শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৯ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০৯

পাসপোর্ট বইয়ের ভয়াবহ সংকট

ভোগান্তিতে প্রবাসী ও রোগীরা

মুহাম্মদ সেলিম, চট্টগ্রাম

চট্টগ্রামের সাতকানিয়া এলাকার গৃহবধূ রোকসানা আকতার। চিকিৎসার জন্য দেশের বাইরে যেতে গত বছরের জুনে চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস পাঁচলাইশে আবেদন করেন। এরপর কেটে যায় ছয় মাস। দীর্ঘ এ সময়ে তিনি হাতে পাননি কাক্সিক্ষত পাসপোর্ট। পাসপোর্ট পেতে চট্টগ্রামের পাঁচলাইশের আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে প্রতি সপ্তাহেই আসেন অসুস্থ এ গৃহবধূ। কিন্তু পাসপোর্ট বইয়ের সংকটের কথা বলে প্রত্যেক বারই তাকে ফিরিয়ে দেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। এভাবে রোকসানা বেগমের মতো চট্টগ্রামের অনেক প্রবাসী, ব্যবসায়ী, রোগী মাসের পর মাস ধরে পাচ্ছেন না পাসপোর্ট। চট্টগ্রামের মনসুরাবাদ বিভাগীয় পাসপোর্ট অফিসের পরিচালক আবু সায়েদ বলেন, ‘পাসপোর্ট বই সংকটের কারণে ঢাকা থেকে পর্যাপ্ত বই সরবরাহ করতে পারছে না। তাই নির্ধারিত সময়ে অনেকে পাসপোর্ট হাতে পাচ্ছে না। তবে রোগী, প্রবাসী এবং যাদের জরুরি পাসপোর্ট প্রয়োজন তাদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পাসপোর্ট দেওয়ার চেষ্টা করছি। আশা করছি ই-পাসপোর্ট চালু হওয়ার পর এ সংকট কেটে যাবে।’ পাঁচলাইশ পাসপোর্ট অফিসে কথা হয় গৃহবধূ রোকসানা আকতারের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘হার্টে সমস্যা দেখা দেওয়ায় দেশের বাইরে চিকিৎসা করাতে জরুরি ভিত্তিতে পাসপোর্টের জন্য আবেদন করি। কিন্তু ছয় মাসেও পাসপোর্ট হাতে পাইনি। পাসপোর্ট করতে না পারায় চিকিৎসার জন্য দেশের বাইরে যেতে পারছি না। এদিকে শরীরের অবস্থা দিন দিন খারাপের দিকে যাচ্ছে।’ বিভাগীয় ও আঞ্চলিক অফিসের একাধিক কর্মকর্তা বলেন, ‘আগে প্রতিদিন গড়ে ৭০০ থেকে ৮০০ নতুন পাসপোর্ট ভেলিভারি হতো। বর্তমানে তা ১০০ থেকে ১২০-এ নেমে এসেছে।

বই সংকট থাকায় আবেদনকারীদের নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বই সরবরাহ করা যাচ্ছে না।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর