শিরোনাম
প্রকাশ : ১৪ মে, ২০২০ ২০:০৫

পশ্চিমবঙ্গকে ইসলামিক রাষ্ট্র বানানোর চেষ্টা করছেন মমতা : দেবশ্রী

দীপক দেবনাথ, কলকাতা

পশ্চিমবঙ্গকে ইসলামিক রাষ্ট্র বানানোর চেষ্টা করছেন মমতা : দেবশ্রী
মমতা ব্যানার্জি ও দেবশ্রী চৌধুরী

বাংলাদেশের সাথে মিশে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি রাজ্যটিকে ইসলামিক রাষ্ট্রে পরিণত করতে চাইছেন বলে অভিযোগ করেছেন কেন্দ্রীয় নারী ও শিশু কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী। পশ্চিমবঙ্গের রায়গঞ্জের বিজেপি সাংসদ দেবশ্রীর অভিযোগ করে আরও বলেন, তোষণের রাজনীতিই রাজ্যকে এই অবস্থার মধ্যে ঠেলে দিচ্ছে। 

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাকে এখনই যদি বাঁচানো না যায়, তবে মমতা ব্যনার্জির সরকার এই রাজ্যকে বাংলাদেশের সাথে মিশিয়ে ফেলবে। রোহিঙ্গা, বাংলাদেশি ও জিহাদিদের অতিরিক্ত গুরত্ব দেওয়া হচ্ছে। তারাই এখন এ রাজ্যে নিরাপদ আশ্রয় বানিয়ে ফেলেছে। এটা একটা ষড়যন্ত্র। কাশ্মীর থেকে মিয়ানমার সমস্ত রাষ্ট্রবিরোধী শক্তিগুলোকে এই রাজ্যে আশ্রয় দেওয়া হচ্ছে। উনি (মমতা) এ রাজ্যকে পশ্চিম বাংলাদেশ বানাতে চান।’ 

গত কয়েকদিন ধরে রাজ্যটির হুগলী জেলার তেলিনিপাড়ায় গোষ্ঠী সহিংসতা নিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, ‘বিজেপি শাসিত ভারতের সমস্ত রাজ্যে যেখানে শান্তি বিরাজ করছে সেখানে পশ্চিমবঙ্গেই কেন সহিংসতার ঘটনা ঘটে চলেছে?’ 

‘বিজেপিই রাজ্যের সাম্প্রদায়িক সহিংসতা ঘটাচ্ছে’ মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘২০১১ সালের বিধানসভার নির্বাচনে বিজেপি শতকরা ১১ ভাগ ভোট পেয়েছিল এবং ২০১৬ সালের বিধানসভার নির্বাচনে ১২ শতাংশ ভোট পেয়েছিল। সেখানে এত কম শতাংশ ভোট পেয়ে বিজেপি কিভাবে রাজ্যে অশান্তি তৈরি করতে পারে বা সহিংসতায় মদদ দিতে পারে?’ 

কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর এই মন্তব্যের প্রেক্ষিতে কঠোরভাবে জবাব দিয়েছেন রাজ্যের শ্রম প্রতিমন্ত্রী গোলাম রব্বানি। ট্যুইট করে তিনি বলেন, ‘গতকাল পর্যন্ত দেবশ্রী জির সহকর্মী কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে বাংলাদেশের সাথে সীমান্ত খুলে দেওয়ার কথা বলেছিলেন। দিল্লিতে বসে কারা তথাকথিত ‘জিহাদি’দের সহায়তা করার কথা বলছে?’

এক সময় কটাক্ষের সুরে রাব্বানি জানান, ‘আমি আর কি বলবো? তিনি (দেবশ্রী চৌধুরী) যেন সময়মতো ওষুধ নেন এবং নিরাপদে থাকেন। লকডাউন আপনার ওপরেও প্রভাব ফেলেছে।’

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর