শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০১:৪১

ইপিজেড শ্রম বিল পাস

শ্রমিকের সঙ্গে অন্যায় আচরণে জরিমানা অনাদায়ে জেল

নিজস্ব প্রতিবেদক

শ্রমিকের সঙ্গে অন্যায় আচরণে জরিমানা অনাদায়ে জেল

ইপিজেড শ্রম আদালত প্রতিষ্ঠা ও ইপিজেড শ্রমিকদের জন্য শ্রমিক কল্যাণ সমিতি গঠনের বিধান রেখে পাস হয়েছে ‘বাংলাদেশ ইপিজেড শ্রম বিল, ২০১৯’।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে গতকাল সংসদের বৈঠকে বিলটি কণ্ঠভোটে পাস হয়। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বিলটি পাসের প্রস্তাব করেন। এর আগে বিলের ওপর আনীত সংশোধনী, জনমত যাচাই ও বাছাই কমিটিতে প্রেরণের প্রস্তাবগুলো কণ্ঠভোটে নাকচ হয়ে যায়। বিলে বলা হয়েছে, এই আইনের অধীন সংঘটিত সব অপরাধ জামিনযোগ্য। এই আইনের অধীনে মালিক শ্রমিকের সঙ্গে কোনো অন্যায় আচরণ করলে ৫০ হাজার টাকা অর্থদ- এবং অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদন্ডের বিধান রাখা হয়েছে। এ ছাড়া এই আইনের অধীনে কোনো শ্রমিক বেআইনি ধর্মঘট আরম্ভ করলে ৫ হাজার টাকা অর্থদ- অথবা ৬ মাসের কারাদন্ডে দ-িত করার বিধান রাখা হয়েছে। এই আইনে দ নীয় কোনো অপরাধ সংঘটিত হলে ইপিজেড শ্রম আদালত ব্যতীত অন্য কোনো আদালত কর্তৃক বিচার্য হবে না।

 শ্রম আদালতের বাইরে ইপিজেড শ্রমিকদের বিষয়টি এই আইনের অধীনে পরিচালিত হবে এবং আলাদা ইজিজেড শ্রম আদালত ও ইপিজেড শ্রম আপিল ট্রাইব্যুনাল প্রতিষ্ঠিত হবে। এ ছাড়া  ইপিজেড শ্রমিকরা ট্রেড ইউনিয়নের আদলে শ্রমিক কল্যাণ সমিতি গঠন ও  শ্রমিক কল্যাণ সমিতির ফেডারেশনের বিধান রয়েছে। বিলের ১৩৩ থেকে ১৩৬ ধারায় ইপিজেড শ্রম আদালত ও ইপিজেড শ্রম আপিল ট্রাইব্যুনাল গঠনের বিধান রাখা হয়েছে। বিলের ৯৪ ধারায় শ্রমিক কল্যাণ সমিতি গঠনের বিধান রাখা হয়েছে। 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর