শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৭ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ নভেম্বর, ২০২০ ২৩:৩০

মাতারবাড়ী গভীর সমুদ্রবন্দর উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ শুরু

লক্ষ্য বছরে আট লাখ কনটেইনার হ্যান্ডলিং

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

বছরে ৮ লাখ টিইইউস কনটেইনার হ্যান্ডলিংয়ের লক্ষ্য নিয়ে মহেশখালীর মাতারবাড়ী গভীর সমুদ্রবন্দর উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে। গতকাল চট্টগ্রাম বন্দর ভবনে মাতারবাড়ী পোর্ট ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্টের জাপানি কনসালট্যান্ট নিপ্পন কোয়েইর সঙ্গে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের সভা শেষে গতকাল বিকালে চট্টগ্রাম বন্দর ভবনে মাতারবাড়ী পোর্ট ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্টের জাপানি কনসালট্যান্ট নিপ্পন কোয়েইর সঙ্গে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষেও বৈঠক শেষে বন্দর চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল এস এম আবুল কালাম আজাদ গণমাধ্যমকে এই তথ্য জানিয়েছেন। বন্দর চেয়ারম্যান বলেন, মাতারবাড়ী গভীর সমুদ্রবন্দর নির্মাণ সময়ের দাবি ছিল। এ বন্দরের ফলে ঢাকা থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত যে অর্থনৈতিক বলয় গড়ে উঠছে তা বেগবান হবে। পরামর্শকদের সঙ্গে ২৩ সেপ্টেম্বর চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছিল। আজ থেকে মাতারবাড়ী বন্দর উন্নয়ন প্রকল্পের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী যে রোলমডেল করেছেন তার সঙ্গে সংগতি রেখে মাতারবাড়ীতে গভীর সমুদ্রবন্দর করা হচ্ছে। সবকিছু ঠিকমত চললে ২০২৬ সালের মধ্যে এই বন্দরের কার্যক্রম সম্পন্ন হবে। চট্টগ্রাম বন্দরের সদস্য মো. জাফর আলম বলেন, ২০২৫ সালের মাঝামাঝিতে এ টার্মিনালে কাজ শুরু হতে পারে। বছরে ৮ লাখ টিইইউস কনটেইনার হ্যান্ডলিংয়ের লক্ষ্য নিয়ে ডিজাইন করা হচ্ছে।

 পরে জেটি বাড়লে সক্ষমতা আরও বাড়বে। তিনি বলেন. এই বন্দরের সম্ভাব্যতা যাছাই করা হয়েছে। ৪৬০ মিটার লম্বা জেটি করা হচ্ছে।

 বর্তমানে নদীপথে যুক্ত আছে। পরে সড়ক ও রেলপথ যুক্ত হবে। ২০২৬ সালের মধ্যে সড়ক যোগাযোগ হয়ে যাবে। প্রকল্পের জাপানি পরামর্শক নিপ্পন কোয়েইর টিম লিডার মি. হোতানি বলেন, আমরা দায়িত্বশীলতার সঙ্গে কাজ করছি। প্রথম ধাপে ডিজাইন ও সিভিল ওয়ার্ক হবে। দ্বিতীয় ধাপে হ্যান্ডলিং সরঞ্জাম সংগ্রহ করা হবে। ভূমিকম্পের বিষয়টি মাথায় রেখে সর্বাধুনিক জাপানি প্রযুক্তি ব্যবহার করা হবে এ প্রকল্পে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর