শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৫ ডিসেম্বর, ২০২০ ২৩:৪৫

সিলেট ও বরিশালে নমুনা পরীক্ষা বন্ধ

বিপাকে বিদেশগামী যাত্রীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট ও বরিশাল

সিলেট ও বরিশালে নমুনা পরীক্ষা বন্ধ

সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেলের করোনাভাইরাস পরীক্ষার আরটি-পিসিআর মেশিন শুক্রবার থেকে বিকল। ফলে ওসমানীতে বন্ধ হয়ে গেছে করোনাভাইরাস শনাক্তে নমুনা পরীক্ষা। এতে চরম বিপাকে পড়েছেন বিদেশগামী যাত্রীরা। অন্যদিকে, বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজের আরটি-পিসিআর ল্যাবে করোনার নমুনা পরীক্ষা তিন দিন ধরে বন্ধ। মেশিনটি চালু হতে আরও ৮ থেকে ১০ দিন সময় লাগতে পারে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। জানা গেছে, সিলেট বিভাগের মধ্যে করোনাভাইরাসের পরীক্ষা প্রথম শুরু হয় ওসমানী মেডিকেল কলেজের আরটি-পিসিআর ল্যাবে। শুক্রবার থেকে এ ল্যাবে কোনো নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছে না। সিলেটের বিভিন্ন স্থান থেকে যেসব নমুনা আসছে, তা পাঠানো হচ্ছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পিসিআর ল্যাবে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. হিমাংশু লাল রায় বলেন, ‘ওসমানী মেডিকেলের আরটি-পিসিআর ল্যাবে শুক্রবার থেকে কাজ হচ্ছে না। এটির পাওয়ার সাপ্লাইয়ে সমস্যা দেখা দিয়েছে। ঢাকা থেকে টেকনিশিয়ানরা আসার কথা। তারা এলে দ্রুত সমস্যা সমাধান করে পুনরায় পরীক্ষা শুরু করা হবে।’

এদিকে, বিদেশগামী যাত্রীদের নমুনা পরীক্ষার জন্য সিলেট বিভাগের একমাত্র নির্ধারিত ল্যাব ওসমানী মেডিকেল কলেজ। তাদের নমুনা শাবির ল্যাবে পরীক্ষার অনুমতি নেই। এখন ওসমানীর ল্যাব বিকল হয়ে পড়ায় বিদেশগামী যাত্রীরা বিপাকে পড়েছেন। যারা ইতিমধ্যে পরীক্ষার জন্য রেজিস্ট্রেশন করেছেন কিংবা নমুনা দিয়েছেন, তারাই সবচেয়ে বিপাকে আছেন। তাদেরকে তড়িঘড়ি করে ছুটতে হচ্ছে ঢাকায়।

সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মন্ডল বলেন, ‘ওসমানীর ল্যাবে করোনাভাইরাস পরীক্ষা বন্ধ থাকায় বিদেশগামীদের এখন ঢাকায় গিয়ে পরীক্ষা করাতে হবে।

ওসমানীর ল্যাব পুনরায় চালু হলে এখানেই সবার পরীক্ষা করানো হবে।’ তিনি জানান, যেসব বিদেশগামী পরীক্ষার জন্য ফি দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করেছেন, তাদের টাকা ফেরত দেওয়া হবে।

শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজের আরটি-পিসিআর ল্যাবের প্রধান ও ভাইরোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. মো. আকবর হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার থেকে করোনা পরীক্ষা বন্ধ রয়েছে। ঢাকা থেকে প্রকৌশলীরা বরিশালে এসে বিকল যন্ত্রপাতি মেরামতের জন্য ঢাকায় পাঠানোর পরামর্শ দেন।

গতকাল সকালে মেশিনটি ঢাকায় পাঠানো হয়। মেশিনটি মেরামতে আগামী ৭ থেকে ১০ দিন সময় লাগতে পারে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

এদিকে শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. মুহাম্মদ আবদুর রাজ্জাক জানান, মেডিকেলে কলেজের পিসিআর ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা বন্ধ থাকলেও নমুনা সংগ্রহ অব্যাহত রয়েছে। নমুনা সংগ্রহ করে কিছু ঢাকায় এবং কিছু নমুনা পাঠানো হচ্ছে ভোলার পিসিআর ল্যাবে।

বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজে চলতি বছরের ৯ এপ্রিল থেকে পিসিআর ল্যাবে করোনার নমুনা কার্যক্রম শুরু হয়। এ পর্যন্ত ৪৬ হাজারের বেশি নমুনা পরীক্ষা হয় এই ল্যাবে। বরিশাল বিভাগে বরিশাল মেডিকেল কলেজ ছাড়া ভোলা জেলায় একটি পিসিআর ল্যাব রয়েছে।

 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর