শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০৩

ব্রিটিশ এমপি নুসরাত গনির ডাক

চীনা কূটনীতিকদের টুইটার অ্যাকাউন্ট আটকে দাও

প্রতিদিন ডেস্ক

চীনা কূটনীতিকদের টুইটার অ্যাকাউন্ট আটকে দাও
নুসরাত গনি

চীনা কূটনীতিকরা চীনা কমিউনিস্ট পার্টির (সিসিপি) পক্ষে ‘নেকড়েযোদ্ধা’র ভূমিকা পালন করছে। তারা বিভিন্ন দেশে তাদের দেশের দূতাবাসে বসে মানুষের অধিকার আন্দোলনের বিরুদ্ধে টুইটার ব্যবহার করছে। এই অভিযোগ জোরদার হয়ে উঠেছে যুক্তরাজ্যে।    কনজারভেটিভ পার্টির সংসদ সদস্য নুসরাত গনি এই ‘অনাচার’ রোখার উদ্দেশ্যে চীনা কূটনীতিকদের অ্যাকাউন্ট আটকে দেওয়ার জন্য টুইটারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রে সদ্য বিদায়ী প্রেসিডেন্ট  ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ‘মিথ্যাচার দিয়ে সহিংসতা উসকে’ দেওয়ার অভিযোগে তার টুইটার অ্যাকাউন্ট জব্দ করে ‘প্রাইভেট কোম্পানি’ টুইটার তার সীমা ছাড়িয়ে গেল কি না, এই প্রশ্নে আইনজ্ঞ আর রাজনীতিকদের মধ্যে চলমান বিতর্কের মধ্যেই ব্রিটিশ এমপি আহ্বান জানালেন। যুক্তরাজ্যে আওয়াজ উঠেছে- ‘টুইটার ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যে ব্যবস্থা নিয়েছে, চীনা দূতাবাসের কূটনীতিকদের বিরুদ্ধে অমন ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।’ অভিযোগকারীরা বলছেন, সিসিপির বিরুদ্ধবাদীদের বিরুদ্ধে ভুয়া তথ্য ছড়ানো এবং উইঘুর, তিব্বতি, হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থিদের সংগ্রামের বিরুদ্ধে ঘৃণাউদ্দীপক কথাবার্তা প্রচারের চীনা দূতাবাসগুলোর নেকড়েযোদ্ধারা সমানে টুইটার ব্যবহার করছে। জিনজিয়াং প্রদেশে উইঘুর মুসলিম নারীদের জোর করে বন্ধ্যা করা হচ্ছে। এ জন্য চীনের কঠোর সমালোচনা চলছে বিভিন্ন দেশে। এর জবাবে ‘চায়না ডেইলি’ পত্রিকায় বলা হয়, ‘বন্ধ্যা হওয়ার মাধ্যমে ওই নারীরা মুক্তির সন্ধান পাচ্ছেন। তারা আর বাচ্চা পয়দা করার যন্ত্র হয়ে থাকতে চান না।’ চীনা কূটনীতিকরা তাদের টুইটারে ওই নিবন্ধের অনুলিপি প্রচার করে চলেছেন। যুক্তরাজ্যের ইহুদি নেতারাও চীনের কূটনীতিকদের অন্যায় কীর্তিকলাপের বিরুদ্ধে সোচ্চার। এদের মধ্যে রয়েছেন এডুইন শুকার, মিয়া হাসেনসন-গ্রস, রেনি কাসিন। তারাও এমপি নুসরাত গনির প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করেছেন।


আপনার মন্তব্য