শিরোনাম
প্রকাশ : ১৭ জুন, ২০১৯ ১৯:৫৩

শ্যালককে খুন করে মাছের গাড়ি নিয়ে উধাও!

কুমিল্লা প্রতিনিধি:

শ্যালককে খুন করে মাছের গাড়ি নিয়ে উধাও!

পুকুর থেকে মাছ ধরে ভগ্নিপতির পিকআপ যোগে শহরে মাছ বিক্রির জন্য যাচ্ছিলো কামাল হোসেন (৩৪)। পথে তাকে খুন করে গাড়িসহ মাছ নিয়ে ভগ্নিপতি নিজাম উদ্দিন (৪৫) উধাও হয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। 

কুমিল্লা নগরীর চাঁনপুর ব্রিজ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত কামাল হোসেন জেলার বুড়িচং উপজেলার কোরপাই গ্রামের হাজী আবদুল মতিনের ছেলে। সোমবার তার লাশের ময়নাতদন্ত হয়েছে।

নিহতের বড় ভাই কবির হোসেন জানান, রবিবার রাতে তাঁর ছোট ভাই কামাল হোসেন, ভগ্নিপতি নিজাম উদ্দিনকে সাথে নিয়ে বাড়ির পুকুরে জাল ফেলে মাছ ধরে। মাছগুলো বেশি দামে বিক্রির জন্য ভোর ৪ টায় কামাল হোসেন তার আপন ভগ্নিপতি নিজাম উদ্দিনকে সাথে নিয়ে পিকআপ যোগে কুমিল্লা নগরীর চকবাজারের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। ভোর সাড়ে ৫ টায় ভগ্নিপতি নিজাম উদ্দিন নিহত কামালের বড় ভাই কবির হোসেনকে ফোন দিয়ে জানান, চাঁনপুর ব্রিজ এলাকায় তাঁদের মাছের গাড়ি দুর্ঘটনায় কবলিত হয়েছে। এ খবরে কবির হোসেন ঘটনাস্থলে এসে ব্রিজের উপর কামাল হোসেনকে পড়ে থাকতে দেখেন। আশে-পাশে দুর্ঘটনা কবলিত কোন পিকআপ না দেখে তিনি ভগ্নিপতি নিজামকে ফোন দেন। এসময় নিজামের মোবাইলফোন বন্ধ পাওয়া যায়। কিছুক্ষণের মধ্যে টহল পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে আসলে পুলিশের সহযোগিতায় কামাল হোসেনকে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনার পর থেকে ভগ্নিপতি নিজামের কোন খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। নিজামের বাড়ি জেলার আদর্শ সদর উপজেলার পাঁচথুবী ইউনিয়নের মিরপুর গ্রামে গিয়েও তাঁর কোন সন্ধান মেলেনি। সে মিরপুর গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে। কবির হোসেনের দাবি কামাল হোসেনকে নিজাম উদ্দিন হত্যা করেছে। কামালের মাথায় ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। নিজাম কয়েকটি ডাকাতি মামলার আসামি। 

এ বিষয়ে কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার ওসি আবদুস ছালাম মিয়া জানান, পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করেছে। ঘটনার বিষয়ে পুলিশ তদন্ত করছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার


আপনার মন্তব্য