শিরোনাম
প্রকাশ : ৩১ মে, ২০২১ ১৭:১০
প্রিন্ট করুন printer

চাঁদপুরের নদীতে নেই ইলিশ, জেলেরা ফিরছে খালি হাতে

চাঁদপুর প্রতিনিধি

চাঁদপুরের নদীতে নেই ইলিশ, জেলেরা ফিরছে খালি হাতে
ফাইল ছবি
Google News

ভরা মৌসুমেও চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনা নদীতে ইলিশের দেখা মিলছে না। কাঙ্ক্ষিত ইলিশ না পেয়ে জেলেরা হতাশ হয়ে নৌকা নিয়ে তীরে ফিরেছেন। চাহিদা অনুযায়ী আমদানি না থাকায় মৎস্য আড়ত জমে উঠছে না।

সাগরের ইলিশে বিগত ২/৩দিন কিছুটা সরগরম ছিল বড়স্টেশন মাছঘাট। ব্যবসায়ী, শ্রমিক ও জেলেদের মধ্যে ছিল কর্মব্যস্ততা। অন্যদিনের তুলনায় ইলিশের আমদানি বেশি থাকায় খুশি সবাই। তেমন ক্রেতা পাওয়া না গেলেও হাক-ডাকে গরম ছিল মাছঘাট।

ব্যবসায়ী হাজী আবদুল খালেক মাল বলেন, ২০ মে থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত দেশের সামুদ্রিক জলসীমায় সবধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ। নিষিদ্ধ সময়ের পূর্বে সাগরে আহরণকৃত ইলিশগুলো চাঁদপুর ঘাটে এসেছে। এরপর আর কোন ইলিশ ঘাটে আসবে না। এখানকার ৭শ থেকে ৯শ গ্রামের ইলিশ প্রতিমণ ৩০ থেকে ৩৫ হাজার টাকা বিক্রি হচ্ছে। ঘাটে সামান্য যা ইলিশ আসছে, সব সাগরের। পদ্মা-মেঘনায় ইলিশ নেই বললেই চলে। সাগরের ইলিশে আমরা খুশি নই। চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনার ইলিশ পেলে সবাই খুশি হবো। আশা করি সামনে পদ্মা-মেঘনায় ইলিশ পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

ইলিশ গবেষক ড. আনিছুর রহমান জানান, এখন যে ইলিশ আসছে তাতে বুঝা যাচ্ছে সরকারি বিভিন্ন অভিযান সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। যদিও আগস্ট-সেপ্টেম্বর হচ্ছে ইলিশের ভরা মৌসুম। গত বছর দেশে ৫ লাখ ৩৩ হাজার মেট্রিক টন ইলিশ উৎপাদন হয়েছে। সে হিসেবে এবছর উৎপাদন সাড়ে ৫ লাখ মেট্রিক টন ছাড়িয়ে যাবার আশা করছি। গত কয়েক বছর গড়ে ১০/১২ হাজার মেট্রিক টন করে উৎপাদন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

বিডি-প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন

এই বিভাগের আরও খবর