শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ নভেম্বর, ২০১৮ ১৭:৪৮

অসুস্থ পাখি চেনার সহজ উপায়

নিজের অসুস্থতার খবর লুকিয়ে রাখাই পাখির সাইকোলজি!

কৌশিক সরকার কাব্য:

নিজের অসুস্থতার খবর লুকিয়ে রাখাই পাখির সাইকোলজি!
সংগৃহীত ছবি

সৌখিন পাখি পালকদের জেনে রাখা দরকার- পাখির সাইকোলজি হল পাখি যদি অসুস্থ হয়, তাহলে সে অসুস্থতার বিষয়টি সবসময় অন্য পাখিদের থেকে লুকিয়ে রাখে (মানে আপনার থেকেও লুকিয়ে রাখা)। কারণ, প্রকৃতিতে যখন কোন পাখি অসুস্থ হয়, তখন পাখির দল তাকে ত্যাগ করে এই ভেবে যে- তার রোগ অন্য পাখিদের হয়ে যাবে!এছাড়া অসুস্থ পাখিটি সঙ্গ ছেড়ে যেতে না চাইলে অনেক ক্ষেত্রে তাকে আহত করে তাড়িয়ে দেয় অন্য পাখিরা।

ভাবছেন পাখিরা এতো নিষ্ঠুর হয়?
তাহলে মানুষের ১শ' বছরের ইতিহাস ঘাটলে এমন নির্মমতা অনেক খুজে পাবেন! বসন্ত/পক্সের টিকা যখন আবিষ্কার হয়নি, কারো গুটিবসন্ত হলে তাকে ভেলায় করে নদীতে ভাসিয়ে দেওয়া হত। কারণ সে থাকলে গ্রামের পর গ্রাম এই রোগে উজাড় হয়ে যাবে!

প্রশ্ন আসতে পারে, কেইজ বার্ড (খাঁচার পাখি) তো ওয়াইল্ডে থাকে না!তাদের ক্ষেত্রেও কি এমন আচরণ লক্ষ্য করা যেতে পারে? আসলে সারভাইভাল হল প্রকৃতির জীব বৈচিত্র্যের বেসিক ইন্সটিংক্ট! জিনগত বৈশিষ্ট্যই তাদের এই চরিত্র ধরে রাখে! 

সুতরাং পাখি অসুস্থ হয়ে সুস্থ থাকার অভিনয় করে করে ভীষণ অসুস্থ হয়ে যায়, তখন সে গা ফুলিয়ে/ঝিমিয়ে/পাতলা-সবুজ-চুনা ইত্যাদি পুপ করে ভাসিয়ে ফেলে! আর তখনই আপনি বুঝতে পারেন যে আপনার প্রিয় পোষা পাখিটি অসুস্থ। তাই আগে থেকে খেয়াল করুন। পাখির পুপ, খাবার, অ্যাকটিভিটিতে কোন তারতম্য হলে সতর্ক হোন! অভিজ্ঞ কারো পরামর্শ নিন। 'দেখি কি হয়' ভেবে সময় নষ্ট না করাই ভলো! 

যে কাজটি বেশীরভাগ মানুষ করেন না, তা হল খাঁচার ট্রে ১ যুগেও পরিষ্কার করেন না! অথচ ট্রে নিয়মিত পরিষ্কার রাখলে, এবং বিশেষ করে তাতে সাদা কাগজ দেওয়া থাকলে আপনি সহজেই পুপের (বিষ্ঠা) ধরন/রঙ পরিবর্তন হবার আভাস পেয়ে যাবেন, যেটা অসুস্থতা ধরার সবচে' সহজতর উপায়! এতে লাভও দ্বিগুণ!!  রোগজীবাণু, পিঁপড়া, ইদুর, তেলাপোকার সংক্রমণ/আক্রমণ কমে যাবে অবিশ্বাস্য মাত্রায়।

ডিম দেওয়ার সিজন ছাড়া পাখির খাঁচার সামনে দাঁড়িয়ে অনেকেই সময় অতিবাহিত করেন না! এটি করবেন না, নিয়মিত পাখিকে সময় দিন, সাইকোলজিক্যালি আপনি এবং পাখি দুজনেই ভালো থাকবেন। পাখির চরিত্রের পরিবর্তন ধরতে সহজ হবে। দিনে একবার খাবার দিয়ে দু-চার মিনিট সময় ব্যয় করে পাখির পরিবর্তন বুঝবেন না, কিছুটা সময় নিয়ে তাদের দেখাশোনা করতে হবে। 

ভাল থাকুক সবার শখের পাখি।

লেখক: সৌখিন পাখি পালক।

বিডি প্রতিদিন/২৩ নভেম্বর ২০১৮/হিমেল


আপনার মন্তব্য