Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২২:২২

চলচ্চিত্র নির্মাণে অঞ্জনা

শোবিজ প্রতিবেদক

চলচ্চিত্র নির্মাণে অঞ্জনা

অভিনেত্রী অঞ্জনার অভিনয় জীবনের ৪০ বছর পূর্ণ হলো আজ। ১৯৭৬ সালের এই দিনে  শামসুদ্দীন টগর পরিচালিত ‘দস্যু বনহুর’ ছবির মাধ্যমে তিনি চলচ্চিত্রে আসেন। চলচ্চিত্র জগতে আসার আগে তিনি একজন নামি নৃত্যশিল্পী ছিলেন।

অঞ্জনা দুই শতাধিক ছবিতে অভিনয় করেছেন। ‘পরিণীতা’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে জাতীয় পুরস্কার লাভ করেন। উল্লেখযোগ্য ছবি হলো- দস্যু বনহুর, গুনাই বিবি, পরিণীতা,  অশিক্ষিত, গাংচিল, রাজবাড়ী, নূরী, মাটির মায়া, সেতু, সুখের সংসার, অন্ধবধূ, যাদুনগর, রূপালি সৈকত, বৌরানী প্রভৃতি। জন্ম ২৭ জুন ১৯৬৫। তার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র সেতু (১৯৭৬), কিন্তু তার পর্দায় অভিষেক হয় দস্যু বনহুর (১৯৭৬) চলচ্চিত্র দিয়ে। অঞ্জনা তার অসাধারণ নৃত্য হৃদয়ছোঁয়া মনোমুগ্ধকর সাবলীল অভিনয় দিয়ে কোটি দর্শকের মনে জায়গা করে  নেন। পরিণীতা ও রাম রহিম জন ছবির জন্য দুইবার বাচসাস পুরস্কার লাভ করেন। ‘ফুলেশ্বরী’ নামে একটি চলচ্চিত্রও প্রযোজনা করেন তিনি। তার একমাত্র ছেলের নাম মনি। ছোটবেলা থেকে নৃত্যের প্রতি তার আগ্রহের কারণে তার বাবা-মা তাকে নৃত্য শিখতে ভারতে পাঠান। সেখানে তিনি ওস্তাদ বাবুরাজ হীরালালের অধীনে নাচের তালিম নেন এবং কত্থক নৃত্য শিখেন। নৃত্যে দুইবার জাতীয় পুরস্কারও লাভ করেন তিনি। বর্তমানে অঞ্জনা চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন ও সমাজসেবা নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। শিগগিরই নতুন চলচ্চিত্র নির্মাণে আসছেন তিনি।


আপনার মন্তব্য