শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৫ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৪ জানুয়ারি, ২০২০ ২৩:৪১

কোর্টের বারান্দায় মাস কেটে যাচ্ছে নেতা-কর্মীদের

নার্গিস বেগম, আহ্বায়ক, যশোর জেলা বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর

কোর্টের বারান্দায় মাস কেটে যাচ্ছে নেতা-কর্মীদের

যশোর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক নার্গিস বেগম বলেছেন, বিএনপি নেতা-কর্মীদের এখন প্রতিদিন সকালে উঠেই তালিকা দেখতে হয় যে আজ আদালতে হাজিরা আছে কিনা। তারপর অন্য কাজ। অস্বাভাবিক এক অবস্থা। এখন নতুন করে মামলা দেওয়া হচ্ছে কম। কিন্তু

ইতিমধ্যেই জেলার ৫ হাজারেরও বেশি বিএনপি নেতা-কর্মী মামলায় জর্জরিত। কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিতের বিরুদ্ধে ৪০টিরও বেশি মামলা। কেবল যশোরই নয়, নড়াইল, ঢাকাতেও তার বিরুদ্ধে মামলা দেওয়া হয়েছে। ৩০টির বেশি মামলা রয়েছে দলের শীর্ষনেতা সাবেরুল হক সাবু, দেলোয়ার হোসেন খোকন, গোলাম রেজা দুলু, মারুফুল ইসলাম, সিরাজুল ইসলাম প্রমুখের বিরুদ্ধে। ৫৩ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটির মধ্যে মামলা নেই কেবল তিনজনের বিরুদ্ধে। নার্গিস বেগম বলেন, রাজনীতি করব কীভাবেÑ অবরুদ্ধ অবস্থার মধ্যে আছি। প্রকাশ্যে কর্মসূচি করতে দেওয়া হচ্ছে না। প্রত্যেক রাজনৈতিক দলই তাদের বক্তব্য মানুষকে জানাতে চায়। আমরা নিরীহ কর্মসূচি দিলেও তা দলীয় কার্যালয়ের মধ্যে করতে হবে বলে বাধ্যবাধকতা দিয়ে দিচ্ছে। বুদ্ধিজীবী দিবস, বিজয় দিবসের মতো দিনে আমরা র‌্যালি করতে চেয়েছিলাম, অনুমতি দেয়নি পুলিশ। শীতে কম্বল বিতরণের কর্মসূচিও তারা বাইরে করতে দিচ্ছে না। এক প্রশ্নের জবাবে নার্গিস বেগম বলেন, কেন্দ্রের কিছু নির্দেশনার কারণে যশোর জেলা কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া কিছুটা শ্লথ হয়েছে। তবে তা এখন ভালোভাবেই এগিয়ে চলছে। তিনি বলেন, ঝিকরগাছা ও চৌগাছায় আহ্বায়ক কমিটি করা হয়ে গেছে। বাকি উপজেলাগুলোতেও আহ্বায়ক কমিটি শিগগিরই করা হবে। কিন্তু কয়েকটি জায়গায় আহ্বায়ক কমিটি করার জন্য নেতা-কর্মীরা এক জায়গায় বসতেও পারছেন না। পুলিশের পক্ষ থেকে অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না। আমরা চেষ্টা করছি তাদের যশোরে বসার সুযোগ তৈরি করে দেওয়া যায় কিনা সে ব্যাপারে। নার্গিস ইসলাম বলেন, ছাত্রদল, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, তাঁতী দল, মৎস্যজীবী দলের আংশিক কমিটি করা হয়ে গেছে। তৃণমূলে সবকিছুই করা হচ্ছে নির্বাচনের মাধ্যমে গণতান্ত্রিক উপায়ে। এতে অনেক জায়গায় নেতৃত্বে পরিবর্তন আসছে এবং এর ফলও ভালো পাওয়া যাচ্ছে। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানও সেভাবেই নির্দেশনা দিয়েছেন। নার্গিস ইসলাম বলেন, নেতা-কর্মীদের নিয়ে এক জায়গায় বসা বা মিটিং করার ব্যাপারে বিধিনিষেধসহ নানা কারণে কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া কিছু ধীরগতির হলেও তা এগিয়ে চলেছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, গ্রুপিং কিছুটা হয়তো ছিল, তবে সবাইকে নিয়ে একসঙ্গেই সবকিছু করার চেষ্টা করে যাচ্ছি আমরা।


আপনার মন্তব্য