শিরোনাম
প্রকাশ : ১৪ মার্চ, ২০২১ ২২:২০
প্রিন্ট করুন printer

পশ্চিমবঙ্গ নির্বাচন: মমতার নিরাপত্তায় গাফিলতির অভিযোগ

দীপক দেবনাথ, কলকাতা

পশ্চিমবঙ্গ নির্বাচন: মমতার নিরাপত্তায় গাফিলতির অভিযোগ

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব মেদিনীপুর জেলার ‘নন্দীগ্রাম’ গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির আহত হওয়ার ঘটনায় রাজ্যের নিরাপত্তা কর্মকর্তা বিবেক সহায়কে তার পদ থেকে বহিষ্কার করল নির্বাচন কমিশন। মুখ্যমন্ত্রীর নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা এই আইপিএস কর্মকর্তার বিরুদ্ধে কর্তব্যে গাফিলতির অভিযোগে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে অভিযোগ গঠনেরও নির্দেশ দিয়েছে কমিশন। 

উল্লেখ্য, আসন্ন বিধানসভার নির্বাচনে ‘নন্দীগ্রাম’ কেন্দ্র থেকেই তৃণমূলের প্রার্থী হয়েছেন মমতা ব্যানার্জি। গত ১০ মার্চ ওই কেন্দ্রে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়ে ফেরার পথে বিরুলিয়া বাজারে দুর্ঘটনায় পড়েন মুখ্যমন্ত্রী। পায়ে আঘাত পান তিনি। ওই ঘটনায় ষড়যন্ত্রের অভিযোগ এনে মমতা বলেন ‘৪-৫ জন মানুষ তাকে ধাক্কা মারেন এবং গাড়ির দরজাটি তার পায়ে এসে লাগে।’ 

মুখ্যমন্ত্রীর হওয়ার সুবাদে জেড প্লাস ক্যাটাগরির নিরাপত্তা পান মমতা। কিন্তু নির্বাচন শুরু হওয়ার আগেই তার নিরাপত্তায় বড়সড় ফাটল দেখা দেয়। এই ঘটনায় নির্বাচনের কমিশনের দিকেই অভিযোগের আঙুল তোলে ক্ষমতাসীন দল। মমতার ওপর আঘাত নিয়ে আলাদা ভাবে কমিশনে বিস্তারিত রিপোর্ট জমা দেয় রাজ্যে নিযুক্ত কমিশনের দুই বিশেষ পর্যবেক্ষক (বিবেক দুবে, অজয় নায়ক) ও মুখ্যসচিব। এরপর সেই রিপোর্ট খতিয়ে দেখেই কমিশনের এই সিদ্ধান্ত। 
তারই প্রেক্ষিতে নির্বাচন কমিশনের তরফে জানানো হয় ‘রাজ্যের নিরাপত্তা কর্মকর্তার পদ থেকে আইপিএস অফিসার বিবেক সহায়কে সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে। একজন জেড+ ক্যাটাগরির নিরাপত্তা পাওয়া ভিভিআইপির নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হওয়ার কারণে এক সপ্তাহের মধ্যে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হবে।’ 

জেড+ নিরাপত্তা পাওয়া মমতা ব্যানার্জির বুলেট প্রুফ গাড়িতে সফর করার কথা কিন্তু দুর্ঘটনার দিন তিনি বুলেট প্রুফ গাড়ি ছিল না। পরিবর্তে তার নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা অফিসাররাই ওই বুলেট প্রুফ গাড়িটিতে সফর করছিলেন বলে জানা গেছে। 

নির্বাচন কমিশনের তরফে রাজ্যের মুখ্য সচিব আলাপন ব্যানার্জিকে নির্দেশ দেওয়া হয় যে রাজ্য পুলিশের ডিজি পি. নিরজনয়ন’এর সাথে আলোচনা করে বিবেক সহায়কে যেন সোমবার দুপুর ১ টার মধ্যে নতুন কোন পদে স্থানান্তরিত করা হয়। 

ওইদিন বিরুলিয়া বাজারে ওই দুর্ঘটনার সময় রাজ্য পুলিশের কোন সদস্য এমনকি জেলা পুলিশ সুপার ছিলেন না বলেও অভিযোগ তোলেন মুখ্যমন্ত্রী। সে ব্যাপারেও নির্বাচন কমিশন কঠোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ওইদিন মমতার সফরে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা না থাকায় পূর্ব মেদিনীপুর জেলার পুলিশ সুপার প্রবীন প্রকাশকেও বহিষ্কার করা হয়েছে। তার জায়গায় নতুন পুলিশ সুপার হয়েছেন সুনীলকুমার যাদব। সরিয়ে দেওয়া হয়েছে জেলাশাসক বিভূ গোয়েলকেও। তার জায়গায় জেলাশাসক করা হয়েছে আইএএস কর্মকর্তা স্মিতা পান্ডে’কে। 

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর