শিরোনাম
প্রকাশ : ২৮ নভেম্বর, ২০২০ ১৪:২৬
প্রিন্ট করুন printer

‘ছবি নির্বাচনে শাকিবকে আরও সাবধানি হতে হবে’

দীপঙ্কর দীপন

‘ছবি নির্বাচনে শাকিবকে আরও সাবধানি হতে হবে’
শাকিব খান ও দীপঙ্কর দীপন

আমাদের হিরো। দুর্দান্ত ফিটনেসে,  দুর্দান্ত কনসেপ্টে ফিরে আসার জন্য অনেক অভিনন্দন। শাকিব ভাই, আপনি হিরো ছিলেন, হিরো আছেন, হিরো থাকবেন। আপনি ফুল অফ হিরো ম্যাটেরিয়াল। শুধু ছবি নির্বাচনে আরও সাবধানি হন। বুক ফুলিয়ে প্রতিটি বাংলাদেশি বলতে চায়, শাকিব খান আমাদের হিরো। কারণ  আপনি আমাদের সুপারস্টার, আপনি আমাদের সালমান, শাহরুখ, আমির, অজয়...

(ব্রাদারস অ্যান্ড সিস্টারস, এর সাথে শাকিব খানকে কাস্ট করার কোন সম্পর্ক নাই। সামনে কোন পরিকল্পনাও নাই। আগের বারের পোস্টে অনেকেই অবাক হয়েছিল, শাকিব ভাই নিজেও... দীপন ভাই কেন ভাল ভাল কথা বলছে, কারণ উনি তো ভাল করে জানেন কোন কারণ নাই। কিন্তু  সাধারণত বঙ্গদেশে স্বার্থ ছাড়া কেউ প্রশংসা তো করে না। যেখানে অন্য হিরোর ফ্যানদের কাছে উল্টো পাল্টা কথা শোনার নিশ্চয়তা ১০০ ভাগ। স্বার্থ তো কিছু একটা আছেই... আমার ম্যানুফ্র্যাকচারিং ডিফেক্ট আছে... আমার স্বার্থগুলো উল্টোপাল্টা হয়..  হুমম, স্বার্থ একটা আছে তো বটেই- তবে সেটা সবার স্বার্থ। বাংলাদেশকে ব্র্যান্ডিং করার  সার্থ। শাকিব ভাইয়ের মধ্যে সেই সম্ভাবনা আছে- অল্প কিছু মানুষের মধ্যেই সেই সম্ভাবনাটা থাকে।

পুনশ্চ : ইশ! আজকে পোস্ট হিট হিট হতে হতে ফসকে গেল। এই কারণে ব্যাখ্যা ট্যাখ্যা দেই না। শেয়ার, কমেন্টস কমে যায়। ধুর...

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১০:৫৪
আপডেট : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১১:৪৩
প্রিন্ট করুন printer

দক্ষিণ আফ্রিকার করোনার ভ্যারিয়েন্ট দুশ্চিন্তায় ফেলেছে গবেষকদের

শওগাত আলী সাগর

দক্ষিণ আফ্রিকার করোনার ভ্যারিয়েন্ট দুশ্চিন্তায় ফেলেছে গবেষকদের
শওগাত আলী সাগর

যুক্তরাজ্যে কোভিডের নতুন ধরন (ইউকে ভ্যারিয়েন্ট) নিয়ে দুশ্চিন্তাটা কাটিয়ে উঠেছিলেন বিজ্ঞানীরা। ফাইজার-বায়োএনটেক নিশ্চিত করেছে- তাদের টিকা এই ভ্যারিয়েন্টকে নিউট্রালাইজ করতে সক্ষম। কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকার ভেরিয়েন্টটা তাদের নতুন করে চিন্তায় ফেলে দিয়েছে। কোভিডের ‘দক্ষিণ আফ্রিকা ভ্যারিয়েন্ট’ ইউকে ভ্যারিয়েন্ট থেকে আলাদা বলে জানাচ্ছেন গবেষকরা। এখন পর্যন্ত গবেষকদের তথ্য, দক্ষিণ আফ্রিকার ভ্যারিয়েন্টটা মানুষের সংক্রমণ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে কমিয়ে দেয়। আর এ নিয়েই তাদের দুশ্চিন্তা।

ইউকে ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে সারা দেশে যতটা তোলপাড় হয়েছিলো, দক্ষিণ আফ্রিকা নিয়ে ততোটা হৈ চৈ এখনো শুরু হয়নি। তবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইতিমধ্যে সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নিযেছে। কাছাকাছি সময়ে দক্ষিণ আফ্রিকা ভ্রমণ করেছেন- এমন বিদেশিদের আমেরিকায় প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাইডেন প্রশাসন।

আমেরিকার এই নিষেধাজ্ঞার সিদ্ধান্তে ব্রাজিল, ইউকেসহ ২৬টি দেশ রয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। তবে বাইডেন প্রশাসনকে উদ্বিগ্ন করেছে দক্ষিণ আফ্রিকার পরিস্থিতি।অন্যান্য দেশও নিশ্চয় দক্ষিণ আফ্রিকার ভ্রমণকারীদের ব্যাপারে সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নেবে।

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

লেখক: প্রকাশক ও সম্পাদক, নতুন দেশ ডটকম

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৩ জানুয়ারি, ২০২১ ১৮:০০
প্রিন্ট করুন printer

আমার কাছে সাফল্যের আরেক নাম নায়করাজ রাজ্জাক : শাকিব খান

শাকিব খান

আমার কাছে সাফল্যের আরেক নাম নায়করাজ রাজ্জাক : শাকিব খান

কর্ম, ব্যক্তিত্বে সফলভাবে একটা জীবন পার করে গেছেন। যা সবসময় আমার কাছে অনুসরণীয়। তাই চলচ্চিত্রে আমার কাছে সাফল্যের আরেক নাম নায়করাজ রাজ্জাক।

আমি সত্যিই ভাগ্যবান যে খুব কাছে থেকে আপনার দোয়া, স্নেহ ও নির্দেশনা পেয়েছি। কোটি বাঙালি ভালোবাসায় আপনাকে রাজার আসনে বসিয়েছেন। 

মৃত্যুর পরেও আপনি হয়ে আছেন আমাদের হৃদয়ে চিরদিনের নায়করাজ। ৭৯তম জন্মদিনে পরম শ্রদ্ধা হে প্রিয় কিংবদন্তি।

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২২ জানুয়ারি, ২০২১ ২১:২৫
প্রিন্ট করুন printer

করোনার টিকা পৃথিবীর কোনো দেশেই বাধ্যতামূলক না

শওগাত আলী সাগর

করোনার টিকা পৃথিবীর কোনো দেশেই বাধ্যতামূলক না
শওগাত আলী সাগর

করোনার টিকা পৃথিবীর কোনো দেশেই বাধ্যতামূলক না। এটি প্রত্যেকের চয়েস। আপনি চাইলে এটি নিতে পারেন, না চাইলে না নিতে পারেন। বিজ্ঞানে যাদের আস্থা আছে, তারা টিকা নিচ্ছেন। যাদের আস্থা নেই, তারা নিচ্ছেন না। আপনিও আপনার পছন্দের জায়গায় দাঁড়িয়ে যেতে পারেন। 

কিন্তু টিকা নিয়ে মানুষের মধ্যে সংশয় তৈরির চেষ্টা আপনি করতে পারেন না। 

আপনার কাছে যদি এর কার্যকারিতা সম্পর্কে বৈজ্ঞানিক তথ্য উপাত্ত না থাকে, তাহলে টিকা নিয়ে মানুষকে নিরুৎসাহিত করতে পারেন না। সেটি আপনার এখতিয়ারের বাইরে।

মহামারী নিয়ে, মানুষের জীবন মরণের ইস্যু নিয়ে রাজনীতি করাটা ঘৃণিত অপরাধ। রাজনীতির ব্যবসায়ীরা সব কিছু নিয়েই ব্যবসা করে, মানুষের জীবন মৃত্যু নিয়েও। টিকা নিয়েও।

(লেখকের ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

বিডি প্রতিদিন/আরাফাত


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২২ জানুয়ারি, ২০২১ ১১:২৭
আপডেট : ২২ জানুয়ারি, ২০২১ ১৫:৩৮
প্রিন্ট করুন printer

অন্তত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রতীক না থাকা উচিৎ

আনিসুর রহমান মিঠু

অন্তত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রতীক না থাকা উচিৎ
আনিসুর রহমান মিঠু

স্থানীয় সরকারের সর্বনিম্ন ধাপ হচ্ছে ইউনিয়ন পরিষদ। মানুষ সেখানে স্থানীয় ভাবে জনপ্রিয়, সৎ, আঞ্চলিকতা, আত্মীয়তা ইত্যাদি বিবেচনা করে ভোট দিয়ে প্রতিনিধি বানাতে পছন্দ করে।

ইউনিয়ন পরিষদের ভোট মানে গ্রামাঞ্চলে প্রাণের সঞ্চার, উৎসবমুখরতা, রাত জেগে চায়ের আড্ডা। ইউনিয়নের অনেক বাসিন্দা আছেন, যারা ইউনিয়নটাকেই পৃথিবী ভাবেন। মামলায় পড়লে কিংবা মামলা করতে তারা জীবনে দুই-চার বার শহরে আসেন, আর মরার আগে একবার হাসপাতালে যাবার জন্য শহরে আসেন। 

এই সহজ সরল মানুষদের ভোটদানের ক্ষমতা খর্ব হলে তারা অনেক ব্যাথিত হন। তারা কতটা তুচ্ছ এবং অসহায় তা বুঝতে পারেন। 

তারা চায় তাদের ভোটে চেয়ারম্যান মেম্বার হবে এবং তাদের কথামতো এরা চলবে। তাদের উপর খবরদারী করা চেয়ারম্যান মেম্বার তারা চান না।

দলীয় মনোনয়ন চালু হওয়ায় সে ক্ষেত্রটি সংকুচিত হয়ে যাচ্ছে। দলের উচ্চ পর্যায় থেকে বেশি ভাগ এলাকাতেই নিম্ন মানের নেতা পছন্দ করে, মনোনয়ন দেয়া হচ্ছে।

জনপ্রিয়রা কোনঠাসা হয়ে পড়ছে দিনের পর দিন। দলীয় প্রতীকে নির্বাচিত চেয়ারম্যান সাহেবেরা কেউ কেউ, তার এলাকায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতিনিধি হিসেবে নিজেকে জাহির করছে।

চেয়ারম্যান সাহেবদের অপকর্মের ভাগ কিছুটা হলেও দলের জনপ্রিয়তা বিনষ্টে ভূমিকা রাখছে  তারা নির্বাচিত হওয়ার পর আরো বেশি অ-জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

চেয়ারম্যান সাহেবদের অনেকেরই এখন বড় চাকার গড়ি আছে! ঢাকায় বাড়ি আছে। থানায় বেস কদর আছে। 

তাদের দাপটে ভদ্রলোকরা সেচ্ছায় এলাকা ছেড়ে শহরে গিয়ে ভাড়া বাসায় থাকছে। রাজনীতি থেকে দূরে সরে যাচ্ছে।

বৈধ ব্যবসার পাশা পাশী, অবৈধ ব্যবসাও কে কিভাবে করবে, সে বিষয়েও কোন কোন চেয়ারম্যান পরামর্শ দিয়ে থাকেন বলে শুনা যায়!

ইউনিয়ন পর্যায়ে দলীয় প্রতীক বরাদ্দ এমনকি দলীয়ভাবে কাউকে সমর্থন দেয়াটিও আমার অপছন্দ।

অনেক উপজেলায় ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মনোনয়ন দিতে গিয়েও মাননীয় মহোদয়রা বাণিজ্য করেন! এমন কথা শুনা যায়, তাদের এতো টাকা কেন দরকার?  কয়শো বছর বাঁচবেন তিনারা? কার জন্য এত টাকা জমিয়ে যাচ্ছেন তারা?

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

বিডি-প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন

 


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২১ জানুয়ারি, ২০২১ ২১:৫০
প্রিন্ট করুন printer

বিসিএস'র বাইরে এক বিশাল পৃথিবী রয়েছে

ইফতেখায়রুল ইসলাম

বিসিএস'র বাইরে এক বিশাল পৃথিবী রয়েছে
ইফতেখায়রুল ইসলাম

মোটিভেশনের নামে দিনের পর দিন যে মানুষগুলো ছাত্র-ছাত্রীদের মাথায় শুধু 'বিসিএস ক্যাডার হও' টাইপ বার্তা গেঁথে দিয়েছেন, আমি তাদের অপছন্দ করি। 

এরা বিসিএস এর বাইরে যে আরও অনেক ক্ষেত্র আছে সেই জায়গাগুলো ইচ্ছে করেই আড়াল করে গেছেন দিনের পর দিন। কতগুলো পদের প্রেক্ষিতে কত লাখ পরীক্ষার্থী, সেই বিষয় দিব্যি ভুলে গিয়ে শুধু বিসিএস ক্যাডারের তকমা লাগাতে হবে সেটিই বলে গেছেন বারংবার! যার ফলে স্নাতক শুরু করতে যাওয়া ছাত্র অথবা ছাত্রীও একাডেমিক লেখাপড়া বাদ দিয়ে বিসিএস'র প্রস্তুতি শুরু করে দেয় অথবা কিভাবে বিসিএস ক্যাডার হবে সেই স্বপ্নে বিভোর হয়ে যায়!

মোটিভেশনের জোয়ারে ছাত্র-ছাত্রীদের একটা বিশাল অংশ, শুধু বিসিএস স্বপ্নে মশগুল হয়ে ব্যর্থতায় পর্যবসিত হয়ে, আর সেভাবে উঠে দাঁড়াতেই পারে না! নিজের কাঙ্ক্ষিত স্বপ্ন থেকে অনেক দূরে পরে থাকে। 

বিসিএস নিয়ে এক ধরনের মাইন্ড সেট হয়ে যাবার ফলে সেই অবসাদ থেকে বের হয়ে আর নতুন চ্যালেঞ্জকে আঁকড়ে ধরার সামর্থ্যটুকুও অনেকে হারিয়ে ফেলে। কারণ বিশেষজ্ঞগণ যে, শুধু বিসিএস এর স্বপ্নই দেখিয়েছেন, এর বাইরে যে এক বিশাল পৃথিবী রয়েছে এবং তাতে যে আমাদের অনেক বিষয়ের এক্সপার্ট প্রয়োজন সেটি তারা বুঝতে দেন নাই, বুঝান নাই! এভাবেই পেশাগত সঠিক গাইডলাইন না পাওয়া হাজারে হাজারে শিক্ষার্থী নিজের পেশাগত জীবনকে শুরু করার আগেই শেষ করে দিয়েছে! 

একটা না হলে আমার আরেকটা পরিকল্পনা যে থাকতে হবে; এমন এ,বি, সি প্ল্যান সম্পর্কেও বিশেষ বোদ্ধাগণ জানানোর প্রয়োজন বোধ করেননি! শুধু বিসিএস এর স্বপ্নই বুনে দিয়েছেন। নিজের ব্যক্তিগত জনপ্রিয়তা তথা কারো কারো ব্যবসা চাঙ্গা করার একটি দারুণ উপায় এই মোটিভেশন হলেও, তা যে একটি বুদ্ধিদীপ্ত ও মেধাবী সম্প্রদায়কে ধ্বংস করে দিচ্ছে মানসিকভাবে, সেটি বিশেষজ্ঞগণ দিব্যি ভুলে বসে আছেন। তাতে অবশ্য কারই বা কি আসে যায়?

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

লেখক : এডিসি মিডিয়া অ্যান্ড পিআর

বিডি প্রতিদিন/আরাফাত


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর