শিরোনাম
প্রকাশ : ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৯:৩৯
প্রিন্ট করুন printer

সীমান্তে মনোবল হারানো সেনাদের নারী সঙ্গের ব্যবস্থা চীনের

অনলাইন ডেস্ক

সীমান্তে মনোবল হারানো সেনাদের নারী সঙ্গের ব্যবস্থা চীনের
প্রতীকী ছবি

মহামারী করোনার মধ্যেই গেল বছর থেকে ভারত ও চীনের সম্পর্ক একেবারে তলানিতে পৌঁছেছে। একের পর এক আলোচনায় বসলেও সমাধান আসেনি কোনো দেশ। এর মধ্যে এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে উঠে এল চাঞ্চল্যকর দাবি। খবর সংবাদ প্রতিদিনের।

বলা হয়েছে, তীব্র শীতে নির্জন লাদাখে অবস্থান করা চীনা সেনারা ক্রমশই হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়ছে। এই অবস্থায় সীমান্তে মনোবল হারানো সেনাদের নারী সঙ্গের ব্যবস্থা চীনা প্রশাসন। সেখানে আনা হচ্ছে নর্তকীর দল। শুধু তাই নয়, বারবার রদবদল আনা হচ্ছে সেনার মধ্যে। একই সেনাদের বেশিদিন সীমান্তে ফেলে রাখা হচ্ছে না।

এর আগে ভারতের একজন সিনিয়র কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দাবি করেছেন, চীনের চেয়ে ভারত অন্তত পাঁচগুণ বেশিবার সীমান্ত টপকে তাদের দেশের ভেতরে ঢুকেছে। এ মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, ভারত যে ক্রমাগত সীমান্ত টপকে চীনের ভূখন্ডের ভেতর ঢুকে থাকে এটা আসলে 'অজান্তে' তারই একটা স্বীকারোক্তি।

ভারতের এই ধরনের আচরণের ফলেই সীমান্তে উত্তেজনা সৃষ্টি হচ্ছে বলেও চীন পাল্টা অভিযোগ করেছে। আর চীন-ভারত সম্পর্কের দিকে যে পর্যবেক্ষকরা নজর রাখেন, তারা বলছেন সীমান্তে উত্তেজনা নিরসনের জন্য দুই দেশের সামরিক ও কূটনৈতিক স্তরের আলোচনায় যে বিশেষ লাভ হচ্ছে না এই কথাবার্তাতেই তা প্রমাণিত।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১১:৫৫
প্রিন্ট করুন printer

আসছে হিলারি ক্লিনটনের রাজনৈতিক উপন্যাস 'স্টেইট অব টেরর'

অনলাইন ডেস্ক

আসছে হিলারি ক্লিনটনের রাজনৈতিক উপন্যাস 'স্টেইট অব টেরর'
ফাইল ছবি

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে নারী রাজনীতিবিদ হিসেবে একাধিক পরিচয় রয়েছে তার। বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে কাজ করার পাশাপাশি সামাজিক কাজে লিপ্ত থাকতে ভালোবাসেন হিলারি রডহ্যাম ক্লিনটন। বর্ণময় তার ক্যারিয়ার। তিনি নিজে স্বনামধন্য লেখিকা এবং উকিলও বটে। বিল ক্লিনটন দুই দফায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ছিলেন। তখন ফার্স্ট লেডি হিসেবে আট বছর হোয়াইট হাউসে পার করেন হিলারি। পরে তিনি পররাষ্ট্রমন্ত্রী হন। আরও পরে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লড়েন।

প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সময় যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে হিলারি বিশ্ব মঞ্চে দাপটের সঙ্গে কাজ করেন। আধুনিক যুক্তরাষ্ট্রের বিদেশ নীতিতে হিলারির কূটনৈতিক দক্ষতাকে সমীহের চোখে দেখা হয়। ২০১৬ সালে ডেমোক্রেটিক পার্টির হয়ে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থী হন হিলারি। তবে তিনি রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে হেরে যান। সেই হিলারি এবার একটি উপন্যাস লিখছেন। অবশ্য শুধু উপন্যাস না বলে রাজনৈতিক রোমাঞ্চ ইতিহাস বলাই উচিত।

