শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ৩ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২ এপ্রিল, ২০২০ ২৩:৩৬

সামাজিক দূরত্ব রক্ষায় বাহিনীগুলোকে কঠোর হতেই হবে

জুলকার নাইন

সামাজিক দূরত্ব রক্ষায় বাহিনীগুলোকে কঠোর হতেই হবে
মে. জে. আবদুর রশীদ (অব.)

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে রাস্তাঘাটে অযাচিত জনসমাগম বন্ধে সেনাবাহিনী বা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কঠোর হওয়ার বিকল্প নেই বলে মনে করেন নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল  আবদুর রশীদ (অব.)। এক্ষেত্রে বাহিনীগুলোকে এক ধরনের ভারসাম্যপূর্ণ কৌশলে কঠোর হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন সাবেক এই সামরিক কর্মকর্তা। গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনের সঙ্গে আলাপচারিতায় তিনি এসব কথা বলেন।

মেজর জেনারেল আবদুর রশীদ (অব.) বলেন, অনেকে ভাইরাস প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্বের গুরুত্ব অনুধাবন করতে পারছেন না। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে বিভিন্ন ধরনের বিভ্রান্তিকর অপপ্রচার। আবার ধর্মীয় ভাবনাও ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছে অনেকের মধ্যে। বলার চেষ্টা করা হয়েছে যা আছে ভাগ্যে তাই হবে, করোনাকে ভয় করে লাভ নেই। এসব অপপ্রচারে অনেকেই বিভ্রান্ত। সমাজ থেকেও এ ধরনের বিভ্রান্ত মানুষগুলোকে বাধা দেওয়া হচ্ছে না। তাদের বোঝানোর জন্যও কেউ এগিয়ে আসছে না। যার জন্য সেনাবাহিনী বা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীগুলোকে লকডাউন পালনে কঠোর হতে হচ্ছে। তিনি বলেন, বাংলাদেশে এক ধরনের প্রবণতা আছে, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীগুলো কোনো ক্ষেত্রে কঠোর না হলে বলা হয় কঠোর হচ্ছে না কেন, আবার কঠোর হলে বলা হয় এত কঠোর হলো কেন। সমালোচনামুখর হয়ে বলা হয়, এ আমরা কেমন দেশে বাস করছি। তাই এক্ষেত্রে একটি ভারসাম্যপূর্ণ কৌশল নেওয়া দরকার। প্রয়োজনে সমাজের মানুষকে সঙ্গে নিয়েই আইনের শাস্তিগুলোর প্রয়োগ করতে হবে। তিনি বলেন, করোনাভাইরাসের এ বিস্তারকে বাংলাদেশে একেক গোষ্ঠী একেক ধরনের আঙ্গিক থেকে দেখার চেষ্টা করছে। কোনো কোনো রাজনৈতিক গোষ্ঠী করোনা কেন ছড়ায় না এমন মনোভাব নিয়ে বসে আছেন। তারা রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিলেই সেখান থেকে রাজনৈতিক ফায়দা লোটার অপচেষ্টায় আছেন। সেই আকাক্সক্ষা থেকে তারা চাইবেনই যে সমাবেশ হোক বা ভাইরাস ছড়ানোর একটা সুযোগ তৈরি হোক। সমাজের সব পক্ষ একসঙ্গে এগিয়ে না আসাতেই লকডাউন সঠিকভাবে পালন হচ্ছে না। এই নিরাপত্তা বিশ্লেষকের মতে, লকডাউন পালনে বিভিন্ন স্থানে জরিমানা করা হচ্ছে। কিন্তু এই জরিমানা দেওয়াও অনেকের জন্য কষ্টকর বিষয় হয়ে যাচ্ছে। কারণ এমনিতে লকডাউনের কারণে মানুষ অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত অবস্থায় আছে। বাহিনীগুলোও চায় না মানুষকে বিপাকে ফেলতে। আবার বিপদের সময়ে বল প্রয়োগ করতেও তারা চায় না। কিন্তু করোনাভাইরাস বিশ্বের জন্য এমন এক বিপদ যেখানে কোনো প্রতিষেধক নেই, নেই কোনো চিকিৎসাও। শুধু সামাজিক দূরত্ব রক্ষার মাধ্যমেই করোনাভাইরাসকে দমিয়ে রাখা সম্ভব। তাই দেশ ও জাতিকে বাঁচাতে সামাজিক দূরত্ব রক্ষায় বাহিনীগুলোকে কঠোর হতেই হবে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর