শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ জুন, ২০১৯ ২২:২৮
আপডেট : ২৬ জুন, ২০১৯ ২২:৩২

ঢাবির বাজেটে বরাদ্দ কমছে গবেষণায়, অধিবেশনের বাইরে মানববন্ধন

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

ঢাবির বাজেটে বরাদ্দ কমছে গবেষণায়, অধিবেশনের বাইরে মানববন্ধন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রস্তাবিত বাজেটে গবেষণা খাতে বরাদ্দ আগের চেয়ে কমেছে। গবেষণার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব বাজেটে আছে ৭ কোটি ৮৬ লাখ টাকা ও বিশেষ অনুদান হিসেবে পাওয়া যাবে ৯ কোটি টাকা। সবমিলিয়ে এই খাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বরাদ্দ ১৬ কোটি ৮৬ লাখ টাকা, যা মোট বাজেটের মাত্র ২.১ শতাংশ।

২০১৮-১৯ অর্থবছরে গবেষণা খাতে বরাদ্দ ছিল ৩৬ কোটি ৫৫ লাখ টাকা যাা মোট বাজেটের ৪.৯৪ শতাংশ। ফলে বাজেটের আকার বিগত বছরের চেয়ে ৯.৩৫ শতাংশ বাড়লেও গবেষণায় বরাদ্দ কমছে ২.৮৪ শতাংশ। ফলে প্রকৃত বরাদ্দ ও শতাংশ, দু'দিক থেকেই এবার গবেষণায় বরাদ্দ কমছে। যদিও পণ্য সেবা খাত ও অন্যান্য অনুদান খাতের আওতায় ৪০ কোটি ৮০ লাখ ৭০ হাজার টাকা গবেষণার জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

প্রস্তাবিত বাজেটে গবেষণায় এই বরাদ্দকে ডাকসুর প্রতিনিধি ও বেশ কয়েকজন সিনেট সদস্য অপর্যাপ্ত বলে দাবি করে বক্তব্য দিয়েছেন। ডাকসুর জিএস গোলাম রাব্বানী এই গবেষণার বাজেটকে অপর্যাপ্ত উল্লেখ করে গবেষণায় বাজেট বাড়ানোর দাবি জানান।

এছাড়া শিক্ষার উপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টিতে বিশ্ববিদ্যালয় লাইব্রেরি কমপ্লেক্সকে আধুনিকায়ন করার প্রস্তাব করেন তিনি।

এদিকে সিনেট অধিবেশন চলাকালীন বিভিন্ন দাবি নিয়ে সিনেট ভবনের সামনে মানববন্ধন করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে আয়োজিত মানববন্ধনে ছাত্র ইউনিয়নের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি ফয়েজ উল্লাহ ও সাধারণ সম্পাদক রাজিব দাসসহ অন্য নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এসময় তারা ‘গবেষণায় বরাদ্দ বাড়াও’, ‘আবাসন সংকট নিরসনে বরাদ্দ দাও’, ‘লাইব্রেরি ২৪ ঘণ্টা চালু রাখতে হবে’, ‘গেস্টরুম সংকটের সমাধান চাই’, ‘সকল উন্নয়ন ফি বাতিল কর’, ‘সকল রুটে রাত ৮টায় বাস চাই’, ‘ক্যাম্পাসে যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ কর’ ইত্যাদি দাবি-দাওয়ার কথা ব্যানারের মাধ্যমে তুলে ধরেন।

এসব সমস্যার কথা উল্লেখ করে ছাত্র ইউনিয়নের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি ফয়েজ উল্লাহ বলেন, এগুলো সমাধানে সিনেটের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়েছে। এর মাধ্যমে সব সমস্যা সমাধানের পথ তৈরি হবে বলেও মনে করেন তিনি।

এর আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯-২০ অর্থ বছরে ৮১০ কোটি ৪২ লাখ টাকার বাজেট উপস্থাপন করা হয়েছে। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবন মিলনায়তনে বার্ষিক সিনেট অধিবেশনে প্রস্তাবিত এ বাজেট উপস্থাপন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. কামাল উদ্দীন। বৃহস্পতিবার পাশ হতে পারে প্রস্তাবিত বাজেট।


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য