জনপ্রিয় কানাডিয়ান লেখক লুইস পেনির সঙ্গে যৌথভাবে উপন্যাসটি লিখছেন তিনি। বইটি আগামী অক্টোবরে বাজারে আসবে বলে জানানো হয়েছে। 'স্টেইট অব টেরর' নামের রাজনৈতিক থ্রিলারধর্মী উপন্যাসটিতে ইতিহাস নয়, জোর দেওয়া হয়েছে আধুনিক সময় বিশ্বকে নাড়িয়ে দেওয়া বিভিন্ন রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের ঘটনার ওপর। ২০১৬ সালের মার্কিন নির্বাচন, যুক্তরাষ্ট্র-রাশিয়ার সম্পর্ক, রাজনীতির কুটচাল, নায়ক-খলনায়কসহ সবই থাকবে বইটিতে।

হিলারির বর্ণনায় উঠে আসতে পারে ডোনাল্ড ট্রাম্প, ভ্লাদিমির পুতিনসহ সমসাময়িক নানা চরিত্র। ট্রাম্প যুগে আমেরিকার ছবি কেন নিম্নমুখী হয়েছে তা নিয়েও বর্ণনা থাকতে পারে। বারাক ওবামা প্রেসিডেন্ট থাকার সময় ওসামা বিন লাদেন হত্যায় কীভাবে নীল নকশা করেছিল আমেরিকা তা নিয়েও আলাদা করে উল্লেখ থাকতে পারে এই বইয়ে। ইতিমধ্যেই প্রকাশনা সংস্থা জানিয়েছে বইটির চাহিদা বাজারে যথেষ্ট। এখন দেখার বিষয় হলো হিলারির এই বই বাজারে কতটা ঝড় তুলতে পারে। 

 

বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ সিফাত


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১১:৩৮
প্রিন্ট করুন printer

ইউরোপে এযাবৎকালের সবচেয়ে বড় মাদকের চালান জব্দ

অনলাইন ডেস্ক

ইউরোপে এযাবৎকালের সবচেয়ে বড় মাদকের চালান জব্দ

ইউরোপে বুধবার পৃথক অভিযানে রেকর্ড ২৩ টন কোকেইন জব্দ করা হয়েছে, পাচারকৃত এযাবৎকালের সবচেয়ে বড় মাদকের চালান।

গত ১২ ফেব্রুয়ারি থেকে চোরাকারবারীদের ওপর গোপনে নজর রাখছিল জার্মানি। অবশেষে হামবুর্গ বিমানবন্দরে কন্টেইনার থেকে ১৬ টন কোকেইন উদ্ধার করে জার্মান শুল্ক বিভাগ। প্যারাগুয়ে থেকে মাদকের চালানটি সেদেশে পৌঁছায়।

একইদিন, কোকেইনের আরেকটি বড় চালান জব্দ হয় বেলজিয়ামে। সেখানে উদ্ধার হয় ৭ টনের বেশি কোকেইন। চোরাকারবারের সাথে জড়িত একজনকে গ্রেফতার দেখানো হয়। জব্দকৃত মাদকের বাজারমূল্য কয়েক হাজার কোটি ইউরো। সূত্র: ডয়েচে ভেলে, ভয়েস অব আমেরিকা

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১১:২৪
প্রিন্ট করুন printer

ভূমধ্যসাগরে অভিবাসীবাহী নৌকাডুবি, ৪১ জনের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক

ভূমধ্যসাগরে অভিবাসীবাহী নৌকাডুবি, ৪১ জনের মৃত্যু
ফাইল ছবি

মধ্য ভূমধ্যসাগরে আফ্রিকা থেকে ইউরোপে পাড়ি জমানোর সময় অভিবাসীবাহী একটি নৌকাডুবির ঘটনা ঘটেছে। গত শনিবার নৌকাডুবির এ ঘটনা ঘটে। এতে অন্তত ৪১ অভিবাসীর মৃত্যু হয়েছে। উদ্ধারকারী একটি জাহাজ ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই প্রাণ হারান এসব অভিবাসী। 

গতকাল বুধবার ৯২৪ ফেব্রুয়ারি) জাতিসংঘের শরণার্থী ও অভিবাসন সংস্থা এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে। অভিবাসন সংস্থাটি আরও জানিয়েছে, গত ১৮ ফেব্রুয়ারি অন্তত ১২০ অভিবাসীকে নিয়ে লিবিয়া উপকূল থেকে ইউরোপের উদ্দেশে রওনা দেয় নৌকাটি।  যুদ্ধবিধ্বস্ত লিবিয়া থেকে উন্নত জীবনের প্রত্যাশায় তারা অবৈধ পথে ইউরোপে পাড়ি জমাচ্ছিলেন। চলতি বছরে ভূমধ্যসাগরে এ নিয়ে ১১৮ জনের মৃত্যু হলো। আর ২০১৪ সাল থেকে মোট ১৭ হাজার মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে ভূমধ্যসাগরে। 


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ সিফাত


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১০:৫৮
আপডেট : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১০:৫৯
প্রিন্ট করুন printer

খাশোগি হত্যার গোয়েন্দা প্রতিবেদন দেখেছেন বাইডেন

অনলাইন ডেস্ক

খাশোগি হত্যার গোয়েন্দা প্রতিবেদন দেখেছেন বাইডেন
বাইডেন ও খাশোগি (ডানে)

ওয়াশিংটন পোস্টের সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যার বিস্তারিত গোয়েন্দা প্রতিবেদন দেখেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। প্রতিবেদনটি পড়েছেন কিনা এমন প্রশ্নে বাইডেন বলেছেন, ‘হ্যাঁ, আমি পড়েছি।’ এর আগে হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, শিগগিরই এই প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে।

খাশোগি হত্যার বিষয়ে সৌদি বাদশাহর কাছে জানতে চাইবেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেন।  

সূত্রের বরাতে সংবাদ সংস্থা এক্সিওসের প্রতিবেদন বলছে, মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার ওই বিস্ফোরক প্রতিবেদনে বাদশাহ সালমানের সন্তানদের একজন ফেঁসে যেতে পারেন। যদিও কোন সন্তান ফাঁসছেন, সে কথা বলেনি ওই খবর।

২০১৮ সালে অক্টোবরে বিয়ে করা জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র আনতে গিয়ে  ইস্তানবুলের সৌদি কনস্যুলেটের ভেতরে নির্মমভাবে হত্যাকাণ্ডের শিকার হন খাশোগি। তিনি সৌদি সরকারের নীতির কঠোর সমালোচক ছিলেন।

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১০:৫৫
প্রিন্ট করুন printer

ইউরোপীয় ইউনিয়নকে ভেনিজুয়েলার পাল্টা জবাব, অবাঞ্ছিত রাষ্ট্রদূত

অনলাইন ডেস্ক

ইউরোপীয় ইউনিয়নকে ভেনিজুয়েলার পাল্টা জবাব, অবাঞ্ছিত রাষ্ট্রদূত

ভেনিজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর নেতৃত্বাধীন সরকার দেশটিতে নিযুক্ত ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূত ইসাবেল ব্রিলহান্তেকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করেছে। তাকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ভেনিজুয়েলা ছেড়ে যেতে বলা হয়েছে। খবর পার্সটুডের।

ধারণা করা হচ্ছে, ভেনিজুয়েলার হাইপ্রোফাইল ১৯ জন সরকারি কর্মকর্তার ওপর ইউরোপীয় ইউনিয়নের নিষেধাজ্ঞার পাল্টা  জবাবেই এই অবাঞ্চিত করার ঘোষণা। গতকাল বুধবার ভেনিজুয়েলার পররাষ্ট্রমন্ত্রী জর্জ আরিয়াজা সাংবাদিকদের জানান, প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আমরা মিস ইসাবেল ব্রিলহান্তেকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করেছি। তাকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ভেনিজুয়েলা ছাড়তে হবে।

উল্লেখ্য, গত সোমবার ভেনিজুয়েলার ১৯ জন সরকারি কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের ব্যাপারে একমত হন ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা। ভেনিজুয়েলার এইসব কর্মকর্তা দেশটিতে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত করছেন বলে তাদের অভিযোগ।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর