শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:২৩

যুক্তরাষ্ট্র-ভারত গ্লোবাল স্ট্র্যাটেজিক পার্টনার

যৌথ প্রেস ব্রিফিংয়ে ট্রাম্প ও মোদি

গৌতম লাহিড়ী, নয়াদিল্লি

যুক্তরাষ্ট্র-ভারত গ্লোবাল স্ট্র্যাটেজিক পার্টনার

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি প্রতিরক্ষা থেকে শুরু করে নারীর ক্ষমতায়ন সব ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্র ও ভারতের কৌশলগত অংশীদারিত্বের প্রতি তাদের অঙ্গীকারের কথা গতকাল পুনর্ব্যক্ত করেছেন। দিল্লিতে হায়দরাবাদ হাউসে দুই নেতার মধ্যে বৈঠক শেষে তাঁরা যৌথ প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, উভয় দেশ তাদের সম্পর্কের অব্যাহত উন্নয়ন ঘটিয়ে গ্লোবাল স্ট্র্যাটেজিক পার্টনার পর্যায়ে উন্নীত হয়েছে। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প জানান, তিনি ও নরেন্দ্র মোদি প্রতিরক্ষা সহযোগিতা প্রসারণে সম্মত হয়েছেন। এর ফলে ভারত যুক্তরাষ্ট্র থেকে ৩০০ কোটি ডলারের বেশি মূল্যের প্রতিরক্ষা উপকরণ কিনবে। এর মধ্যে থাকবে অ্যাপাচে ও এমএইচ৬০ হেলিকপ্টার। ট্রাম্প বলেন, এসব কপ্টার হচ্ছে বিশ্বসেরা। যৌথ সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প বলেন, পাকিস্তানের মাটি থেকে সন্ত্রাসবাদ নিশ্চিহ্ন করতে তার দেশ ইসলামাবাদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, ভারত ও যুক্তরাষ্ট্র তাদের নাগরিকদের উগ্র ইসলামী সন্ত্রাসবাদ থেকে রক্ষা করতে বদ্ধপরিকর। ভারতের বিতর্কিত ‘সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন’ বিষয়ে অভিমত জানতে চাইলে ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেন, বিষয়টি আমি ভারতের কাছে ছেড়ে দিয়েছি। ভারত তার জনগণের জন্য নিশ্চয়ই উচিত কাজটিই করবে। ধর্মীয় স্বাধীনতা সম্পর্কিত এক প্রশ্নের জবাবে ট্রাম্প বলেন, মিস্টার মোদি আমায় জানিয়েছেন তিনি মানুষের ধর্মীয় স্বাধীনতা ভোগ করার পক্ষপাতী। দুই দেশের মধ্যে এখনো কোনো বাণিজ্যিক চুক্তি না হলেও এ ধরনের চুক্তি নিয়ে শিগগিরই আলোচনা শুরু করবে বলে দুই নেতাই ইঙ্গিত দিয়েছেন। ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীকে ‘প্রিয় বন্ধু’ সম্বোধন করা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ভারতে ফাইভ-জি টেলিকম নেটওয়ার্কের সুরক্ষার গুরুত্ব নিয়েও মোদির সঙ্গে আলোচনা করেছেন বলে জানিয়েছেন। ভারতের টেলিকম খাতে দীর্ঘদিন ধরেই হুয়াওয়ের আনাগোনা রয়েছে। ফাইভ-জি নেটওয়ার্কের নিলামে চীনা এ কোম্পানির অংশগ্রহণ কিংবা তাদের ওপর বিধিনিষেধ আরোপ করা হবে কিনা, নয়াদিল্লির কাছ থেকে এখনো এ বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত আসেনি।


আপনার মন্তব্য