Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৭ মে, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ মে, ২০১৯ ২৩:৩৯

সাবরুমে আইসিটি হবে, ত্রিপুরার প্রস্তাবে দিল্লির অনুমোদন

গৌতম লাহিড়ী, নয়াদিল্লি

সাবরুমে আইসিটি হবে, ত্রিপুরার প্রস্তাবে দিল্লির অনুমোদন

চট্টগ্রাম বন্দরের সঙ্গে ত্রিপুরা রাজ্যের সংযোগের জন্য ১৫০ মিটার দীর্ঘ চার লেনবিশিষ্ট একটি সেতু নির্মাণ করা হবে। সেতুটি প্রস্তাবিত ভারত-বাংলাদেশ-চীন-মিয়ানমার অর্থনৈতিক করিডোর স্থাপনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত থেকে চট্টগ্রাম বন্দরের দূরত্ব ৭০ কিলোমিটার।

ভারতীয় কর্মকর্তারা জানান, সেতু প্রকল্পটি চীনের বেল্ট রোড প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। ভারত সরকার প্রতিবেশী বাংলাদেশের সঙ্গে উন্নত বাণিজ্যিক ও দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক গড়ে তোলার জন্য দ্বিতীয় ইন্টিগ্রেটেড চেকপোস্ট (আইসিটি) অর্থাৎ সমন্বিত পরীক্ষণ ফাঁড়ি স্থাপনের প্রস্তাব অনুমোদন করেছে। আইসিটি স্থাপনের প্রস্তাব দিয়েছিল মানিক সরকারের নেতৃত্বাধীন ত্রিপুরা রাজ্য সরকার।

বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার রিভা দাস গাঙ্গুলী সম্প্রতি আগরতলায় এসে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের সঙ্গে আইসিটি স্থাপন বিষয়ে আলোচনা করেছেন। ২০১৩ সালে আখাউড়ায় প্রথম আইসিটি স্থাপন করা হয়। দ্বিতীয় আইসিটি নির্মাণ প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে ভারতের স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ। প্রথমটির মতোই হবে দ্বিতীয় আইসিটি। দ্বিতীয় ইন্টিগ্রেটেড চেকপোস্ট (আইসিটি) প্রকল্প সোমবার দিল্লিতে অনুষ্ঠিত আন্তমন্ত্রণালয় বৈঠকে অনুমোদন করা হয়। বৈঠকে ত্রিপুরার প্রতিনিধিত্ব করেন বিশেষ সচিব কিরণ কুমার গিত্তে। তিনি জানান, এই আইসিটি হবে সাবরুমে। এজন্য ত্রিপুরার বাণিজ্য বিভাগ ৪৯ একর জমি চিহ্নিত করেছে। এর মধ্যে সরকারি জমি ৯ একর। তাই, ব্যক্তিমালিকানাধীন ৪০ একর জমি অধিগ্রহণের প্রয়োজন রয়েছে।


আপনার মন্তব্য