শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০২

কৃষি সংবাদ

লতায় লতায় মোম আলু

মহিউদ্দিন মোল্লা, কুমিল্লা

লতায় লতায় মোম আলু

কুমিল্লার গ্রামগুলোতে আলুর বাগান জুড়ে শোভা পাচ্ছে মোম আলু। পেস্তা আলুকেই দক্ষিণ কুমিল্লায় বলা হয় মোম আলু। গ্রামাঞ্চলে এবার এ আলুর ব্যাপক চাষ হয়েছে। লাকসামের মনপাল গ্রামের আলু চাষি জান্নাতুল ফেরদাউস বলেন, এ আলুকে স্থানীয়ভাবে মোম আলু বলা হয়। কারণ রান্নার পর মোমের মতোই নরম হয়ে যায়। খেতেও সুস্বাদু। গাছের খুব বেশি যত্ন নিতে হয় না। কয়েকটি আলু বীজ আত্মীয়ের বাড়ি থেকে এনে লাগিয়েছিলাম। পানি, সার, কীটনাশক কিছুই দেইনি। ঘরের  পেছনে পরিত্যক্ত জায়গায় বীজ লাগাই। গাছগুলো এখন সুপারি ও নারিকেল গাছে ছড়িয়ে পড়েছে। লতায় লতায় আলু ঝুলে আছে। এ আলু দিয়ে পরিবারের সবজির চাহিদা পূরণ করা হচ্ছে।  সদর দক্ষিণ উপজেলার উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মোসলেহ উদ্দিন বলেন, কুমিল্লায় পারিবারিকভাবে মেঠো আলু ও পেস্তা আলু যুগ যুগ ধরে চাষ হচ্ছে। প্রায় বিনা পুঁজিতে গৃহস্থরা এ আলু চাষ করে পরিবারের চাহিদা মেটান। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর কুমিল্লার জেলা প্রশিক্ষণ অফিসার ড. শাহিনুল ইসলাম বলেন, এই পেস্তা আলু অনেক পুষ্টিকর। দেশের কিছু অঞ্চলে এ আলুর চাষ বাণিজ্যিকভাবে শুরু হয়েছে। কুমিল্লায় পারিবারিকভাবে পরিত্যক্ত জায়গায় এর চাষ হচ্ছে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর জানায়, পেস্তা আলু চাষ করার জন্য উষ্ণ আবহাওয়া দরকার। জৈব পদার্থসমৃদ্ধ বেলে দোআঁশ ও  দোআঁশ মাটিতে এর চাষ ভালো হয়। আলু এবং মাটির নিচের কন্দ দ্বারা পেস্ত আলুর চারা তৈরি করা হয়। এ আলুর একটি গাছে প্রায় ২০০ টি আলু হতে পারে। এ গাছে কোনো পোকার আক্রমণ হয় না। চাষে তেমন টাকা খরচও হয় না।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর