শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ৩০ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৯ নভেম্বর, ২০১৯ ২২:৩৯

বিএনপি নৈরাজ্য করলে জবাব দেওয়া হবে : কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিএনপি নৈরাজ্য করলে জবাব দেওয়া হবে : কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং যোগাযোগ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, বিএনপি আন্দোলনের নামে নৈরাজ্য করলে সমুচিত জবাব দেওয়া হবে। তিনি বলেন, আমি পরিষ্কারভাবে বলতে চাই, আন্দোলনের নামে সহিংসতা করলে আমরা জবাব দেব। গতকাল রাজধানীর খামারবাড়ির কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে মৎস্যজীবী লীগের জাতীয় সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন। উল্লেখ্য, এই সম্মেলনে মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি হিসেবে সাইফুর রহমান এবং শেখ আজগর লস্কর সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, আজকে  বিএনপির নেতৃবৃন্দ খালেদা জিয়ার মুক্তির কথা বলছে। আমরা বারবার বলেছি তিনি আদালতের রায়ে দি ত, সে কারণে জেলে। আইনি লড়াই করে তাকে মুক্ত করুন। এতে সরকারের কোনো হস্তক্ষেপ থাকবে না। কিন্তু বিএনপি আদালত মানে না, আইনের শাসন মানে না, বিচার মানে না। তারা খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আদালতের ওপর চাপ দিতে সেখানে ভাঙচুর করেছে। তারা পুলিশের ওপর হামলাও করেছে। আদালত প্রাঙ্গণকে রণাঙ্গনে পরিণত করেছে। বিএনপিকে সতর্ক করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমরা শান্তিপূর্ণ আন্দোলন গণতান্ত্রিক পথে, রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করব। কিন্তু আপনারা যদি মনে করেন সহিংসতা সৃষ্টি করে, দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে, ঘোলাপানিতে মাছ শিকার করবেন তাহলে আপনারা বোকার স্বর্গে আছেন। আন্দোলনের নামে নৈরাজ্য হলে সমুচিত জবাব দেওয়া হবে। দলের নেতা-কর্মীদের সতর্ক করে তিনি বলেন, সবাই প্রস্তুত হয়ে যান, এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, এখনো চক্রান্ত চলছে। শেখ হাসিনার জনপ্রিয় সরকারকে হটানোর চক্রান্ত চলছে। এই চক্রান্ত রুখতে হবে। দেশের এত উন্নয়ন, এত অর্জন, বিএনপি এবং তার দোসররা উন্নয়ন দেখে না। তারা চোখে কালো চশমা পরেছে। জনগণ বিএনপিকে চায় না, তারা আন্দোলন করতে ব্যর্থ, নির্বাচনে ব্যর্থ। এখন তাদের অবলম্বন হচ্ছে প্রেস ব্রিফিং, তাদের অবলম্বন নালিশ। এখন দেশে ঠাঁই না পেয়ে বিদেশিদের কাছে নালিশ আর দ্বারে দ্বারে ধরনা দিচ্ছে। মৎস্যজীবী লীগের নেতৃত্ব প্রকৃত মৎস্যজীবীদের হাতে রাখার ওপর জোর দিয়ে তিনি বলেন, কোনো চাঁদাবাজের দোকান আমরা চাই না। মৎস্যজীবীদের সঙ্গে সম্পর্ক নেই, ঢাকায় বসে বসে একটা কার্ড বানিয়ে জায়গায় জায়গায় দিয়ে চাঁদাবাজি করবে এমন নেতা আমাদের দরকার নেই। আমরা মৎস্য উৎপাদনে বিশ্বে তৃতীয় অবস্থানে আছি। কাজেই এখানে একটা সুন্দর ভালো ক্লিন ইমেজের নেতৃত্ব দরকার। সম্মেলনে প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক নারায়ণ চন্দ্র দাসের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সভাপতিম লীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ। সাইফুর সভাপতি, আজগর সম্পাদক : মৎস্যজীবী লীগের সম্মেলনে সাইফুর রহমান সভাপতি এবং শেখ আজগর লস্কর সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। সম্মেলনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানের পর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনেই কাউন্সিল অধিবেশন বসে। সেখানে নতুন নেতৃত্বের নাম ঘোষণা করেন ওবায়দুল কাদের। নতুন কমিটিতে কার্যকরী সভাপতি হয়েছেন সাইদুল আলম মানিক। সহ-সভাপতি হয়েছেন আবুল বাশার, আবদুল গফুর, মোহাম্মদ আলম, বাবুল মিয়া, মীর আসাদুজ্জামান, শাহে আলম মিয়া, নাসরিন সুলতানা। এ ছাড়া যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন ইঞ্জিনিয়ার আবদুল আলিম, টিপু সুলতান, রফিকুল ইসলাম রফিক।


আপনার মন্তব্য