শনিবার, ২৫ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ টা

সৈয়দ বদরুদ্দীন হোসাইন নাট্যোৎসবে তিন নাটক

সাংস্কৃতিক প্রতিবেদক

শিল্পকলা একাডেমিতে চলমান পদাতিক নাট্য সংসদের সৈয়দ বদরুদ্দীন হোসাইন স্মৃতি নাট্যোৎসবের দ্বিতীয় দিন গতকাল মঞ্চায়ন হয় তিন নাট্যদলের তিনটি নাটক। সন্ধ্যায় একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার তিন মিলনায়তনে একযোগে মঞ্চায়ন হয় নাটকগুলো। এর মধ্যে জাতীয় নাট্যশালার মূল মিলনায়তনে ঢাকা থিয়েটারের ‘একটি লৌকিক অথবা অলৌকিক স্টিমার’, পরীক্ষণ থিয়েটার হলে আয়োজক নাট্যদলের ‘গুণজান বিবির পালা’ ও স্টুডিও থিয়েটার হলে মঞ্চায়ন হয় আরণ্যক নাট্যদলের ‘কহে ফেসবুক’। এ সময়ের গল্প ও তথ্যপ্রযুক্তির নানা ইতিবাচক-নেতিবাচক দিক কেন্দ্র করে জাতীয় নাট্যশালার স্টুডিও থিয়েটারে মঞ্চস্থ আরণ্যকের ‘কহে ফেসবুক’ নাটকটির রচনা ও নির্দেশনায় ছিলেন মামুনুর রশীদ। অভিনয় করেন কামরুল হাসান, আরিফ হোসেন আপেল, রেজওয়ান পারভেজ, ডেভোরা সিলভিয়া কুইয়া ও সাবিকুন্নাহার কাঁকন। আজ সমাপনী সন্ধ্যায় দুই বছরের সৈয়দ বদরুদ্দীন হোসাইন স্মারক সম্মাননা একমঞ্চে প্রদান করা হবে। ২০২০-এর সম্মাননা স্মারক পাচ্ছেন পদাতিক নাট্য সংসদের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য আবু মুহাম্মাদ মুরতাইশ কচি (মরণোত্তর) এবং নাট্যকার, নির্দেশক ও সাংবাদিক কাজী রফিক। আর ২০২১ সালের সম্মাননা পাচ্ছেন অভিনেতা খায়রুল আলম সবুজ ও রাইসুল ইসলাম আসাদ। ‘সুন্দরম’-এর প্রকাশনা ও সংবর্ধনা : প্রকাশনা,  আলোচনা, সংবর্ধনা প্রদান ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে প্রতিষ্ঠার ১৭তম বর্ষ উদ্যাপন করেছে শিল্প, সাহিত্য, সংস্কৃতি, ঐতিহ্য বিষয়ক পত্রিকা ‘সুন্দরম’। বঙ্গীয় সাহিত্য-সংস্কৃতি সংসদের আয়োজনে সন্ধ্যায় শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য এ আয়োজন। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর পররাষ্ট্রবিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী। সুন্দরম সম্পাদক কামরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ। অনুষ্ঠানে ইন্দিরা গান্ধী কালচারাল সেন্টারের পরিচালক ড. নীপা চৌধুরীর হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন গওহর রিজভী।

গওহর রিজভী বলেন, ‘নীপা চৌধুরী খুবই বন্ধুসুলভ মানুষ। করোনার মধ্যেও তিনি যেভাবে অনলাইনে শিল্প-সংস্কৃতির আয়োজনগুলো এগিয়ে নিয়ে গেছেন তা প্রশংসার দাবিদার। আমি আশা করছি তিনি আবারও বাংলাদেশে আসবেন।’

অনুভূতি প্রকাশে ড. নীপা চৌধুরী বলেন, ‘বাংলাদেশ খুবই বন্ধুসুলভ ও ভালোলাগার দেশ। আমার পৈতৃক নিবাস কুমিল্লায় হওয়ায় আমি এখানে আসতে পেরে যতটা খুশি হয়েছি তার চেয়েও বেশি খুশি হয়েছেন আমার বাবা-মা।’ তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ এমন একটা দেশ যেখানে এত ভালোবাসা পাবে মানুষ, যা আর কোনো দেশে পাওয়া যাবে না।’ এ সময় আবেগে তিনি অশ্রু সংবরণ করতে পারেননি।

তাজউদ্দীন আহমদ বই উৎসব শুরু : স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে তাজউদ্দীন আহমদ বই উৎসবের আয়োজন করেছে শ্রাবণ প্রকাশনী, বইঅনলাইনবিডি ও বইবাড়ি। গতকাল বিকালে রাজধানীর পরিবাগের সংস্কৃতি বিকাশ কেন্দ্রে ১০ দিনের এ উৎসবের উদ্বোধন করেন তাজউদ্দীন আহমদের মেয়ে সিমিন হোসেন রিমি। অতিথি ছিলেন লেখক ও প্রকাশক মেসবাহউদ্দিন আহমেদ, মানিক মোহাম্মদ রাজ্জাক, সাবেক ছাত্রনেতা নাজমুল হক প্রধান ও শফি আহমেদ। ২ জানুয়ারি শেষ হবে এ বই উৎসব।

সর্বশেষ খবর