২৭ আগস্ট, ২০২১ ১৬:০৭

সিরাজগঞ্জে বন্যাকবলিত দুর্ভোগ বাড়ছে

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জে বন্যাকবলিত দুর্ভোগ বাড়ছে

বন্যাকবলিত দুর্ভোগ বাড়ছে

ঘরে কোমর পানি। রাত জেগে বসে থাকতে হয়। তলিয়ে গেছে চুলা। রান্না করা কষ্টকর। একবেলা রান্না করে তিনবেলা খেতে হয়। টিউওয়েব তলিয়ে গেছে। বিশুদ্ধ পানি আনতে হলে গলা পানি পার করে যেতে হয়। এক কলস পানি এনে একদিন চলতে হয়। বাথরুম তলিয়ে গেছে। 

যারা ঘর ছেড়ে ওয়াপদা বাঁধে আশ্রয় নিয়েছে তাদের বৃষ্টি যেন মরার উপর খরার ঘা হয়ে দাঁড়িয়েছে। বৃষ্টিতে সাপের ভয়ে রাত জেগে ঘরে কোণে ঘাপটি মেরে বসে থাকতে হয়। গত কয়েকদিন যাবত যমুনার পানি বেড়ে বিপদসীমার ১৬ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় এমন কষ্টে দিন কাটাচ্ছে সিরাজগঞ্জের বন্যাকবলিত মানুষ। 

বন্যাকবলিত মানুষের পাশে দাঁড়ায়নি কোনো সংস্থা। অন্যদিকে, পানি বাড়ায় যমুনার অরক্ষিত তীরে তীব্র ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। ভাঙ্গনে প্রতিদিন বিলীন হচ্ছে বসত ভিটাসহ ফসলি জমি। 

শহরের পুঠিয়াবাড়ী মহল্লার পানিববন্দী জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, একদিকে বন্যা অন্যদিকে কর্ম নেই। পরিবার পরিজন নিয়ে খুব কষ্টে দিন যাচ্ছে। কৃষক আব্দুর রাজ্জাক জানান, বন্যার কারণে ধান তলিয়ে গেছে। এতে লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। 

সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী নাসির উদ্দিন জানান, বর্তমানে বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে পানি। আগামী ৫ তারিখ পর্যন্ত যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি পাবে। 

সিরাজগঞ্জ ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা আব্দুর রহিম জানান, প্রতিটি উপজেলায় চাউল ও নগদ অর্থ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। দুই-একদিনের মধ্যে বিতরণ শুরু হবে। 

 

বিডি প্রতিদিন / অন্তরা কবির 

এই বিভাগের আরও খবর