শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১৮ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০৩

পদ্মার স্প্যান ফিটিংয়ের কাজ শেষ

পিলারে বসেছে ৩২ স্প্যান বাকি ৯টি সম্পূর্ণ প্রস্তুত

লাবলু মোল্লা, মুন্সীগঞ্জ

পদ্মার স্প্যান ফিটিংয়ের কাজ শেষ

পদ্মা সেতুর সর্বশেষ ৪১তম স্প্যানের ফিটিংসের কাজ শেষ। শিগগিরই রঙের কাজ শুরু হবে। এ নিয়ে শেষ হলো দেশবাসীর স্বপ্নের পদ্মা সেতুর সবকটি স্প্যানের ফিটিংস। মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে লৌহজংয়ের কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে দেশের সর্ববৃহৎ মেগা প্রকল্প পদ্মা সেতুর ৪১তম স্প্যানের ফিটিংস শেষ হয়ে ৯টি স্প্যান এখন পিলারে বসার অপেক্ষায় রয়েছে। ইতিমধ্যে ৩২টি স্প্যান পিলারে বসে দৃশ্যমান হয়েছে ৪ হাজার ৮০০ মিটার সেতু। এতে মূল সেতুর ৯০ শতাংশের বেশি কাজ শেষ হয়েছে। এদিকে নদীশাসনের অগ্রগতি হয়েছে ৭৪ দশমিক ৫ শতাংশ এবং সার্বিক অগ্রগতি ৮১ দশমিক ৫ শতাংশ।

এসব তথ্য জানিয়ে পদ্মা সেতু প্রকল্পের ব্যবস্থাপক ও নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান মো. আবদুল কাদের বলেছেন, সেতুর মোট ৪১টি স্প্যানের সবকটিরই মালামাল চীন থেকে সমুদ্রপথে দেশে এসে গেছে। অনেক আগেই ৩৯টির মালামাল আসায় সবকটি প্রস্তুত করে রঙের কাজ শেষ হয়েছে। পরে আসা ৪০ ও ৪১তম স্প্যানের ফিটিংস শেষ হলো আজ (গতকাল)। এ স্প্যান দুটির রঙের কাজ শুরু হবে খুব শিগগিরই। এর মধ্যে ৩২টি স্প্যান সেতুর পিলারে বসেছে। বাকি ৯টির ৭টি স্প্যান মাওয়ার কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে সম্পূর্ণ প্রস্তুত রয়েছে এবং পরে ২টি স্প্যানের মালামাল আসায় সে ২টিও ফিটিংস শেষ করে রং করার জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এদিকে ৩৩তম স্প্যানটি এখন আনুষঙ্গিক কাজ (স্টেয়ার/রেল/ব্যালান্স লোড/লিফটিং হুক) করার পর এ মাসের মধ্যেই পিলারে বসানোর চেষ্টা চলছে।

দেশের অন্যতম মেগা প্রকল্প পদ্মা বহুমুখী প্রকল্পের নানামুখী কাজ এগিয়ে চলছে দ্রুত গতিতে। এ সেতুর উভয় পাড়ে সংযোগসড়ক ও টোল প্লাজার কাজ শেষ। চলছে নদীশাসন, নদীশাসনের জন্য বিপুল পরিমাণ ব্লক তৈরি, ড্রেজিংয়ের কাজসহ বিভিন্ন স্থানে স্লপিংয়ের কাজ।

যেদিকে চোখ যায় বিশাল কর্মযজ্ঞ দৃষ্টির সীমানা পেরিয়ে যায়। কর্মমুখর পদ্মায় ঝড়-বৃষ্টি আর প্রবল স্রোতের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে দ্রুত এগিয়ে চলছে সেতুর নির্মাণকাজ। ইতিহাসের সাক্ষী হতে ইতিমধ্যে ৩২টি স্প্যান পিলারে বসে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। আর মাত্র ৯টি স্প্যান পিলারে বসানো হলেই জোড়া লেগে যাবে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতুর এপার ওপার।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর