শিরোনাম
শনিবার, ২৯ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ টা

শেখ হাসিনার কারণে উত্তরবঙ্গে মঙ্গা শব্দটি আজ নিশ্চিহ্ন : শেখ পরশ

নিজস্ব প্রতিবেদক

যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশ বলেছেন, কোনো অজানা কারণে অতীতের কোনো সরকার কখনই উত্তরবঙ্গের উন্নয়ন ও মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের ব্যাপারে আগ্রহ দেখায়নি। শুধু বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা সরকারই উত্তরবঙ্গের মানুষের কথা চিন্তা করে। তাদের সুখ-শান্তি ও জীবনমান উন্নয়নের কথা ভাবে। একমাত্র শেখ হাসিনার কারণেই উত্তরবঙ্গে মঙ্গা শব্দটি আজ নিশ্চিহ্ন। গতকাল রাজধানীর বনানী মডেল স্কুলমাঠে অসহায়-দুস্থ মানুষের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় প্রায় ১ হাজার অসহায় শীতার্ত মানুষের মধ্যে কম্বল বিতরণ করে যুবলীগ। এ ছাড়া রংপুর অঞ্চলের শীতার্ত মানুষের জন্য ওই বিভাগের নয় জেলার নেতাদের কাছে কম্বল হস্তান্তর করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রেসিডিয়াম সদস্য রফিকুল ইসলাম, আবুল কালাম মো. আহসানুল হক চৌধুরী, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক বিশ্বাস মুতিউর রহমান বাদশা, রফিকুল আলম জোয়ার্দার, সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী মাজহারুল ইসলাম, সোহেল পারভেজ, প্রফেসর ড. রেজাউল কবির, ঢাকা মহানগরী উত্তরের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকির হোসেন বাবুল, দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাইন উদ্দিন রানা প্রমুখ।

উত্তরের সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন, দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা, প্রচার সম্পাদক জয়দেব নন্দী, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন পাভেল প্রমুখ।

যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন, সোনার বাংলা কায়েম করার লক্ষ্যে ১৯৭৫ সালের এই জানুয়ারিতেই জাতির পিতা সংবিধানের চতুর্থ সংশোধনী এনেছিলেন। যেটা দ্বিতীয় বিপ্লব হিসেবে পরিচিত, অনেকে বাকশাল হিসেবেও জানেন। কিন্তু আমরা এ দ্বিতীয় বিপ্লবের অন্তর্মূলের তাৎপর্য ভুলে যাই। এর মূলে ছিল মানুষের ন্যায্য অধিকার আদায়, ন্যায়পরায়ণ সমাজব্যবস্থা কায়েম এবং মানবিকতা। আমরা চতুর্থ সংশোধনী বা বাকশাল নিয়ে কেউ কেউ বিব্রতবোধ করি, কেউ কেউ এড়িয়ে যেতে চাই। কিন্তু বিষয়টি পাশ কাটিয়ে যাওয়ার নয়। আমি এ বিষয়টি নিয়ে আজ কিছু কথা বলব।

তিনি বলেন, দ্বিতীয় বিপ্লব আমাদের ইতিহাসের একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। প্রথমত, বঙ্গবন্ধু বাকশাল বা তাঁর দ্বিতীয় বিপ্লবের কর্মসূচি গ্রহণ করেছিলেন জাতীয় সংসদে বিপুল ভোটে পাস করে। সামরিক ফরমান জারি করেও করেননি বা ‘হ্যাঁ-না’ ভোটের মাধ্যমেও করেননি। বাকশাল গঠন নিয়ে বঙ্গবন্ধুর সে সময়ের বক্তব্য তুলে ধরে পরশ বলেন, শোষিতের গণতন্ত্রই ছিল বঙ্গবন্ধুর লক্ষ্য- এ কথা তো তিনি নিজেই বলেছেন। শোষিতের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে এটা ছিল তাঁর দ্বিতীয় বিপ্লব। তাঁকে হত্যা করার পর বিবিসি এক সংবাদভাষ্যে বলেছিল, ‘পৌনে দুই শ বছরের ইংরেজ ঔপনিবেশিক শাসনের পর এই প্রথম শেখ মুজিব এক নতুন ধরনের স্থানীয় সরকারভিত্তিক শাসনকাঠামো গড়ার উদ্যোগ নিয়েছিলেন।’

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর