শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২৩:০৪

নদী কমিশন ঠুঁটো জগন্নাথ

নিজস্ব প্রতিবেদক

নদী কমিশন ঠুঁটো জগন্নাথ
স্থপতি ইকবাল হাবিব

নগরবিদ স্থপতি ইকবাল হাবিব বলেন, নদী দখলকারীদের রুখে দেওয়ার মতো ক্ষমতা বর্তমান প্রেক্ষাপটে নদী কমিশনের নেই। ক্ষমতা

না থাকায় প্রতিষ্ঠানটি ঠুঁটো জগন্নাথে পরিণত হয়েছে। নদীকে সচল করে বাঁচাতে চাইলে নদী কমিশনের অভিভাবকত্ব নিশ্চিত করতে হবে। যারা নদী দখল করেছেন তারা রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিকভাবে শক্তিশালী মহল। বাংলাদেশ প্রতিদিনকে এক সাক্ষাৎকারে তিনি একথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, আদালতের রায় অনুযায়ী নদী কমিশনের সুনির্দিষ্ট ক্ষমতা নিশ্চিত করতে হবে। সুপারিশভিন্ন প্রতিষ্ঠানটি কিছুই করতে পারে না। সবাইকে আইন-কানুন মানতে বাধ্য করতে হবে। প্রকৃত অভিভাবকত্ব পেতে গেলে সব প্রতিষ্ঠানকে সঙ্গে নিয়ে কাজ করতে হবে নদী কমিশনকে। নদীর পাড় থেকে অবৈধ দখলমুক্ত করার আগে সংরক্ষণের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা করতে হবে। এ ছাড়া উচ্ছেদ ফলপ্রসূ হয় না। রাজনৈতিক সদিচ্ছা থাকলে নদী কমিশনকে শক্তিশালী করা সম্ভব। আইনের প্রতিবিধান প্রশাসনিক জবাবদিহিতায় নিশ্চিত করা না গেলে নদী বাঁচানো সম্ভব নয়। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান তাদের ইচ্ছামতো নদী লিজ দিয়ে চলেছে। নদীর অভিভাবকত্বের দায়িত্ব দিতে হবে নদী কমিশনকে।


আপনার মন্তব্য