শিরোনাম
প্রকাশ : ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ২১:৩২

মালটা চাষে ঝুঁকছে বেগমগঞ্জের প্রান্তিক কৃষকরা

নোয়াখালী প্রতিনিধি

মালটা চাষে ঝুঁকছে বেগমগঞ্জের প্রান্তিক কৃষকরা

মালটা চাষে ঝুঁকছে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার প্রান্তিক কৃষক ও বেকার যুবকরা। কৃষি বিভাগের সহযোগিতায় পতিত জমিতে মালটা চাষ করে অনেকে দেখছেন লাভের মুখ। সফলতা দেখে এগিয়ে আসছেন অনেক প্রান্তিক কৃষক ও বেকার যুবক। আর উদ্যোক্তা সৃষ্টিতে প্রান্তিক কৃষক ও বেকার যুবকদের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছে প্রশাসন।

মালটা ফল উৎপাদন বাড়াতে বিগত ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে বেগমগঞ্জ উপজেলা কৃষি বিভাগ রাজস্ব খাত থেকে ১০টি মালটা বাগান করার বরাদ্দ পায় উপজেলা কৃষি বিভাগ। এরই আলোকে উপজেলার কুতুবপুর গ্রামের প্রান্তিক কৃষক সেলিমসহ ১০ জন প্রান্তিক কৃষক ও বেকার যুবককে বরাদ্দ প্রদান করে চারা, সারসহ বিভিন্ন উপকরণ দিয়ে সহযোগিতা করা হয়।

কৃষি বিভাগের পরামর্শ মতে, পতিত জমিতে মালটা চাষ করেন অনেকে। বর্তমানে উপজেলায় ৫০টি মালটা বাগান রয়েছে। লাভের মুখ দেখছেন অনেক মালটা চাষি। সফলতা দেখে এগিয়ে আসছেন অনেক প্রান্তিক কৃষক ও বেকার যুবক। অনেকে মালটা চাষ করার আগ্রহ প্রকাশ করছেন। 

কুতুবপুরের মালটা চাষি ইব্রাহিম সেলিম জানান, আমরা কৃষি বিভাগের সহযোগিতায় মালটা চাষ করেছি। আমার খরচ হয়েছে ২০ হাজার টাকা। ফল বিক্রি ৫০ হাজার টাকা মতো হওয়ার আশা করছি। আগামীতে আরও লাভের সম্ভাবনা রয়েছে। 

বেগমগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার রেজাউল করিম ভূঁইয়া জানান, আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এ অঞ্চলে মালটা চাষে বিপ্লব ঘটবে এবং দেশীয় চাহিদা মিটিয়ে বিদেশেও রফতানি করা সম্ভব হবে। 

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর