শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১ নভেম্বর, ২০১৯ ২৩:৫৩

ইন্টারভিউ → লিলি ইসলাম

নতুন শিল্পীরা গাইতে চায় কিন্তু সাধনা করতে চায় না

রবীন্দ্রসংগীত সংগঠন ‘উত্তরায়ণ’-এর নবম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ। এ উপলক্ষে ‘ইউরোপে রবীন্দ্রনাথ’ শিরোনামে একটি অনুষ্ঠান হবে সন্ধ্যায় শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের প্রধান মিলনায়তনে। গান ও সমসাময়িক নানা বিষয় নিয়ে আজ প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক লিলি ইসলামের সঙ্গে কথা বলেছেন -আলী আফতাব

নতুন শিল্পীরা গাইতে চায় কিন্তু সাধনা করতে চায় না

নয় বছরের প্রত্যাশা ও প্রাপ্তি নিয়ে কিছু বলুন?

একটা প্রতিষ্ঠানের জন্য নয় বছর অনেক বেশি সময় নয়। আমরা এ সময়ের মধ্যে চেষ্টা করেছি ভালো কিছু অনুষ্ঠান করার। আর তাতে আমরা অনেক সফলও হয়েছি। করণ মানুষ এখন জানতে চায়, আমরা ‘উত্তরায়ণ’ নিয়ে কী কী করতে যাচ্ছি। মানুষের আগ্রহের জায়গাটা আমরা এ সময়ের মধ্যে তৈরি করতে পেরেছি।

 

এবারের অনুষ্ঠানের প্রতিপাদ্য ইউরোপে রবীন্দ্রনাথ। এ বিষয়ে একটু জানতে চাই?

প্রতি বছরই রবীন্দ্রনাথ ও তার গানকে আমরা নানাভাবে দর্শক-শ্রোতাদের সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করি। সেই ধারাবাহিকতায় এবারের আয়োজন সাজিয়েছি তার ইউরোপ ভ্রমণের সময়ে রচিত গানগুলো দিয়ে। কবিগুরু অসম্ভব ভ্রমণপিপাসু মানুষ ছিলেন। শুধু ভ্রমণই করতেন তা নয়, যখন যে দেশে গেছেন সে দেশ সম্পর্কে যথেষ্ট অবহিত হয়েছেন। তার লেখনিতে সে দেশের সমাজ, রাজনীতি, প্রকৃতি ও মানুষের সঙ্গে তার সম্পর্ক নানাভাবে উঠে এসেছে। আমরা এবার চেষ্টা করেছি তার ইউরোপ ভ্রমণকালে রচিত গান ও গল্প সবার সামনে তুলে ধরার।

 

যে স্বপ্ন নিয়ে ‘উত্তরায়ণ’-এর যাত্রা শুরু করেছিলেন তার কতটা পূরণ হয়েছে?

অনেক কিছুই ভাবি। অনেক কিছুই করতে চেষ্টা করি। কিন্তু সব স্বপ্ন তো আর পূরণ হয় না। তবে এ অল্প সময়ের মধ্যে আমরা প্রতিষ্ঠানটি সম্পর্কে মানুষের মনে একটি আগ্রহের জায়গা তৈরি করতে পেরেছি, এটা আমাদের কাছে অনেক বড় পাওয়া। এ ছাড়া আগামী ১০ ডিসেম্বর থেকে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত একটি কর্মশালার আয়োজন করতে যাচ্ছি।

এ কর্মশালায় ক্লাস নেবেন পশ্চিমবঙ্গের বিশিষ্ট কণ্ঠশিল্পী ও গীতিকার আলক রায় চৌধুরী। তিনি বাংলা গানের নানা বিষয় নিয়ে ক্লাস নেবেন। 

 

রবীন্দ্রনাথের গানের প্রতি নতুনদের আগ্রহ কেমন?

এখন নতুন শিল্পীরা গান গাইতে চায় কিন্তু গান গাইতে হলে যে সাধনা বা পরিশ্রম করতে হয়, তা নতুন শিল্পীরা করতে চায় না। এর পেছনে আরও একটি কারণ আছে। এখন নতুন শিল্পীরা অল্প কাজ করে যে পরিমাণ প্রচারণা পায় সে কারণে তারা আর বেশি পরিশ্রম বা সাধনা করতে চায় না। আগে যেমন একমাত্র টিভি চ্যানেল ছিল বিটিভি। সেখানে সুযোগ পাওয়ার জন্য নিজেকে অনেক প্রস্তুত করতে হতো। এখন অনেক চ্যানেল। সহজেই সুযোগ মেলে। আর তাই সাধনার বিষয়টা নেই। নিজেকে তৈরি করার জায়গাটাও কমে গেছে। এটা খুব ভালো লক্ষণ নয়। কিন্তু সম্ভাবনাময় শিক্ষার্থী অনেক আছে।

 

শুনেছি উত্তরায়ণ সংগঠন থেকে একাডেমিতে রূপান্তর হচ্ছে?

হ্যাঁ। আগামী বছর জানুয়ারির প্রথম শুক্রবার উত্তরায়ণ সংগঠন থেকে একাডেমিতে  রূপান্তর হচ্ছে। এটা আমাদের অনেক দিনের সাধনা ছিল।


আপনার মন্তব্য