শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৯ এপ্রিল, ২০২১ ২৩:২৩

স্কুল মাঠে বালুর ব্যবসা

পঞ্চগড় প্রতিনিধি

স্কুল মাঠে বালুর ব্যবসা

করোনাকালীন সময়ে স্কুল বন্ধ। এই সুযোগ নিয়ে পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার বদেশ্বরি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও বদেশ্বরি আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে চলছে বালির ব্যবসা। স্থানীয় বালু ব্যবসায়ীরা মাঠ দখল করে স্তূপ করেছে। সেখান থেকে প্রতিদিন ট্রাকে করে বালু বিক্রি করছেন তারা। বালু ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে পাশেই প্রবাহমান করোতোয়া নদী থেকে বালু উত্তোলন করে ওই দুই স্কুল মাঠে স্তূপ করছেন। মাঠের দক্ষিণ পাশে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। পূর্ব পাশে হাই স্কুল। দুই স্কুলের মাঠে বালুর স্তূপ করায় মাঠের ঘাস মরে যাচ্ছে। অন্যদিকে মাঠ হয়ে পড়েছে ধূলিময়। পরিবেশ নষ্টের পথে। ব্যবসায়ীরা বলছেন অল্প কিছুদিনের জন্য মাঠটি ব্যবহার করছেন তারা। ব্যবসায়ী আছর আলী জানান, আগে রাস্তার পাশে বালু রাখতাম। এখন রাস্তা পাকাকরনের কাজ চলছে। তাই স্কুল কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে আমরা কিছু ব্যবসায়ীরা অল্প কিছুদিনের জন্য মাঠটি ব্যবহার করছি। এক সপ্তাহের মধ্যে মাঠটি খালি করে দেব। স্থানীয়রা বলছেন এই মাঠে আগে খেলাধুলা হতো। স্কুলের দুরন্ত শিক্ষার্থীরা ছুটোছুটি করত। অন্যসময় স্থানীয় লোকজন আড্ডা দিত। এখন বালু ব্যবসায়ীরা মাঠটি দখল করে বিশাল স্তূপ গড়ে তোলার ফলে মাঠটি নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। তারা বলছেন মাঠটি আবার আগের অবস্থায় ফিরে আসুক। স্কুল মাঠে বালুর ব্যবসা হওয়ায় বিষয়টি কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না তারা। ব্যবসায়ীরা প্রভাবশালী হওয়ায় কেউ মুখ খুলতে পারছেন না। তাদের অভিযোগ স্কুল কর্তৃপক্ষ ও ব্যবসায়ীরা যোগসাজসে এই ব্যবসা করছেন। অবশ্য এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন বদেশ্বরি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম।

তিনি জানান, ব্যবসায়ীরা মাঠে বালি রাখার জন্য আমাকে অনুরোধ করেছিল। কিন্তু আমি তাদেরকে বালু রাখতে নিষেধ করেছিলাম। বদেশ্বরী গ্রামের রাজকুমার জানান, স্কুল মাঠে বালুর স্তূপ করে মাঠটি নষ্ট করে ফেলেছে। বোদা উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মাসুদ হাসান জানান, আমি মাঠটি পরিদর্শনে গিয়েছিলাম। তারা দুটি স্কুলের মাঠে বালুর স্তূপ করে ব্যবসা করছেন। নিষেধ করা  হয়েছে। তারপরও  ব্যবসা করলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এই বিভাগের আরও খবর