি, মানুষ আর সুরের টানে বিমোহিত করতে এই সুরভাণ্ডারের তুলনা অসীম। আন্তর্জাতিক মানের সংগীতের রস আস্বাদনের সুযোগ এদেশের তরুণ-তরুণীরা তথা সব বয়সের মানুষই লুফে নিতে কখনোই কার্পণ্যবোধ করে না; আর ওদিকে তো আছেই দেশের অফুরন্ত সংগীতভাণ্ডার। সেদিক দিয়ে একঘেয়েমি শহুরে যান্ত্রিক জীবনের ছাইপাঁশ ঝেড়ে প্রতি বছর শেকড়ের সন্ধান মিলে তিন দিনব্যাপী আর্মি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হওয়া লোকসংগীতের আসরে। শীতের ঠাণ্ডা পরশের সঙ্গে আন্তর্জাতিক লোকগানের এই অমীয় সুধায় বাঙালি নিজেকে ডুবিয়ে নেয় অকৃপণভাবে। শেকড় সন্ধানী সংগীতপিপাসুরা ভিড় করে আর্মি স্টেডিয়ামে বিশ্বখ্যাত শিল্পীদের সুর-লয়ের খেলায় মনকে ভিজিয়ে নিতে। এ বছরও তার ব্যতিক্রম নেই; পরপর তিন রাতব্যাপী বাংলাদেশের সংগীত অনুরাগীরা উপভোগ করবে লোকসংগীতের সুরের ধারা। বরাবরের মতো এবারও সান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে আয়োজিত হতে যাচ্ছে দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় লোকসংগীতের উৎসব ‘ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ফোকফেস্ট ২০১৮’। বাংলাদেশ আর্মি স্টেডিয়ামে আজ থেকে শুরু হয়ে চলবে ১৭ নভেম্বর পর্যন্ত। সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত শ্রোতারা স্টেডিয়ামে উপভোগ করবেন বাংলাদেশসহ বিশ্বের সেরা লোকসংগীত শিল্পীদের পরিবেশনায় শেকড় সন্ধানী গানগুলো। বাংলাদেশসহ বিশ্বের ৭টি দেশ থেকে ১৭৪ জন শিল্পী জড়ো হচ্ছেন একই মঞ্চে। এবারের আসরে উল্লেখযোগ্য শিল্পীরা হলেন- বাংলাদেশের মমতাজ বেগম, বাউল আবদুল হাই দেওয়ান, বাউল কবির শাহ, অর্ণব অ্যান্ড ফ্রেন্ডস, নকশীকাঁথা, স্বরব্যাঞ্জো ও ভাবনা নৃত্যদল। ভারত থেকে ওয়াদালি ব্রাদার্স, রাঘু দীক্ষিত, সাত্যকি ব্যানার্জি, পাকিস্তান থেকে শাফকাত আমানাত আলী, বাহরাইন থেকে মাজায, যুক্তরাষ্ট্র থেকে গ্র্যামি বিজয়ী লস টেক্সমেনিয়াক্স,  পোল্যান্ড থেকে দিকান্দা এবং স্পেনের লাস মিগাস সংগীত পরিবেশন করবেন। তিন দিনের এই মনোমুগ্ধকর উৎসবের আজ প্রথম দিনে দেশ ও বিদেশের কিছু গুণী নৃত্য ও সংগীতশিল্পী মঞ্চ মাতাবেন। প্রথম দিনের আসরে মঞ্চ মাতাবেন ভাবনা নৃত্যদল, পোল্যান্ডের দিকান্দা, ভারতের ওয়াদালি ব্রাদার্স, বাংলাদেশের বাউল আবদুল হাই দেওয়ান ও ভারতের সাত্যকি ব্যানার্জি।

 

ভাবনা নৃত্যদল (বাংলাদেশ)

আসরের প্রথম দিনের উদ্বোধনী আয়োজন শুরু হবে বাংলাদেশের সুপরিচিত ভাবনা নৃত্যদলের ড্যান্স পারফর্মেন্স দিয়ে। সামিনা হোসেন প্রেমা ও তার নৃত্যদল পরিবেশন করবে মনোমুগ্ধকর লোকনৃত্য। যদিও তারা  ক্ল্যাসিক্যাল, শাস্ত্রীয় ও লোকনৃত্য পরিবেশন করে থাকে। এই নৃত্যদল দেশ-বিদেশের বিভিন্ন উৎসবে নৃত্য পরিবেশন করে থাকে।

 

দিকান্দা (পোল্যান্ড)

ইউরোপীয় বলকান ও জিপসি প্রভাবিত পোল্যান্ডের ব্যান্ড দল ‘দিকান্দা’। এ পর্যন্ত এই লোকজ ব্যান্ডটির সাতটি অ্যালবাম বের হয়েছে। জার্মানি, অস্ট্রিয়া, সুইজারল্যান্ড, রাশিয়া, ভারত ও আমেরিকায় নানা উৎসবে ব্যান্ডটি অংশগ্রহণ করেছে।

 

ওয়াদালি ব্রাদার্স (ভারত)

ভারতের সুপরিচিত সুফি ঘরানার ‘ওয়াদালি ব্রাদার্স’ মূলত গঠিত দুই ভাই পদ্মশ্রী ওস্তাদ পূরণচন্দ্র ও পেয়ারেলাল ওয়াদালিকে নিয়ে। এই ব্রাদার্স গুরুবাণী, কাফি, গজল, ভজনসহ  গেয়ে থাকেন সুফি গান। তবে দুঃখের বিষয় যে, ছোট ভাই পেয়ারেলাল ওয়াদালি চলতি বছরের মার্চ মাসে মারা যান। তবুও দলটি ওয়াদালি ব্রাদার্স নামেই পরিচিত। ছোট ভাইয়ের জায়গায় এবারের আসরে গান পরিবেশন করবেন পূরণ ওয়াদালির ছেলে লখিন্দর ওয়াদালি।

 

বাউল আবদুল হাই দেওয়ান (বাংলাদেশ)

বাউল আবদুল হাই দেওয়ানের পরিচিতি মূলত আড়বাঁশি বাজানোর মাধ্যমে। কৃষক পরিবারে জন্ম নেওয়া এই শিল্পী ‘মাতাল বাউল’ রাজ্জাক দেওয়ানের শিষ্য। এই গুরুই তাকে ‘হাফ মাতাল’ উপাধি দেন। চতুর্থবারের এই লোক উৎসবে তিনি শেকড় সন্ধানী কিছু বাউল গান পরিবেশন করবেন।

 

সাত্যকি ব্যানার্জি (ভারত)

ভারতীয় শিল্পী সাত্যকি ব্যানার্জি। গুরু পণ্ডিত তেজেন্দ্র নারায়ণ মজুমদার। উচ্চাঙ্গসংগীত ও লোকসংগীত দুই ক্ষেত্রেই তার সমান দক্ষতা। তিনি এর আগেও এদেশে এসেছেন। এবারেও তার গানে মুগ্ধ হবে বাঙালি। এবারও দর্শকরা বিনামূল্যে শুধু অনলাইন রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানটি সরাসরি উপভোগ করতে পারছেন। রেজিস্ট্রেশন শুরু হয় ৬ নভেম্বর থেকে। অনুষ্ঠানটির টেলিভিশন সম্প্রচারের দায়িত্বে রয়েছে মাছরাঙা টেলিভিশন। এ ছাড়াও গ্রামীণফোনের অনলাইন ভিডিও স্ট্রিমিং সার্ভিস-বায়োস্কোপ লাইভে থাকছে অনুষ্ঠানটি লাইভ দেখার সুযোগ। এই  উৎসবের আয়োজক সান ফাউন্ডেশন।


আপনার মন্তব্য