শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ৭ আগস্ট, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৬ আগস্ট, ২০২১ ২৩:৫০

টিকা না নেওয়ায় তিন কর্মী বরখাস্ত করল সিএনএন

Google News

মহামারীর মধ্যে কভিড টিকা না নিয়ে অফিসে উপস্থিত হওয়ায় কোম্পানির নীতি ভঙ্গের কারণে তিন কর্মীকে বরখাস্ত করেছে মার্কিন নিউজ নেটওয়ার্ক সিএনএন। যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যম এ কথা জানিয়েছে। বৃহস্পতিবার অফিস স্টাফদের কাছে পাঠানো এক নথিতে এই কর্মী বরখাস্তের বিষয়টি উল্লেখ করে সিএনএনের প্রধান জেফ জাকার বলেন, প্রতিষ্ঠানটিতে কাজ করা যে কারও জন্য টিকা নেওয়া বাধ্যতামূলক। সে কারণে অফিসে ঢুকতে হলে এবং বাইরে গিয়ে অন্যদের সঙ্গে কাজ করতে হলে সবাইকেই টিকা নিতে হবে। জেফ বলেন, ‘পরিষ্কারভাবে বলে দিতে চাই, এ বিষয়ে (টিকা না নেওয়া) আমদের জিরো টলারেন্স নীতি রয়েছে।’ নথিতে আরও বলা হয়েছে, ‘বার্তা বিভাগ, খেলাধুলা বিভাগ এবং স্টুডিওতে কাজ করা সবাইকে টিকা নিতে হবে। আমরা মাসের পর মাস পরিষ্কারভাবে এ কথাটিই বলে আসছি। তাই টিকা নেওয়ার ব্যাপারে কোনো দ্বিধা-দ্ধন্ধ থাকা উচিত নয়।’ সিএনএনের মিডিয়া অপারেটর এই নথিটি প্রথম টুইট করার পর সেটি হাতে পায় এপি, রয়টার্সসহ কয়েকটি গণমাধ্যম।

তবে এই নথিতে সিএনএন কর্মীদেরকে বরখাস্তের ব্যাপারে বিস্তারিত আর কিছু জানায়নি। তারা কোন বিভাগে কাজ করতেন তাও জানানো হয়নি।

কিন্তু টিকার বিষয়টিতে আরও পদক্ষেপের আভাস দিয়ে সিএনএন জানিয়েছে, এবার থেকে অফিসে প্রবেশের জন্য কেবল টিকা নেওয়া নয় বরং এর প্রমাণপত্র দেখানোর বিষয়টিও বাধ্যতামূলক করা হতে পারে। বিবিসি জানায়, গত মে মাসে যুক্তরাষ্ট্র সরকার অফিসে উপস্থিত হওয়ার ক্ষেত্রে কর্মীদের কভিড টিকা নেওয়ার নীতি চালু করে। দেশটির প্রধান প্রধান এয়ারলাইনস তাদের কর্মীদের টিকা নেওয়ার প্রমাণপত্র দেখানোর নিয়ম চালু করেছে।

ওদিকে বিনিয়োগ ব্যাংক গোলডম্যান শ্যাস তাদের কর্মীদের টিকা নেওয়া বাধ্যতামূলক না করলেও টিকা-সংক্রান্ত তথ্য দেখানোর নিয়ম চালু রেখেছে। আর প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন কেন্দ্রীয় সরকারের ২০ লাখ কর্মীর জন্য টিকার প্রমাণপত্র দেখানোর নির্দেশ দিয়েছে। প্রমাণ দেখাতে না পারলে তাদের বাধ্যতামূলকভাবে কভিড পরীক্ষা করতে হবে এবং মাস্ক পরতে হবে।