শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৭ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৭ এপ্রিল, ২০২০ ০০:২৪

গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে

----- মাওলানা ইউনুছ আহমাদ

গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মহাসচিব প্রিন্সিপাল মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেছেন, করোনাভাইরাস বিশ্বব্যাপী মহামারী আকার ধারণ করেছে। বাংলাদেশেও পরিস্থিতি ক্রমেই অবনতির দিকে যাচ্ছে। এ অবস্থায় দেশের সাধারণ মানুষকে সচেতন করতে ইসলামী দলগুলো ব্যাপক ভূমিকা রাখতে পারে, রাখছেও। তিনি বলেন, মহামারীর ব্যাপারে ইসলামের দৃষ্টিভঙ্গি তুলে ধরে মানুষকে সচেতন করলে বেশি ফলপ্রসূ হয়। ইসলামী দলের অনেক নেতা মসজিদের ইমাম ও খতিবের দায়িত্ব পালন করে থাকেন। সে হিসেবে মসজিদের মাইকে ওয়াজের মাধ্যমে সচেতন করে তুলতে পারেন। গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন তিনি। মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেন, ইসলামী সংগঠন হিসেবে ইসলামী আন্দোলনও করোনা নিয়ে জাতিকে সচেতন করতে দেশব্যাপী লিফলেট, প্রচারপত্র, ফেস্টুন, মোড়ে মোড়ে পানি ও সাবানের ব্যবস্থা করে অপরদিকে কর্মহীন ও অভাবগ্রস্ত মানুষকে খাদ্যসামগ্রী দিয়ে সাহায্য করছে। তা ছাড়া কর্মীদের দিয়ে বাসায় বাসায় গিয়েও সচেতন করার কাজ করছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। ইউনুছ আহমাদ বলেন, করোনা মহামারীতে লকডাউন অবস্থায় দরিদ্র ও কর্মহীন মানুষের দুর্দিনে তাদের প্রতি সহানুভূতির হাত বাড়ানো সবার দায়িত্ব। তিনি বলেন, অসহায় কর্মহীন মানুষ ও মধ্যবিত্ত মানুষের এ দুর্যোগ মুহূর্তে দুই মাসের বাড়ি ভাড়া মওকুফ করা উচিত। পানি, বিদ্যুৎ ও গ্যাস বিল সরকারের মওকুফ করা উচিত। ইউনুছ আহমাদ বলেন, অসহায় মানুষের ত্রাণ নিয়েও অনিয়ম পরিলক্ষিত হচ্ছে। দুর্নীতির খবর পাওয়া যাচ্ছে। ত্রাণ বিতরণে এ ধরনের অনিয়ম মেনে নেওয়া যায় না। এসব দুর্নীতিবাজদের কঠোর হস্তে দমন করতে হবে। ত্রাণ বিতরণের দায়িত্ব সেনাবাহিনীকে দিতে হবে। তিনি বলেন, করোনাভাইরাস পরীক্ষা করার ব্যবস্থা আরও বাড়াতে হবে। আক্রান্তরা যথাযথ সেবা পাচ্ছে না। তাদের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত ও আরও উন্নত করতে হবে। পাশাপাশি সাধারণ চিকিৎসা অব্যাহত রাখতে হবে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর