শিরোনাম
প্রকাশ : ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২২:০৪

পায়রা সমুদ্রবন্দরে কয়লাবাহী প্রথম জাহাজ আসছে বৃহস্পতিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

পায়রা সমুদ্রবন্দরে কয়লাবাহী প্রথম জাহাজ আসছে বৃহস্পতিবার

কয়লাবাহী প্রথম জাহাজ আসছে দেশের তৃতীয় সমূদ্র বন্দর পায়রায়। এমভি জিন হাই টোঙ্গ-৮ নামে হংকংয়ের পতাকাবাহী জাহাজটি ইন্দোনেশিয়ার বালিকপানান বন্দর থেকে প্রায় ২০ হাজার মেট্রিক টন কয়লা নিয়ে বৃহস্পতিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে পায়রা বন্দরের জেটিতে নোঙ্গার করবে বলে জানিয়েছেন পায়রা সমুদ্রবন্দর কর্তৃপক্ষ। 

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় কয়লা ভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র বিসিপিসিএল’র (BCPCL) বিদ্যুৎ উৎপাদনের কাজে ব্যবহৃত হবে আমদানীকৃত এই কয়লা। আগামী মাস (অক্টোবর) থেকে প্রতিদিন বিসিপিসিএল’র (BCPCL) এর একটি করে কয়লাবাহী জাহাজ বন্দরে আসবে। এছাড়া অন্যান্য পন্য আমদানী-রফতানী কাজে বন্দর ব্যবহারের ধারাও অব্যাহত থাকবে। 

পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষের এক কর্মকর্তা জানান, ইন্দোনেশিয়া থেকে এমভি জিন হাই টোঙ্গ-৮ নামের জাহাজটি ৫০ হাজার মেট্রিক টন কয়লা নিয়ে গভীর সমূদ্রে বর্হিনোঙ্গরে এসেছে। সেখানে বিভিন্ন লাইটার জাহাজে ৩০ হাজার মেট্রিক টন কয়লা খালাস করা পর বাকী ২০ হাজার মেট্রিক টন কয়লা নিয়ে জাহাজটি বন্দরের জেটিতে আসবে। 

পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষের উপ-পরিচালক (পরিবহন) আজিজুর রহমান প্রেরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, পায়রা বন্দরের জন্য সরকারি অর্থায়নে প্রথম টার্মিনাল নির্মাণের কার্যক্রম চলছে। কোরিয়ান পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের তত্ত্বাবধানে জেটি, টার্মিনাল, সংযোগ সড়ক এবং আন্ধারমানিক নদীর উপর সেতু নির্মাণের কার্যক্রম চলছে। এছাড়া একটি কয়লা টার্মিনাল নির্মাণ প্রকল্প (পিপিপি পদ্ধতিতে) অনুমোদনের চূড়ান্ত পর্যায়ে বয়েছে। এই দুটি টার্মিনাল নির্মাণসহ ক্যাপিটাল ড্রেজিং শেষে ২০২২ সাল নাগাদ পায়রা পূর্ণাঙ্গ সমুদ্রবন্দর হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে। পরিকল্পনা বাস্তবায়ন দেশের তৃতীয় সমুদ্রবন্দর পায়রা দিনে দিনে ব্যস্ততম বন্দরে রূপ নেবে বলে আশা করা হয় ওই প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে। 

২০১৬ সালের ১৩ আগস্ট পায়রা বন্দরের মুরিং পয়েন্টে শীপ টু শীপ লাইটারেজের মাধ্যমে আংশিক অপারেশনাল কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনের পর থেকে এ পর্যন্ত মোট ৩৩টি বিদেশি পতাকাবাহী বাণিজ্যিক জাহাজ পন্য নিয়ে পায়রা বন্দরে এসেছে। এতে সরকার এবং বন্দর কর্তৃপক্ষ কোটি কোটি টাকা রাজস্ব পেয়েছে। 

বন্দর কর্তৃপক্ষের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সরকারের অগ্রাধিকারভূক্ত দেশের তৃতীয় সমুদ্রবন্দর পায়রা অত্যন্ত সম্ভাবনাময় একটি বন্দর। এই বন্দরকে পুর্ণাঙ্গ সুবিধাসহ একটি আধুনিক বন্দর হিসেবে গড়ে তুলতে সরকার নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এই বন্দর পুরোপুরি চালু হলে দক্ষিণাঞ্চলসহ সারাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আশা করেন পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষের উপ-পরিচালক (পরিবহন) আজিজুর রহমান। 

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর