Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ আগস্ট, ২০১৯ ২৩:২০

সৌদিতে ইন্দোনেশিয়া ও ফিলিপাইনের যুবতীদের পছন্দ বাংলাদেশি যুবক

মোস্তফা কাজল, সৌদি আরব থেকে

সৌদিতে ইন্দোনেশিয়া ও ফিলিপাইনের যুবতীদের পছন্দ বাংলাদেশি যুবক

সৌদি আরব প্রবাসী ইন্দোনেশিয়া ও ফিলিপাইনের যুবতীদের বেশি পছন্দ বাংলাদেশি যুবক। গত তিন বছরে সৌদি আরব প্রবাসী বাংলাদেশি যুবকদের সঙ্গে ওই দুই দেশের শতাধিক যুবতী বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন। এ বিষয়টি এখন সৌদি আরবের বিভিন্ন সিটিতে আলোচনার বিষয়ে পরিণত হয়েছে। ইন্দোনেশিয়া ও ফিলিপাইনের যুবতীরা মনে করেন, বাংলাদেশি যুবকরা সৎ, পরিশ্রমী ও শিক্ষিত। এ তিনটি বিষয় মিলে গেলে তারা বাংলাদেশি যুবকদের স্বামী হিসেবে বেছে নেন। গত কয়েক দিনে সৌদি আরবের বিভিন্ন শহর ঘুরে পাওয়া গেছে এসব তথ্য। সৌদি    আরবের ম্যারিজ রেজিস্ট্রার সূত্র জানায়, সৌদি আরবে বিবাহ বহির্ভূতভাবে যুবক ও যুবতীদের একসঙ্গে থাকার কোনো সুযোগ নেই। এমন ঘটনা ধরা পড়লে কঠিন শাস্তির মুখোমুখি হতে হয়। তাই অনেকে পছন্দের পাত্রীকে বিয়ে করছেন। ইন্দোনেশিয়ার যুবতী সামান্থা বিনতে সোফিয়া (২৫) সৌদি আরবের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। সেখানে পরিচয় হয় বাংলাদেশি যুবক মো. আবু সাঈদের (২৬) সঙ্গে। পরিচয় থেকে বন্ধুত্ব। এক বছর পর তারা বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। সামান্থা জানান, তার পরিচিত দুজন বান্ধবীও বাংলাদেশি দুই যুবককে বিয়ে করেছেন। উম্মে হানি ড্যানিয়েল (২২) নামের ফিলিপাইনের এক তরুণী জানান, তিনিও তার বাংলাদেশি সহপাঠীকে বিয়ে করেছেন। কেন করেছেনÑ জানতে চাইলে বলেন, বাংলাদেশিরা পরিশ্রমী। তারা স্ত্রীকে মর্যাদা ও সম্মান দিতে জানে। এসব কারণে তিনি বাংলাদেশি যুবককে বিয়ে করেছেন। এ ছাড়া ইন্দোনেশিয়ার যুবতীকে বিয়ে করেছেন শফিক বিন শাহেদ নামের কুমিল্লার যুবক। তিনি জানান, ইন্দেনেশিয়ার যুবতীরা স্বামীকে সেবা করেন। নিজের আয় স্বামীর হাতে তুলে দেন বলে তিনি বিয়ে করেছেন। এ বিয়ের ফলে তিনি সহজেই ইন্দোনেশিয়ার নাগরিকত্ব পাবেন বলে জানান। জানা গেছে, সৌদি আরবের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কয়েক হাজার বাংলাদেশি শিক্ষার্থী রয়েছেন। তাদের সহপাঠী ইন্দোনেশীয় ও ফিলিপাইনের ছাত্রীরাই লেখাপড়ার পাশাপাশি বাংলাদেশি যুবকদের সঙ্গে পরিণয় সূত্রে আবদ্ধ হচ্ছেন। তাদের অনেকে বিয়ের পর বাংলাদেশের শ^শুরবাড়ি ঘুরে এসেছেন। আবার অনেকে বাংলাদেশে যাওয়ার অপেক্ষায় রয়েছেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর