Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৭:৫৬

‘নবান্ন অভিযান’ ঘিরে পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া রণক্ষেত্র

দীপক দেবনাথ, কলকাতা

‘নবান্ন অভিযান’ ঘিরে পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া রণক্ষেত্র

বাম শিক্ষার্থী-যুব সংগঠনের তরফে ‘নবান্ন’ অভিযানকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রে পরিণত হলো পশ্চিমবঙ্গের হাওড়ার মল্লিক ফটক এলাকায়। এসময় পুলিশ ও বাম কর্মী-সমর্থকদের সাথে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে দুই পক্ষেরই বেশ কয়েকজন আহত হয়। আইন-শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে বেশ কয়েকজন আন্দোলনকারীকে আটক করে পুলিশ।

সকলের জন্য কাজ, কম খরচে শিক্ষা, বেকার ভাতা, কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে রাজ্যে শিল্পায়নসহ একাধিক দাবিতে সিঙ্গুর থেকে রাজ্য সরকারের সচিবালয় ‘নবান্ন’ অভিযানের ডাক দেয় সিপিআইএম’এর ১২ টি যুব-শিক্ষার্থী সংগঠন।

বৃহস্পতিবার সিঙ্গুর থেকে সেই মিছিল শুরু হয়ে ডানকুনি শুক্রবার সকালের দিকে হাওড়া রেল স্টেশনে জমায়েত হন আন্দোলনকারীরা। 

এরপর দুপুরের দিকে নবান্নের দিকে রওনা দেয় ওই মিছিল। নবান্নমুখী মল্লিক ফটক এলাকায় প্রধান ব্যারিকেডে ওই মিছিলে গতিপথ আটকাতেই শুরু হয় ধস্তাধস্তি। ব্যারিকেড ভাঙার চেষ্টা করলে প্রথমে হাতাহাতি বাধে দুই পক্ষের মধ্যে। এসময় পুলিশকে লক্ষ্য করে আন্দোলনকারীরা ইঁট ছুঁড়ে বলে অভিযোগ। 

বিক্ষোভকারীদের হটাতে পুলিশও লাটিপেটা করে। এক সময় জলকামান ও টিয়ার গ্যাসের সেল ছুঁড়ে পুলিশ। এমনকি পুলিশের বিরুদ্ধেও ইঁট ছোড়ার অভিযোগ তোলা হয়। পুলিশের লাঠির আঘাতে একদিকে যেমন একাধিক আন্দোলনকারী আহত হয়েছেন তেমনি তাদের ছোঁড়া ঢিলেও দুই-একজন পুলিশকর্মী আহত হয়েছেন বলে খবর। যদিও এতকিছুতেও বিক্ষোভরত বাম শিক্ষার্থী-যুব কর্মীদের মনোবল ভাঙা যায়নি। সাময়িকভাবে আন্দোলনকারীরা ছত্রভঙ্গ হলেও দফায় দফায় তারা জমায়েত হয়। এসময় পুলিশের সঙ্গে দফায় দফায় সংঘর্ষ বাধে। 

এ ঘটনায় আহতদের হাওড়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আন্দোলনকারীদের দাবি শান্তিপূর্ণ মিছিলে পুলিশ অযথা লাঠি চার্জ করে। পুলিশের নির্যাতনের অভিযোগ তুলে দলের শীর্ষ নেতৃত্বের নির্দেশে হাওড়ায় সিপিআইএম জেলা কার্যালয়ে জমায়েত হয় আন্দোলনকারীরা। 


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য