শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৩ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ নভেম্বর, ২০১৯ ২৩:২৭

শাকিলের হিমলুং পর্বত শিখরে আরোহণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

শাকিলের হিমলুং পর্বত শিখরে আরোহণ

হিমালয় পর্বতমালার অন্নপূর্ণা ও মানাসলু অঞ্চলের মধ্যে নেপাল-তিব্বত সীমান্তে ২৩ হাজার ৩৮০ ফুট উচ্চতার ‘হিমলুং’ পর্বত। এ পর্বতের শিখরে আরোহণ করে ফিরেছেন ইকরামুল হাসান শাকিল। হিমলুং থেকে ফিরে গতকাল রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত অতিথিদের হাতে পতাকা প্রত্যর্পণ করেন এম এ মুহিত ও শাকিল। সংবাদ সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশস্থ  নেপাল দূতাবাসের ডেপুটি চিফ অফ মিশন ধন বাহাদুর ওলি। সংবাদ সম্মেলন পরিচালনা করেন অ্যান্টার্কটিকা ও সুমেরু অভিযাত্রী ইনাম আল হক।

বাংলা মাউন্টেইনিং অ্যান্ড ট্রেকিং ক্লাবের উদ্যোগে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, পাঁচ  অক্টোবর নেপালের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়ে যান এ দুই পর্বতারোহী। আট অক্টোবর নেপালের কোটো থেকে ট্রেকিং শুরু করেন। ১২ অক্টোবর ১৫ হাজার ৯১২ ফুট উচ্চতায় বেস-ক্যাম্পে পৌঁছান। তারা ২০ অক্টোবর ১৭ হাজার ৮৮০ ফুট উচ্চতায় ক্যাম্প-১ এ পৌঁছান।  ২১ অক্টোবর পৌঁছান ১৯ হাজার ৬৮৫ ফুট উচ্চতায় ক্যাম্প-২ তে। এরপর ২৩ অক্টোবর ২১ হাজার ফুট উচ্চতায় ক্যাম্প-৩ এ আরোহণ করেন। ২৩ অক্টোবর ভোর ৪টায় ক্যাম্প-৩ থেকে দুই শেরপা গাইডকে সঙ্গে নিয়ে প্রচ  ঝড়ো বাতাসের মধ্যে মুহিত ও শাকিল চূড়ান্ত আরোহণ শুরু করেন। কয়েক ঘণ্টা পর উড়ন্ত তুষারকণায় এম এ মুহিত চোখে আঘাত পান। পরে শেরপাকে সঙ্গে নিয়ে ক্যাম্প-৩ এ নেমে আসেন। অপর  শেরপাকে নিয়ে শাকিল আরোহণ অব্যাহত রাখেন। খাড়া হিমবাহের দেয়ালে স্থাপিত প্রায় ২৩৮০ ফুট দীর্ঘ দড়িতে জুমার ক্লাইম্বিং শেষে ২৩ অক্টোবর নেপাল সময় ১০টা ১০ মিনিটে হিমলুংয়ের শীর্ষে আরোহণ করেন শাকিল।

এই অভিযান পরিচালনা করেন বাংলা মাউন্টেইনিয়ারিং অ্যান্ড ট্রেকিং ক্লাব এবং যৌথভাবে স্পন্সর করেন ইস্পাহানি টি লিমিটেড ও আরলা ফুডস্ বাংলাদেশ লিমিটেড।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর