শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ৮ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৮ এপ্রিল, ২০২০ ০০:২৫

করোনাভাইরাস

খুলনা ও সিলেটে পরীক্ষা শুরু

২১০ জনের নমুনা সংগ্রহ বাড়ছে আতঙ্ক

প্রতিদিন ডেস্ক

খুলনা ও সিলেটে পরীক্ষা শুরু

খুলনা ও সিলেটে করোনাভাইরাস শনাক্তের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। নিজস্ব প্রতিবেদকদের পাঠানো খবর-

খুলনা : খুলনায় করোনাভাইরাস শনাক্তে পিসিআর (পলিমারজ চেইন রিঅ্যাকশন) মেশিনে পরীক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়েছে। গতকাল প্রথম দিনে ৪৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এই মেশিনে একসঙ্গে ৯৪টি নমুনা পরীক্ষা করা যাবে।

দুপুরে মোনাজাতের মধ্য দিয়ে পিসিআর মেশিনের পরীক্ষা কার্যক্রম চালু হয়। এ সময় খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র তালুকদার আবদুল খালেক, বিভাগীয় কর্মকর্তা ড. মু. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার, খুলনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ উপস্থিত ছিলেন। পিসিআর ল্যাবের সমন্বয়ক ডা. এস এম তুষার আলম জানান, কোনো রোগীর করোনা সন্দেহ হলে পিসিআরের মাধ্যমে তার রক্ত, ঘাম ও কফ পরীক্ষা করা হবে। চার ঘণ্টার মধ্যেই করোনা পরীক্ষা প্রতিবেদন দেওয়া সম্ভব হবে। তিনি জানান, করোনা ইউনিটের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা যাদের নমুনা পাঠাবেন শুধু তাদের পরীক্ষা করা হবে। পরীক্ষায় করোনাভাইরাস ধরা পড়লে ওই রোগীকে খুলনা ডায়াবেটিক হাসপাতালে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হবে।

সিলেট : অন্যদিকে সিলেটে শুরু হয়েছে করোনাভাইরাস শনাক্তের পরীক্ষা। গতকাল ওসমানী মেডিকেল কলেজের মাইক্রোবায়োলজি ও ভাইরোলজি বিভাগে স্থাপিত আরটি পিসিআর ল্যাবে শুরু হয় এ পরীক্ষার কার্যক্রম। প্রথম দিন সিলেট বিভাগের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা থেকে ১১৬টি নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ল্যাবে আনা হয়। আজ আইইডিসিআর থেকে নমুনাগুলোর পরীক্ষার ফলাফল জানানো হবে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন। ল্যাব উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত সভায় ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য রাখেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে  আবদুল মোমেন। এ সময় তিনি করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সিলেটের মানুষের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দেন। ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইউনুছুর রহমান ও মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. ময়নুল হক এ সময় হাসপাতালের চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য আরও পিপিই ও মাস্ক সরবরাহের অনুরোধ জানান। জবাবে মন্ত্রী সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন। ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইউনুছুর রহমান জানান, সিলেটে মেশিনের সঙ্গে ১ হাজার কিট এসেছে। এই কিট দিয়ে কয়েকদিন পরীক্ষা চালানো হবে। কিট শেষ হওয়ার আগে ঢাকা থেকে আরও কিট আসবে বলে জানান তিনি। ল্যাব উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন সিলেট সিটি করপোরেশন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মো. মশিউর রহমান, সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি মো. কামরুল আহসান বিপিএম, সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়া, সিলেট জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম,  সিলেটের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দীন, সিলেট ওসমানী হাসপাতালের উপ-পরিচালক হিমাংশু লাল রায়, বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের সহকারী পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান, ওসমানী মেডিকেল কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল প্রফেসর ডা. শিশির চক্রবর্তী প্রমুখ।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর