শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ জুলাই, ২০১৯ ২৩:৫৭

স্ত্রী ও শিশুপুত্রকে গলা কেটে হত্যার পর আত্মহত্যার চেষ্টা

মাগুরা প্রতিনিধি

স্ত্রী ও শিশুপুত্রকে গলা কেটে হত্যার পর আত্মহত্যার চেষ্টা

মাগুরা শহরের পারনান্দুয়ালীতে স্ত্রী ও ১০ মাসের শিশু সন্তানকে গলা কেটে হত্যার পর বিট্টু মজুমদার নামে এক ব্যক্তি আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। পুলিশের ধারণা, পারিবারিক কলহের জের ধরে রবিবার দিবাগত রাত থেকে গতকাল সকাল ৯টার মধ্যে বিট্টু এই হত্যাকা  ঘটিয়েছে। বিট্টুর স্ত্রীর নাম পূর্ণ মজুমদার (২৫)। শিশু পুত্রের নাম মানব মজুমদার। বেলা ১১টার দিকে এলাকাবাসীর খবরের ভিত্তিতে মাগুরা সদর থানা পুলিশ পারনান্দুয়ালীর মিস্ত্রিপাড়ার টিনশেড ঘর থেকে হতাহতদের উদ্ধার করে। শিশু মানব মজুমদার মস্তক দেহ থেকে বিচ্ছিন্ন ছিল। এই বাড়িতেই তারা ভাড়া থাকতেন। স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর আবদুল কাদের গনি মোহন জানান, ‘বিয়ের পর স্ত্রীকে নিয়ে বিট্টু চুয়াডাঙ্গায় থাকতেন। তাদের মধ্যে পারিবারিক কলহ চলছিল। তিন মাস আগে পারনান্দুয়ালী মিস্ত্রিপাড়ার হাজী আবদুর রশিদের ভাড়া বাড়িতে ওঠেন তারা। ওই বাড়ির পাশেই বিট্টুর পারিবারিক বসত। বিট্টু তার পরিবারে ফিরে যাওয়ার চেষ্টা করছিলেন। কিন্তু মুসলিম মেয়েকে বিয়ে করায় তার পরিবার সেটা মেনে নিতে পারেনি। তারা বিয়ে ভাঙার  চেষ্টা করছিল। কিছুদিন আগে এ বিষয়টি মীমাংসার জন্য আমার সঙ্গে বসেছিল। কিন্তু কোনো সমাধান হয়নি। এসব কারণে বিট্টু মানসিকভাবে বিপর্যস্ত ছিল। অভাব অনটন ও পারিবারিক বিচ্ছিন্নতা তার মূল কারণ।’ মাগুরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম জানান, হত্যায় ব্যবহৃত বঁটিটি উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতদের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মাগুরা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। আহত বিট্টুকে পুলিশ মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর