শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১০ ডিসেম্বর, ২০২০ ২৩:৩৫

ভাস্কর্য নিয়ে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র করবেন না

ভোলা প্রতিনিধি

ভাস্কর্য নিয়ে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র করবেন না

ভাস্কর্য নিয়ে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র না করার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর সুযোগ্য নেতৃত্বে বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারীর মধ্যেও বাংলাদেশের অর্থনৈতিক    প্রবৃদ্ধি ঘটেছে। স্বপ্নের পদ্মা সেতু আজ বাস্তব সত্য হয়েছে। সে সময়ে জাতির পিতার ভাস্কর্য নিয়ে এক গোষ্ঠী ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। সব ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমরা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তুলবই।

গতকাল দুপুরে জেলা প্রশাসকের হলরুমে ভোলায় মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স উদ্বোধন এবং মডেল মসজিদের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন উপলক্ষে আয়োজিত সভায় তিনি এ কথা বলেন। সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে স্বাভাবিকভাবে দেশ চলছিল। হঠাৎ করে ভাস্কর্য নিয়ে একটা রাজনীতি শুরু হয়েছে। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা করে যে মূলনীতির ওপর বাংলাদেশের জন্ম হয়েছিল; জিয়াউর রহমান তা নষ্ট করেছে। এই রাষ্ট্র ধর্ম নিরপেক্ষ রাষ্ট্র। জিয়াউর রহমান বঙ্গবন্ধু হত্যার পর ক্ষমতায় এসে এই রাষ্ট্রীয় মূলনীতিকে তছনছ করেছে। বাঙালি জাতীয়তাবাদ রেখে বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদ করেছেন। ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিষিদ্ধ ছিল, তিনি ধর্মভিত্তিক রাজনীতি দিয়েছেন। বর্ষীয়ান এই রাজনীতিবিদ বলেন, আজ যারা ভাস্কর্যবিরোধী বক্তব্য দিচ্ছেন, তারা সবাই পড়ালেখা জানা লোক। তাদেরকে বলছি, পৃথিবীর বহু ইসলামিক রাষ্ট্রে ভাস্কর্য রয়েছে। তা দেখে আসুন, প্রয়োজনে আমরা আপনাদের খরচ বহন করব। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, মুসলিম অধ্যুষিত দেশ ইরান, ইরাক, তুরস্ক, মিসর সফরে যান। দেখবেন সেখানে বড় বড় মুসলিম নেতাদের ও বিখ্যাত কৃতিমান ব্যক্তিদের ভাস্কর্য রয়েছে। সৌদির জেদ্দায় দ্য হাংরি হর্স, মিসরে ইসলামী মুক্তিযোদ্ধা সালাউদ্দিন মেমোরিয়াল, মালয়েশিয়ায় দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধে শহীদ হয়েছেন তাদের নামে ন্যাশনাল মনুমেন্ট, ইন্দোনেশিয়ার বালিতে প্রচুর ভাস্কর্য রয়েছে। পাকিস্তানে মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ, তুরস্কে মোস্তফা কামাল আতাতুর্কের ভাস্কর্য, ইরান রাজধানী তেহরানে ঘায়েম মাঘাম ফারাহানির ভাস্কর্য, লেবাননের রাজধানী বৈরুতে সে দেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী রফিক হারিরির ভাস্কর্য, আলজেরিয়ার সেতিফ শহরে আইন-আল-ফাওয়ারার ভাস্কর্য, ইরানে কিংবদন্তি মুসলিম বিজ্ঞানী আবু জাফর মুহাম্মদ ইবনে মুহাম্মদ আদ-দীন-তুসির ভাস্কর্য রয়েছে। এগুলো আগে দেখে আসুন। তারপর ভাস্কর্য নিয়ে কথা বলুন। তোফায়েল আহমেদ আরও বলেন, ভোলায় প্রচুর গ্যাস সম্পদ মজুদ রয়েছে। এই গ্যাস ব্যবহার করে ইতিমধ্যেই ভোলায় বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। ভোলা থেকে এখন জাতীয় গ্রিডে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হচ্ছে। আরও বিদ্যুৎ প্লান্ট স্থাপনের কাজ চলছে। কিছু দিনের মধ্যেই ভোলায় ১ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে। এ ছাড়া ভোলার বাগমারায় গড়ে তোলা হবে ইকোনমিক জোন। গড়ে তোলা হবে বড় বড় শিল্প কলকারখানা। ভোলা-বরিশাল-লক্ষ্মীপুর ব্রিজ হলে ভোলা হবে মোংলা, পায়রা আর চট্টগ্রাম বন্দরের সংযোগ স্থল। তখন ভোলা হবে দেশের মধ্যে অর্র্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধশালী অন্যতম একটি শ্রেষ্ঠ জেলা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিকের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল মমিন টুলু, পুলিশ সুপার সরকার মো. কায়সার, উপজেলা চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার দোস্ত মাহমুদ প্রমুখ।


আপনার মন্তব্য