শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১০ মে, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৯ মে, ২০২১ ২৩:৩২

ল্যানসেটের ভাষ্য

মোদির অপরাধ ক্ষমার অযোগ্য

Google News

ভারতের কভিড সংকটের জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে কাঠগড়ায় তুলেছে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন মেডিকেল জার্নাল ‘দ্য ল্যানসেট’। গত শনিবার এই জার্নালের সম্পাদকীয় প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নরেন্দ্র মোদির সরকারই দেশে কভিড বিপর্যয়ের জন্য দায়ী।  ‘দ্য ল্যানসেট’ আরও বলেছে, ‘এক এক সময় মনে হয়েছে, মোদি সরকার মহামারী মোকাবিলার চেয়ে টুইটারের সমালোচনা মুছতে বেশি ব্যস্ত।’ এতে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘বহুবার সতর্ক করা সত্ত্বেও সরকার ধর্মীয় উৎসব (কুম্ভ মেলা) পালন ও রাজনৈতিক সভার (পাঁচ রাজ্যের ভোটে প্রচার) মতো অতি সংক্রামক অনুষ্ঠান হতে দিয়েছে, যা সুপার ¯েপ্রডারের কাজ করেছে।’ প্রতিবেদনে এও বলা হয়েছে, ‘মোদি সমালোচকদের কণ্ঠরোধের চেষ্টা করেছেন। খোলা মনে আলোচনাও করতে চাননি। পরামর্শ নেননি। এই অপরাধ ক্ষমার অযোগ্য।’ ‘দ্য ল্যানসেট’ সম্পাদকীয়তে লিখেছে, ‘১ আগস্টের মধ্যে দেশে কভিডে মৃত্যুর সংখ্যা ১০ লাখ ছুঁতে পারে।

এই আশঙ্কা সত্য হলে নিজের তৈরি সংকটের জন্য মোদি সরকারই দায়ী থাকবে।

হতাশা আইএমএরও : করোনা নিয়ে মোদি সরকারের ভূমিকায় হতাশা প্রকাশ করেছে ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনও (আইএমএ)। সংগঠনটি ভারতজুড়ে লকডাউনের তাগিদ দিয়ে বলেছে, ‘কভিডের দ্বিতীয় ঢেউয়ে যে সংকটময় অবস্থা তৈরি হয়েছে তাতে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত উদাসীন মনোভাব ও অনুপযুক্ত পদক্ষেপ দেখে আমরা স্তম্ভিত।’ জিনিউজ।

আইএমের অভিযোগ, বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ কার্যত ডাস্টবিনে ছুড়ে ফেলেছে সরকার। মাঠপর্যায়ের বাস্তবতা না বুঝেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে।

সংগঠনটির বিবৃতিতে আলাদা আলাদা রাজ্যে স্বতন্ত্রভাবে ১০-১৫ দিনের লকডাউনের বদলে দেশজুড়ে পূর্ণ লকডাউনের তাগিদ দেওয়া হয়েছে। আইএমএ বলছে, তাদের প্রস্তাব সত্ত্বেও লকডাউন করেনি কেন্দ্রীয় সরকার। অথচ এখন প্রতিদিন ৪ লাখের বেশি করোনা শনাক্ত হচ্ছে। এর মধ্যে অন্তত ৪০ শতাংশ রোগীর অবস্থা খুবই খারাপ। সংস্থাটি বলছে, প্রকৃতপক্ষে ভারতে যথেষ্ট অক্সিজেন রয়েছে, কিন্তু বিতরণ ব্যবস্থায় ভুল হচ্ছে।