শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১১ মে, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১০ মে, ২০১৯ ২২:৫৭

আবেদনের ক্ষেত্রে চোখ কান খোলা রাখতে হবে

------------ ড. শাহান আরা বেগম অধ্যক্ষ, মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ

আবেদনের ক্ষেত্রে চোখ কান খোলা রাখতে হবে

রাজধানীর মতিঝিলে আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ ড. শাহান আরা বেগম বলেন, ‘আগে প্রতিটি কলেজে আলাদা আবেদন করতে হতো। এখন একটি আবেদনের মাধ্যমে সর্বনিম্ন ৫টি থেকে সর্বোচ্চ ১০টি কলেজে ভর্তির আবেদন করা যায়। ভর্তির ফলাফল প্রকাশ করা হয় এসএসসি ও সমমানের ফলাফলের ভিত্তিতে। তাই এখন ভোগান্তির সুযোগ কম। তবে আবেদনের ক্ষেত্রে চোখ-কান খোলা রাখতে হবে। কারণ, আবেদনের ক্ষেত্রে কলেজের নামের বানান ভুল হয়ে গেলে এর ভুক্তভোগী হয় শিক্ষার্থীরা।’ গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন তিনি। এই অধ্যক্ষ আরও বলেন, ‘অনেক ভর্তিচ্ছু ও অভিভাবক বাইরের সাইবার ক্যাফে থেকে আবেদন করেন। অসতর্কভাবে কলেজ সিলেকশনের ক্ষেত্রে ভুল করলে আর সে কলেজে ভর্তির জন্য মনোনয়ন পেলে এ ক্ষেত্রে দুর্ভোগ পোহাতে হয় ভর্তিচ্ছুকে।’ ড. শাহান আরা বেগম বলেন, ‘অনেক শিক্ষার্থী মাধ্যমিকের পরে কলেজে ভর্তির ক্ষেত্রে দূরদূরান্ত থেকে ঢাকায় আসে। এখানে এসে তারা হোস্টেলে, আত্মীয়স্বজনের বাড়ি কিংবা সাবলেটে বাস করে। এতে তারা ঠিকমতো পড়াশোনায় মনোযোগ দিতে পারে না। অনেকেই মাঝপথে কলেজ বদলাতে বাধ্য হয়। এতে ওইসব শিক্ষার্থীর অনেক গুরুত্বপূর্ণ সময় নষ্ট হয়; যে কারণে অনেকে মাধ্যমিকে ভালো ফল ধরে রাখতে পারে না।’

 তিনি বলেন, ‘শুধু মানের দিকে তাকালে হবে না। সব মানিয়ে কলেজে ভর্তি হতে হবে।’ কলেজে ভর্তির ক্ষেত্রে আসনের কোনো সমস্যা হবে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘অনেক স্কুলে কলেজ সংযুক্ত রয়েছে। সেখানে নিজেদের শিক্ষার্থীরাই অগ্রাধিকার পাবে। এসব প্রতিষ্ঠানে বাইরে থেকে ভর্তি হতে খুব ভালো রেজাল্ট থাকতে হবে।’ তাই ভর্তির ক্ষেত্রে মেধা অনুযায়ী, এসএসসির ফলাফল অনুযায়ী চয়েজ দেওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর