শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২৩:১৩

কুষ্টিয়ায় বন্দুকযুদ্ধে দুই জন নিহত

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ২ জন নিহত হয়েছে। পুলিশের দাবি নিহতরা আন্তঃজেলা ডাকাত দলের শীর্ষ দুই সর্দার ছিল। গতকাল ভোর পৌনে ৪ টার দিকে উপজেলার আদাবাড়িয়া-ডাংমড়কা সড়কের পেটকাটা ডহরে এ ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হল- মোফাজ্জেল হোসেন ওরফে মোফা (৪২) ও মহাবুল (৪০)। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ২টি এলজি বন্দুক, ৪ রাউন্ড গুলি ও ১টি রামদা উদ্ধার করেছেন। এ ঘটনায় পুলিশের সদস্য আহত হয়েছে  বলে পুলিশের অভিমত। পুলিশ জানায়, রাতে পেটকাটা ডহরে একটি তামাক খেতের পাশে একদল ডাকাত ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে। গোপন সূত্রে এ সংবাদ পেয়ে দৌলতপুর থানা পুলিশের একটি টিম সেখানে অভিযানে যায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাত দলের সদস্যরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে। এ সময় পুলিশও পাল্টা গুলি ছুঁড়লে ডাকাতদল পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মোফাজ্জেল হোসেন ওরফে মোফা ও মহাবুলকে উদ্ধার করে দৌলতপুর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। তাদের পরিচয় শনাক্ত করে জানা যায়, নিহত মোফাজ্জেল হোসেন ওরফে মোফা ও মহাবুল আন্তঃজেলা ডাকাত দলের শীর্ষ সর্দার। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় আহত দুই পুলিশ সদস্যকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তারা বর্তমানে আশঙ্কামুক্ত রয়েছে।

দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, মোফাজ্জেল হোসেন ওরফে মোফা ও মহাবুল জেলার শীর্ষ ডাকাত সর্দার। কুষ্টিয়া জেলাসহ আশেপাশের জেলায় তারা ডাকাতির নেতৃত্ব দিত। নিহতদের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

নিহত মোফাজ্জেল হোসেন ওরফে মোফা উপজেলার গড়ুরা গ্রামের মছের মন্ডলের ছেলে ও মহাবুল কৈপাল গ্রামের আব্দুর রহিমের ছেলে। মোফার বিরুদ্ধে দৌলতপুর থানায় ১০টিসহ মোট ১৫টি ও মহাবুলের নামে দৌলতপুর থানায় ৫টিসহ মোট ৭টি মামলা রয়েছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর