শিরোনাম
প্রকাশ : ৭ মার্চ, ২০২১ ০৩:৩৭
আপডেট : ৭ মার্চ, ২০২১ ১১:১৩
প্রিন্ট করুন printer

সিসতানির সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক পোপ ফ্রান্সিসের

অনলাইন ডেস্ক

সিসতানির সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক পোপ ফ্রান্সিসের

প্রথমবারের মতো ইরাকে ঐতিহাসিক সফর শুরু করেছেন পোপ ফ্রান্সিস। গত শুক্রবার (৫ মার্চ) রোম থেকে বাগদাদের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেন তিনি। প্রধান যাজক হিসেবে এটিই তাঁর প্রথম ইরাক সফর। তাঁর এই সফর ইরাকের খ্রিস্টানদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ইরাকে সফরে গিয়ে দেশটির শিয়া মুসলমানদের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলী সিসতানির সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকটি করেছেন পোপ ফ্রান্সিস।  

শনিবার পবিত্র শহর নাজাফে দুই নেতার মধ্যে এ গুরুত্বপূর্ণ সাক্ষাৎ অনুষ্ঠিত হয়। নাজাফের সরু গলিতে অবস্থিত সিসতানির ভাড়া বাড়িতে প্রায় ৫৫ মিনিটের বৈঠক করেন তারা। বিবিসি জানিয়েছে, আয়াতুল্লাহ আল-সিসতানির সাক্ষাৎ পাওয়া খুবই বিরল, তিনি মানুষজনের সঙ্গে সচরাচর দেখা করেন না। কিন্তু পোপের সঙ্গে তিনি কথা বলেছেন। 

সিসতানির কার্যালয় থেকে জানানো হয়েছে, দুই ধর্মীয় নেতা তাদের আলোচনায় শান্তির বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়েছেন। বিবিসি বলছে, গত কয়েক বছরে ইরাকে অন্য সব সম্প্রদায়ের মানুষের মত খ্রিস্টানরাও নানাভাবে সহিংসতার শিকার হয়েছে।

এই ‘প্রতীকী সফর’ করা তার ওপর একটা কর্তব্য বলে ৮৪ বছর বয়সী খ্রিস্টান এ ধর্মগুরু সাংবাদিকদের জানিয়েছেন। 

বৈঠকে আয়াতুল্লাহ আল-সিসতানি বলেছেন, ইরাকের অন্য নাগরিকদের মতো খ্রিস্টান নাগরিকদেরও শান্তি ও নিরাপত্তার মধ্যে এবং তাদের পূর্ণ সাংবিধানিক অধিকার নিয়ে জীবন কাটাতে না পারার বিষয়টাতে তিনি উদ্বিগ্ন।

ইরাকের সাম্প্রতিক ইতিহাসে সবচেয়ে সহিংস একটা সময়ে দেশটির ‘সবচেয়ে দুর্বল এবং সবচেয়ে নির্যাতিত সম্প্রদায়ের মানুষের পক্ষ নিয়ে কথা বলার’ জন্য পোপ ফ্রান্সিস আয়াতুল্লাহকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘ইরাকের বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মধ্যে ঐক্যের গুরুত্ব এবং সব মানুষের জীবনই যে পবিত্র ও মূল্যবান’ তা নিশ্চিত করেছে শিয়া নেতা সিসতানির শান্তির বার্তা।

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর