Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১৬ জুন, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ জুন, ২০১৯ ২৩:১৩

চিকিৎসকদের কর্মবিরতিতে অচল কলকাতা

সব দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস মুখ্যমন্ত্রী মমতার

দীপক দেবনাথ, কলকাতা

চিকিৎসকদের কর্মবিরতিতে অচল কলকাতা

হাসপাতালে অচলাবস্থা কাটাতে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি কঠোর হলেও এবার নরম সুর তারই দলের সাংসদ ও অভিনেতা দীপক অধিকারীর (দেব) মুখে।  ট্যুইট করে তিনি লেখেন ‘যারা আমাদের প্রাণ বাঁচান তারা কেন বারবার মার খাবেন? তাদের সুরক্ষার দায়িত্ব আমাদের। আবার তারই সঙ্গে লাখ লাখ অসুস্থ মানুষ ডাক্তারবাবুদের দিকে তাকিয়ে, আপনারা পাশে না  দাঁড়ালে তারা অসহায়! সবার শুভবুদ্ধি ফিরে আসুক, সমস্যার সমাধান চাই।’

এদিকে অচলাবস্থা কাটাতে আন্দোলনরত জুনিয়র ডাক্তারদের সব দাবি মেনে নিতে ইচ্ছুক বলে জানিয়েছেন রাজ্যটির মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যনার্জি। তার আবেদন ডাক্তাররা যেন সাধারণ মানুষের কথা ভেবে অবিলম্বে কাজে যোগ দেন। এমন এক পরিস্থিতিতে গতকাল বিকালে নবান্নে সংবাদ সম্মেলন করে মমতা জানান ‘একটা ঘটনা ঘটেছে। যা যা বলা হয়েছে সরকার তার প্রত্যেকটা পদক্ষেপ নিয়েছে। ডাক্তারদের সুরক্ষার জন্য একজন সহকারী পুলিশ কমিশনারের নেতৃত্বে টিম করা হয়েছে। আমরা যতটুকু করতে পারি তার সবরকম আশ্বাস দিয়েছি। যারা হামলা চালিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে পুলিশ কঠোর ধারা দিয়েছে। ডাক্তারদের যদি আরও কিছু দাবি থাকে সেটাও আমরা মেনে নিতে রাজি আছি। কিন্তু আমার আবেদন থাকবে আপনারা কাজে যোগদান করুন। সাধারণ মানুষ ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। শিশু মৃত্যুর ঘটনা হচ্ছে।’

গত ১০ জুন রাতে কলকাতার নীল রতন সরকার (এনআরএস) মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালে জুনিয়র চিকিৎসকদের ওপর হামলা চালানোর অভিযোগ ওঠে রোগীর পরিবারের বিরুদ্ধে। হামলায় পরিবহন মুখার্জি এবং যশ তখওয়ানি নামে দুই জুনিয়র চিকিৎসক মারাত্মকভাবে আহত হন। ওই ঘটনার পর ১১ জুন থেকে কর্মবিরতি শুরু করেন জুনিয়র চিকিৎসকরা। আর ১৩ তারিখ এসএসকেএম হাসপাতালে এস প্রবল বিক্ষোভের মুখে পড়েন মমতা ব্যানার্জি। মমতার দাবি বহিরাগতরাই গ গোল পাকাচ্ছে। সময় বেঁধে কর্মবিরতি তুলে নিতে রীতিমতো হুমকি দেন তিনি। কার্যত এরপর থেকেই গোটা রাজ্যের পাশ দেশজুড়ে এর আঁচ পড়ে। সবমিলিয়ে টানা পাঁচ দিন ধরে রাজ্যের বিভিন্ন মেডিকেল কলেজগুলোতে অচলাবস্থা। অনড় সরকার, অনড় কর্মবিরতিতে যাওয়া জুনিয়র চিকিৎসকরা। দুইয়ের মধ্যে পড়ে করুণ অবস্থা রোগী ও তাদের পরিবারের। পরিষেবা না পেয়ে মৃত্যুর ঘটনাও ঘটেছে।

এদিকে একদিনের প্রতীকী কর্মবিরতির পর দিল্লির এইমস এর ডাক্তাররা গতকাল কাজে যোগ দিচ্ছেন। তবে এনআরএস কাে র প্রতিবাদ হিসেবে তারা সবাই কালো কাপড় বেঁধে কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন। অন্যদিকে রাজ্যের জুনিয়র ডাক্তারদের আন্দোলনে এবার সমর্থন জানাবেন জম্মু-কাশ্মীরের চিকিৎসকরা। গতকাল একদিনের জন্য প্রতীকী কর্মবিরতি পালন করছে তারা। আগামী ১৭ জুন দেশজুড়ে হাসপাতালে কর্মবিরতির ডাক দিয়েছে ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন। এরপরই উদ্বেগ প্রকাশ করে শুক্রবার বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি পাঠান কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন। সহকর্মীদের হামলার প্রতিবাদে শুক্রবারই প্রায় কয়েক শতাধিক চিকিৎসক ইস্তফা দেন। মুখ্যমন্ত্রী মমতার আহ্বানের পর ধারণা করা হচ্ছে দুই একদিনের মধ্যে সমস্যা মিটে যাবে।

 


আপনার মন্তব্য