Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২৭ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৭ মার্চ, ২০১৯ ০১:৩৫

ভানুয়াতুতে ভাগ্য বিড়ম্বনায় শতাধিক বাংলাদেশি

ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নেই

প্রতিদিন ডেস্ক

ভানুয়াতুতে ভাগ্য বিড়ম্বনায় শতাধিক বাংলাদেশি

ভালো বেতনের প্রলোভনে ভাগ্য বদলের আশায় প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপদেশ ভানুয়াতু গিয়ে এখন গভীর অনিশ্চয়তায় দিন কাটাচ্ছেন ১০১ জন বাংলাদেশি। তাদের পাচারে জড়িত থাকার অভিযোগে চার বাংলাদেশিকে নভেম্বরে গ্রেফতার করেছে ভানুয়াতু সরকার, যার মধ্যে দুজন সেখানে ‘মিস্টার প্রাইস’ নামে একটি গৃহস্থালি ও আসবাবপত্রের কোম্পানি চালাতেন। রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, এই বাংলাদেশিরা ভানুয়াতু গেছেন গত দুই বছরের বিভিন্ন সময়ে। তাদের মধ্যে অন্তত দুজনের বয়স ১৮ বছরের কম। আপাতত তাদের রাখা হয়েছে পোর্ট ভিলার তিনটি বাড়িতে। খাবার জোগান দিচ্ছে ভানুয়াতু সরকার। জাতিসংঘের অভিবাসনবিষয়ক সংস্থা আইওএমের হয়ে ভানুয়াতু হিউম্যান রাইটস কোয়ালিশন নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা এই বাংলাদেশিদের সহায়তা দিচ্ছে।

বাংলাদেশের কর্মকর্তারা রয়টার্সকে বলেছেন, আটকা পড়া ওই বাংলাদেশিদের ফিরিয়ে আনার জন্য ভানুয়াতু সরকার ও আইওএমের কাছে বিস্তারিত তথ্য চেয়েছেন তারা। কিন্তু এখনো কোনো সাড়া মেলেনি। আর ভানুয়াতুর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এন্ড্রু সলোমন ন্যাপুয়াট টমসন রয়টার্স ফাউন্ডেশনকে বলেছেন, কোনো পদক্ষেপ নেওয়ার আগে তারা আদালতের সিদ্ধান্ত জেনে নিতে চান। ফলে তত দিন পর্যন্ত ওই ১০১ বাংলাদেশিকে ভানুয়াতু সরকারের দেওয়া খাবার আর ভবিষ্যতের অনিশ্চয়তা সঙ্গে নিয়ে সেখানেই দিন কাটাতে হবে। কেননা ওই মানব পাচার মামলায় তাদের সবাইকে সাক্ষী করা হয়েছে। অথচ সেখানে তাদের কাজের সুযোগও দেওয়া হচ্ছে না।

হারুন অর রশিদ নামে আটকা পড়া একজন রয়টার্সকে বলেছেন, অস্ট্রেলিয়ায় পাঠানোর ব্যবস্থা হবে এই আশ্বাসে তিনি আত্মীয়স্বজন আর ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে ভানুয়াতু এসেছিলেন। এখন দেশে ফিরে যেতে হলে সেই ঋণ শোধ করার কোনো উপায় তার জানা নেই।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর