শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২৩:২৮

হাই কোর্টে এক অ্যামিকাস কিউরি

প্রধানমন্ত্রীর যোগসূত্র দেখাতে পারেনি আলজাজিরা

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঘণ্টাব্যাপী একটি প্রতিবেদন সম্প্রচার হলো। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নাম বলা হচ্ছে। অভিযোগ করা হচ্ছে। কিন্তু তার সঙ্গে কোনো যোগসূত্র দেখাতে পারলেন না। সম্প্রতি আলজাজিরার প্রচারিত তথ্যচিত্র ‘অল দ্য প্রাইম মিনিস্টারস মেন’ প্রসঙ্গে আদালতে এ অভিমত দেন অ্যামিকাস কিউরি (আদালত বন্ধু) হিসেবে দায়িত্ব পাওয়া জ্যেষ্ঠ আইনজীবী কামাল উল আলম। দেশে আলজাজিরার সম্প্রচার বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে করা রিটের শুনানিতে গতকাল বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার সমন্বয়ে গঠিত হাই কোর্ট বেঞ্চে এমন অভিমত দেন তিনি। অ্যামিকাস কিউরি হিসেবে দায়িত্ব পাওয়া জ্যেষ্ঠ আইনজীবী কামাল উল আলম বলেন, রিট আবেদনকারীর সংক্ষুব্ধ হওয়ার যৌক্তিকতা নেই। রিটটি গ্রহণযোগ্য নয়। তবে তিনি বলেছেন, গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত রাষ্ট্রের প্রধান ব্যক্তিকে বিতর্কিত করা হলে রাষ্ট্রকেই বিতর্কিত করা হয়। আরেক অ্যামিকাস কিউরি জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী আদালতে বলেন, বাংলাদেশে আলজাজিরার সম্প্রচার বন্ধ করা উচিত হবে না। এ বিষয়ে রিটটি গ্রহণযোগ্য নয় বলেও অভিমত দেন তিনি।  অ্যামিকাস কিউরি হিসেবে দায়িত্ব পাওয়া জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ফিদা এম কামাল ও প্রবীর নিয়োগীও আদালতে বলেছেন রিট আবেদনটি গ্রহণযোগ্য নয়। এছাড়া রিট গ্রহণযোগ্য নয় বলে মত দেন অ্যামিকাস কিউরি ড. শাহদীন মালিকও। অন্যদিকে অ্যামিকাস কিউরি আবদুুল মতিন খসরু বলেন, আইনের আশ্রয় নেওয়ার অধিকার যে কারও আছে তাই রিটটি গ্রহণ করা যায়। বাংলাদেশে কাতারভিত্তিক আন্তর্জাতিক টেলিভিশন চ্যানেল আলজাজিরা টেলিভিশন নেটওয়ার্কের সম্প্রচার বন্ধে ও অনলাইন প্ল্যাটফরম থেকে ‘অল দ্য প্রাইম মিনিস্টারস মেন’ সরাতে হাই কোর্ট কোনো আদেশ দিতে পারে কি না, সে বিষয়ে অ্যামিকাস কিউরিদের বক্তব্য শুনছে হাই কোর্ট। এর আগে ৯ ফেব্রুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের ছয় আইনজীবীকে অ্যামিকাস কিউরি হিসেবে নিয়োগ দেয় হাই কোর্ট। ৮ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশে কাতারভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল আলজাজিরা টেলিভিশন নেটওয়ার্কের সম্প্রচার বন্ধে হাই কোর্টে রিট দায়ের করা হয়। রিটে সংবাদমাধ্যমটির প্রচারিত ‘অল দ্য প্রাইম মিনিস্টারস মেন’ প্রতিবেদনটি ইউটিউব, টুইটার, ফেসবুকসহ সব অনলাইন প্ল্যাটফরম থেকে অপসারণ করার নির্দেশনা চাওয়া হয়। সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার এনামুল কবীর ইমন এ রিট দায়ের করেন। আলজাজিরায় ১ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ নিয়ে একটি প্রতিবেদন সম্প্রচারিত হয়, যা ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেছে। প্রতিবেদনে উচ্চ পর্যায়ের ব্যক্তিদের দুর্নীতিতে জড়িত থাকার অভিযোগ আনা হয়। সরকারিভাবে এই প্রতিবেদনের তীব্র প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীও ওই প্রতিবেদনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে। সরকারের বিভিন্ন মহল থেকে আলজাজিরা টিভি নেটওয়ার্কের প্রচারিত ওই প্রতিবেদনটিকে অসত্য ও বানোয়াট অভিহিত করা হয়েছে। আন্তবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর (আইএসপিআর) থেকে পাঠানো এক প্রতিবাদলিপিতে বলা হয়, আলজাজিরায় প্রচারিত ও প্রকাশিত প্রতিবেদনটির তীব্র ভাষায় প্রতিবাদ জানাচ্ছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সদর দফতর।

 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর