শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৪ নভেম্বর, ২০২০ ২৩:২২

চট্টগ্রামে প্রতিদিনই বাড়ছে করোনা সংক্রমণ

রেজা মুজাম্মেল, চট্টগ্রাম

চট্টগ্রামে প্রতিদিনই বাড়ছে করোনা সংক্রমণ

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে চট্টগ্রামে প্রতিদিনই পরিচালিত হচ্ছে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান। তবুও থামছে না মাস্কহীন বেপরোয়া চলাফেরা, মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি, বালাই নেই সরকারি নির্দেশনা মানার। কারও মধ্যে দেখা যাচ্ছে না করোনাভীতি, সতর্কতা, সচেতনতা। পক্ষান্তরে প্রতিদিনই নতুন করে আক্রান্ত হচ্ছে করোনায়, বাড়ছে সংক্রমণ।  চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, করোনার দ্বিতীয় ওয়েভ মোকাবিলায় বাধ্যতামূলক মাস্ক পরিধান ও স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতে এক সপ্তাহ ধরে আটজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সকাল-বিকাল অভিযান পরিচালনা করছেন। প্রথম ধাপে সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত চারজন এবং দ্বিতীয় ধাপে ২টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত চারজন ম্যাজিস্ট্রেট অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানে এক সপ্তাহে অন্তত দুই শতাধিক মানুষকে জরিমানা করা হয়। এ ছাড়া গত এপ্রিল থেকে অক্টোবর পর্যন্ত দুই হাজার ২১১টি মামলায় দুই হাজার ২২৫ জনকে ৪১ লাখ ৮৩ হাজার ৪৮৫ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন বলেন, ‘করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় নানা উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। প্রথম হলো ‘মাস্ক ইজ  মাস্ট’। এটা নিশ্চিত করতে সকাল-বিকাল অভিযান, সরকারি সব অফিসে বাস্তবায়ন হয়েছে ‘নো মাস্ক নো সার্ভিস’ নীতি। জেলা প্রশাসনের আটজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সকাল-বিকাল রুটিন করে অভিযান পরিচালনা করছেন। এখন দরকার প্রত্যেককেই সর্বোচ্চ সচেতন হওয়া।’  চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. শেখ ফজলে রাব্বি বলেন, ‘প্রতিদিনই সংক্রমণের সংখ্যা বাড়ছে। বলা যায় করোনায় শীতকালীন সংক্রমণ শুরু হয়েছে।

তাই মাস্ক পরা এবং স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত সরকারি নির্দেশনা মেনেই জীবনাচার করতে হবে। সচেতন- সতর্ক থাকলে করোনা প্রতিরোধ করা সম্ভব।’  সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, করোনা সংক্রমণ দিন দিন বাড়লেও এ নিয়ে কোনো ভীতি-সতর্কতা, সচেতনতা দেখা যাচ্ছে না। সবার মধ্যে ‘নো টেনশন’ ভাব। সড়ক, গণপরিবহন, পতেঙ্গা সমুদ্রসৈকত, শিশুপার্ক, মার্কেট, দোকানপাট, হাটবাজার সর্বত্রই মাস্ক পরিধানের কোনো বালাই নেই। চলছে বিয়েসহ সামাজিক অনুষ্ঠান। গতকাল দুপুরে টেরিবাজার ও জহুর হকার মার্কেট ঘুরে দেখা যায়, অধিকাংশ ক্রেতা-বিক্রেতার মুখে মাস্ক নেই। কারও মধ্যে দেখা যায়নি করোনাভীতি। মার্কেটের দোকানদার কফিল উদ্দিন বলেন, ‘সংক্রমণ বাড়ছে সেটা বুঝি। তবে মাস্ক সব সময় পরে থাকি না। নিজের সতর্কতার জন্যও মাস্ক পরে থাকা উচিত।’


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর